অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক:: অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ৫ কর্মকর্তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়ছে। জানা গেছে, স্যোসাল সিকিউরিটি ফান্ড একটি বিশেষ ব্যাংকে রেখে অনিয়ম করায় তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে।

বুধবার সকালে এ খবর জানা গেছে। ৪ অক্টোবর তিতাসের পাঁচ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা চেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এই নিষেধাজ্ঞা চেয়ে ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে দুদক।

নিষেধাজ্ঞা প্রাপ্ত অন্যরা হলেন- তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মীর মসিউর রহমান, তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশনের উপ-মহাব্যবস্থাপক এস এম আবদুল ওয়াদুদ, আবিডি-নারায়ণগঞ্জ শাখার মহা-ব্যবস্থাপক শফিকুর রহমান, ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিসেস শাখার ব্যবস্থাপক শাহজাদা ফরাজী ও সহকারী কর্মকর্তা আবু ছিদ্দিক তায়ানী।

গত ২০ সেপ্টেম্বর, তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মীর মসিউর রহমানসহ ৮ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করে দুদক। গত ১ ও ২ অক্টোবর তাদের দুদকে হাজির হতে বলা হয়েছিল। তবে দুদকের ডাকে হাজির না হয়ে অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে ২ থেকে ৩ সপ্তাহ সময় চান তিতাসের এমডি পরিচালক মীর মসিউর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

যেখানে তাদের ডায়াবেটিকস, হাইপারটেনশন, হাড়ের রোগ ইত্যাদি রোগের কথা উল্লেখ করে ডাক্তারি সার্টিফিকেট সংযুক্ত করা হয়। যদিও অভিযোগ ছিল তারা দুদকে হাজির না হয়ে অফিস করেছিলেন। দুদক ২০১৭ সালের ৬ এপ্রিল থেকে দুদক অভিযোগটি অনুসন্ধান করছে।