আইন-আদালত ডেস্ক:: গ্রামীণ টেলিকম ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ও নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও অপরাধজনক বিশ্বাসভঙ্গের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৪ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত।

এর আগে গত ২০ মার্চ ঢাকা মহানগর হাকিম সুব্রত ঘোষের আদালতে মামলাটি করেন মেসার্স তাজ এন্টার প্রাইজের মালিক বাহাদুর ইসলাম ইমতিয়াজ। আদালত মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য রাজধানীর পল্লবী থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

আজ বৃহস্পতিবার ধার্য তারিখে পুলিশ প্রতিবেদন দাখিল না করায় আদালত নতুন এ দিন ধার্য করেন।

মামলার অপর আসামিরা হলেন— গ্রামীন টেলিকম ট্রাস্টের প্রধান নির্বাহী আশরাফুল হাসান, বিভাগীয় প্রধান জহিরুল ইসলাম, সহকারী ব্যবস্থাপক মো. আসাদুল্লাহ দেওয়ান।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, গত ২৩/১১/১৫ ইং তারিখে গ্রামীণ টেলিকম ট্রাস্টের সাথে মেসার্স তাজ ঠিকেদারী প্রতিষ্ঠানের ৬ কোটি ৮৫ লাখ ৮৯ হাজার ৪ টাকার ভালু ভরাটের চুক্তি হয়। চুক্তি মোতাবেক আশুলিয়া থানার জিয়ার ঘোষবাগে বালু ভরাটের কাজ সম্পন্ন করেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

কিন্তু আসামিরা পাওনা টাকা পরিশোধ না করে বিভিন্নভাবে সময়ক্ষেপণ করে প্রতারণার আশ্রয় নেয়। চুক্তি মোতাবেক পাওনা টাকা পরিশোধ না করায় বাদী আদালতের সরণাপন্ন হয়েছেন।