কাহারোল (দিনাজপুর) থেকে সুকুমার রায়::

দিনাজপুরের কাহারোলে এবারে আলুর ফলন অধিক হয়েছে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ জুলফিকার আলী জানান, এবারে আমাদের আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২ হাজার ২০ হেক্টর। তিনি আরও জানান, হেক্টর প্রতি আলু উৎপাদন হয়েছে ৩০ হতে ৩৫ মেট্রিক টন।

আলুর ফলন অধিক হওয়ার কারণ জানতে চাইলে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা অরুন কুমার রায় জানান, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মীগণ সরাসরি ও মোবাইলের মাধ্যমে কৃষকদের পরামর্শ দেওয়ার কারণে আলুর ফলন বৃদ্ধি পেয়েছে।

তিনি আরও জানান, আগে যে সকল কৃষক আলু বিক্রি করেছে তারা ভালই লাভবান হয়েছে। কিন্তু এখন বাজারে আলুর দাম কম হওয়ায় কৃষকরা কিছুটা হলেও ক্ষতিগ্রস্থ। যদি আবার কৃষকগণ এখনকার আলু বীজ হিসাবে হিমাগারে রাখে তাহলে তারা অনেক লাভবান হবে। কৃষক অমৃত রায়ের সাথে কথা বললে সে জানায় যে, ব্র্যাক কোম্পানীতে আমরা ১০ টাকা কেজি হিসাবে এই বীজের আলু গুলি বিক্রি করছি। কারণ ব্র্যাক থেকে আমরা আলুর বীজ সংগ্রহ করে জমিতে আলু আবাদ করেছিলাম। তাই আমরা ব্র্যাককেই আলু দিতেছি। তাতে আমাদের লাভের চেয়ে ক্ষতির সম্ভাবনাই বেশি।

অপরদিকে ব্র্যাকের আলু ক্রয় ব্লক ইনচার্জ মোঃ সহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা আলু ক্রয় করাতে কৃষকগণ একরে ২০ হতে ২৫ হাজার টাকা লাভ পাচ্ছে।