স্পোর্টস ডেস্ক::

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আবুধাবি টেস্টের পরই বড় ফরম্যাটের ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার সিদ্বান্ত নিয়েছেন পাকিস্তানের ডান-হাতি ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ হাফিজ। চলমান আবধাবি টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে মঙ্গলবার নিজের অবসরের ঘোষণা দেন তিনি। মাত্র দুই মাস আগেই তিনি দীর্ঘদিন পর ডাক পান জাতীয় দলে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুবাই টেস্টে সেঞ্চুরিও করেন তিনি। তাই হাফিজের অবসরের ঘোষণায় বেশ অবাক ক্রিকেটাঙ্গণ।

অবসর ঘোষণা দিয়ে হাফিজ বলেন, ‘টেস্ট ফরম্যাট থেকে অবসর নিয়ে এবার পাকিস্তানের হয়ে সাদা বলের ফরম্যাটে বেশি মনযোগ দিতে চাই। আগামী বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলা আমার স্বপ্ন। দেশের হয়ে আমি ৫৫টি টেস্ট খেলতে পেরেছি। এজন্য নিজেকে সম্মানিত বোধ করছি। পাশাপাশি দলের নেতৃত্বও দিয়েছি। আমি খুবই সন্তুষ্ট যে, দীর্ঘ ১৫ বছর নিজের সেরাটা দিয়ে দেশের জন্য খেলার চেষ্টা করেছি।’

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান এহসান মানি এক বিবৃতিতে বলেন, ‘টেস্ট ক্রিকেটে হাফিজের অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। টেস্ট ফরম্যাটে বেশ কিছু অসাধারণ এবং ম্যাচ জেতানো পারফরমেন্স উপহার দিয়েছে হাফিজ।’

২০০৩ সালের আগস্টে করাচিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় হাফিজের। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি টেস্টসহ ৫৫ টেস্টের ১০৪ ইনিংসে ৩৬৪৪ রান করেছেন হাফিজ। ১০টি সেঞ্চুরির সাথে ১২টি হাফ-সেঞ্চুরিও করেছেন তিনি। ২০১৫ সালে খুলনায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ক্যারিয়ার সেরা ২২৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। বল হাতেও ব্রেক-থ্রু এনে দিতে বেশ পারদর্শী তিনি। উইকেট নিয়েছেন ৫৩টি।