অর্থনৈতিক ডেস্ক:: আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের চাহিদার নিম্নগামী প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে। চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) মূল্যবান ধাতুটির বৈশ্বিক চাহিদা আট বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থানে নেমে এসেছে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯ শতাংশ কম। গত কয়েক বছরের মধ্যে শুধু ২০১৫ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে বিশ্বব্যাপী স্বর্ণের চাহিদা বেড়েছিল।

ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিলের (ডব্লিউজিসি) সর্বশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবর : রয়টার্স

ডব্লিউজিসির প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়কালে স্বর্ণের মোট বৈশ্বিক চাহিদা ছিল ৯১৫ টন, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৮৬ দশমিক ১ টন বা ৯ শতাংশ কম। ২০১৬ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে মূল্যবান ধাতুটির মোট বৈশ্বিক চাহিদা ছিল ১ হাজার ১ দশমিক ১ টন। আট বছরের মধ্যে তৃতীয় প্রান্তিকে এটি পণ্যটির সর্বনিম্ন বৈশ্বিক চাহিদা। এ সময় অলংকার হিসেবে স্বর্ণের বৈশ্বিক চাহিদা আগের বছরের তুলনায় ৩ শতাংশ কমেছে।

চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে স্বর্ণালংকারের বৈশ্বিক চাহিদা ছিল ৪৭৯ টন, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১৬ টন কম। মূলত অন্যতম শীর্ষ ভোক্তা দেশ চীনে বার ও কয়েন বাবদ পণ্যটির বাড়তি চাহিদা মোট বৈশ্বিক চাহিদার পরিমাণ কমাতে ভূমিকা রেখেছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে চীনে বার ও কয়েন বাবদ স্বর্ণের চাহিদা ছিল ৬৪ দশমিক ৩ টন, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫৭ শতাংশ বেশি। ২০১৬ সালের জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়কালে চীনে বার ও কয়েন বাবদ স্বর্ণের চাহিদা ছিল ৪১ টন।