স্পোর্টস ডেস্ক:: আসছে জানুয়ারিতে মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসর। ইতিমধ্যে নিজেদের আইকন নির্ধারণ করে ফেলেছে ছয় ফ্র্যাঞ্চাইজি। কোনো হেরফের না ঘটলে রংপুর রাইডার্সে মাশরাফি বিন মুর্তজা, ঢাকা ডায়নামাইটসে সাকিব আল হাসান, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসে তামিম ইকবাল, খুলনা টাইটানসেই থাকছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

নতুন ‘আইকন’ লিটন দাসকে ডেরায় ভিড়িয়েছে সিলেট সিক্সার্স। আর রাজশাহী কিংসের নতুন আইকন হচ্ছেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। ফলে গেল বিপিএলে আইকনের ভূমিকা পালন করা মুশফিকুর রহিমকে ছেড়ে দিয়েছে বরেন্দভূমির ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। বাংলাদেশ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান কোন দলে খেলবেন তা এখনও নির্ধারণ হয়নি।

বিপিএল টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানালেন, চিটাগং ভাইকিংসে খেলার সম্ভাবনা আছে মুশফিকের। নেপথ্যে তার যুক্তি- ছয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ছয় আইকন খেলোয়াড় নিয়ে নিয়েছে। বাকি আছে সপ্তম ফ্র্যাঞ্চাইজি চিটাগং ভাইকিংস। তারা এখনও কাউকে নেয়নি। ফলে সেটির হয়ে তার খেলার দারুণ সম্ভাবনা আছে। যতদূর জানি, মুশফিকের সঙ্গে যোগাযোগ করছে চিটাগং কর্তৃপক্ষ। তাকে পেতে আগ্রহী তারা।

এবারের বিপিএল মাঠে গড়ানোর আগেই নাটক শুরু হয়েছে। কদিন আগে বিপিএল থেকে নাম প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয় চিটাগং ভাইকিংস। পরে মত বদলায়। জালাল ইউনুস বলেন, সমস্যাটা সমাধান হয়ে গেছে। নাম প্রত্যাহারের চিঠি দিয়েছিল চিটাগং। পরে সিদ্ধান্ত পাল্টেছে। এ বছর তারা খেলবে। চার খেলোয়াড় ধরে রাখার কথাও জানিয়েছে।

বিসিবি মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যানের ভাষ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালের বিপিএলে থাকছে চট্টলার দলটি। তাতে যোগ দিচ্ছেন মুশফিক। বিপিএলে শীর্ষ রান সংগ্রাহক তিনজনের মধ্যে তিনি একজন। অর্থাৎ মিস্টার ডিপেন্ডেবল কোনো দলে যোগ দেয়া মানেই তাদের ভালো করার সম্ভাবনা বেড়ে যাওয়া। অধিকন্তু তার সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সও তাই বলে।