আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: অর্থপাচার মামলায় দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিতে অস্বীকার করেছেন মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক।

মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহাদ (১এমডিবি) তহবিল সংশ্লিষ্ট অর্থ আত্মসাতের তিনটি নতুন মামলার শুনানিতে তিনি এ জবানবন্দি দিতে অস্বীকার করেন।

ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ মাথায় নিয়ে মাস তিনেক আগে দেশটির জাতীয় নির্বাচনে পরাজয়ের মধ্য দিয়ে ক্ষমতা ছাড়েন তিনি।

এর আগে মালয়েশিয়ার নতুন সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেন নাজিব। এ অভিযোগ থেকে তিনি নিষ্কৃতি পাবেন বলে দাবি করেন।

ক্ষমতায় থাকাকালীন নাজিব যেসব মামলা চাপা দিয়ে রেখেছিলেন, নতুন সরকার এসে সেগুলোর তদন্ত শুরু করে দিয়েছে। তিনি এবং তার স্ত্রীর দেশছাড়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

এছাড়া নাজিবের ফ্ল্যাট থেকে পুলিশ বিপুল পরিমাণে বিলাসবহুল দ্রব্য ও স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করেছে।

২০১৫ সালে তার বিরুদ্ধে প্রথম রাষ্ট্রীয় অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে। ওই সময় প্রধানমন্ত্রী থাকায় ওই অভিযোগকে ধামাচাপা দিতে সক্ষম হয়েছিলেন নাজিব। বৃহস্পতিবার নাজিব ছাড়াও সুইস নাগরিক জাভিয়ার জাস্টোকেও একই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।