অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক:: আমানতের সুদের হার কমালেও ঋণের সুদের হার কমাতে গড়িমসি করছে বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো। সরকারের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক এবং বেসরকারি ব্যাংক উদ্যোক্তাদের নিজেদের ঘোষণা সত্বেও ঋণের সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে অর্থাৎ ৯ শতাংশে নামছে না।

প্রসঙ্গত, বেসরকারি ব্যাংকের উদ্যোক্তারা গত ১ জুলাই থেকে আমানতের সুদের হার ৬ শতাংশ এবং ঋণের সুদের হার সর্বোচ্চ ৯ শতাংশের মধ্যে নামিয়ে আনা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন। এরপর গত আড়াই মাসেরও বেশি সময়ে ৩৮টি বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে মাত্র ২টি ব্যাংক ঋণের সুদের হার কমিয়েছে।

ব্যাংক দু’টি হচ্ছে- ঢাকা ব্যাংক ও আইএফআইসি ব্যাংক। এর বিপরীতে রাষ্ট্রায়ত্ত ৬টি বাণিজ্যিক ও ২টি বিশেষায়িত ব্যাংক ইতোমধ্যেই তাদের ঋণের সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে এনেছে। অন্যদিকে ৭টি বেসরকারি ইসলামী ব্যাংক চলতি বছরের শেষদিকে নতুন করে মুনাফার হার নির্ধারণ করবে বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে ব্যাংক এশিয়া ১১ থেকে ১২ শতাংশ, ব্র্যাক ব্যাংক ৯ থেকে সাড়ে ১২ শতাংশ, মার্কেন্টাইল ব্যাংক ৯ থেকে ১২ শতাংশ, সাউথ বাংলা এগ্রিকালচারাল ব্যাংক ১৪ শতাংশ, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক সাড়ে ১০ শতাংশ থেকে সাড়ে ১৩ শতাংশ, ইস্টার্ন ব্যাংক সাড়ে ১০ শতাংশ থেকে ১১ শতাংশ, সাউথ-ইস্ট ব্যাংক ৯ থেকে ১২ শতাংশ, সিটি ব্যাংক ৯ থেকে ১৬ শতাংশ, মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ৯ থেকে ১২ শতাংশ, ন্যাশনাল ব্যাংক ১২ থেকে ১৪ শতাংশ, যমুনা ব্যাংক সাড়ে ১২ শতাংশ, মেঘনা ব্যাংক সাড়ে ১৩ শতাংশ, বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক ৯ থেকে ১৪ শতাংশ, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক ৯ থেকে ১২ দশমিক ৭৫ শতাংশ, এনসিসি ব্যাংক ৯ থেকে ১৮, প্রিমিয়ার ব্যাংক ১১ থেকে ১৬ শতাংশ, ওয়ান ব্যাংক ৯ থেকে সাড়ে ১৪ শতাংশ, পূবালী ব্যাংক ৯ থেকে সাড়ে ১৩ শতাংশ, সীমান্ত ব্যাংক ১১ থেকে ১২ শতাংশ, মিডল্যান্ড ব্যাংক সাড়ে ৯ থেকে সাড়ে ১৬ শতাংশ, এবি ব্যাংক ৯ থেকে সাড়ে ১৩ শতাংশ, মধুমতি ব্যাংক ৯ দশমিক ৭৫ থেকে ১৬ শতাংশ, ট্রাস্ট ব্যাংক ৯ থেকে সাড়ে ১৪ শতাংশ, উত্তরা ব্যাংক ১০ থেকে ১১ শতাংশ ও প্রাইম ব্যাংক ৯ থেকে সাড়ে ১৬ শতাংশ হার সুদে ঋণ দিচ্ছে।

মেয়াদী ঋণের ক্ষেত্রে ব্র্যাক ব্যাংক ১১ থেকে সাড়ে ১২ শতাংশ, মার্কেন্টাইল ব্যাংক ৯ থেকে ১২ শতাংশ, সাউথ বাংলা এগ্রিকালচারাল ব্যাংক ১৪ শতাংশ, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক ৯ থেকে ১৩ শতাংশ, সাউথ-ইস্ট ব্যাংক ৯ থেকে ১২ শতাংশ, সিটি ব্যাংক ৯ থেকে ১৬ শতাংশ, মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ৯ থেকে সাড়ে ১৪ শতাংশ, ন্যাশনাল ব্যাংক ১২ শতাংশ, যমুনা ব্যাংক ১২ থেকে ১৩ শতাংশ, মেঘনা ব্যাংক ১৪ থেকে ১৫ শতাংশ, কমার্স ব্যাংক ৯ থেকে ১৪ শতাংশ, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক ৯ থেকে ১২ শতাংশ, এনসিসি ব্যাংক সাড়ে ৯ থেকে ১৮ শতাংশ, প্রিমিয়ার ব্যাংক ৯ থেকে ১৬ শতাংশ, ওয়ান ব্যাংক ১০ থেকে ১৬ শতাংশ, পূবালী ব্যাংক ৯ থেকে সাড়ে ১৩ শতাংশ, সীমান্ত ব্যাংক সাড়ে ১১ থেকে ১২ শতাংশ, মিডল্যান্ড ব্যাংক ৯ থেকে ১৮ শতাংশ, এবি ব্যাংক সাড়ে ১৩ থেকে ১৬ শতাংশ, মধুমতি ব্যাংক সাড়ে ৯ থেকে সাড়ে ১২ শতাংশ, ট্রাস্ট ব্যাংক সাড়ে ৯ থেকে ১৩ শতাংশ, উত্তরা ব্যাংক ১০ থেকে ১১ শতাংশ ও প্রাইম ব্যাংক ৯ থেকে ১৭ শতাংশ হার সুদে ঋণ দিচ্ছে।

ঋণের সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনা প্রসঙ্গে সচিবালয়ে এ-সংক্রান্ত এক বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘আমরা এমন চাই যেটা প্রধানমন্ত্রী বলেছেন। ঋণের সুদের হার এমন হওয়া উচিত নয় যা বিনিয়োগ চায় না।’

একই প্রসঙ্গে ডেপুটি গভর্নর এসএম মনিরুজ্জামান বলেন, ‘কোন্ খাতে ঋণের হার কত হবে সেটা ব্যাংকগুলো নিজেরাই ঠিক করবে। যদি তারা এক্ষেত্রে ফেল করে, তখন বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের গাইডলাইন দিয়ে সহায়তা দেবে।’