স্পোর্টস ডেস্ক:: হালে ক্রিকেটে প্রকট আকার ধারণ করেছে স্পট ফিক্সিং। একের পর এক কঠোর শাস্তি দিয়েও বন্ধ হচ্ছে না ম্যাচ গড়াপেটা। ফিক্সিংয়ের আঁতুড়ঘর হিসেবে পাকিস্তানের খ্যাতি থাকলেও নানা দেশেই এখন তা গ্রাস করেছে।

তবে বসে নেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। ম্যাচ পাতানো রোধে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা। সবশেষ শ্রীলংকা-ইংল্যান্ড সিরিজে কড়া নজরদারি রেখেছে আইসিসির অ্যান্টি করাপশন ইউনিট (এসিইউ)।

সম্প্রতি ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে লংকান কিংবদন্তি সনাৎ জয়সুরিয়ার বিরুদ্ধে। বর্তমানে শ্রীলংকায় ম্যাচ পাতানোর ঘটনা অহরহ ঘটছে। দেশটিতে সন্দেহভাজন জুয়াড়ির তালিকায় থাকা সবাই স্থানীয় কিনা জানতে চাওয়া হলে এসিইউর মহাব্যবস্থাপক অ্যালেক্স মার্শাল জানান, শ্রীলংকায় জুয়াড়িরা স্থানীয় এবং ভারতীয়ই হয় বেশি। সর্বোপরি গোটা বিশ্ব চষে বেড়ানো বেশিরভাগ দুর্নীতিবাজ জুয়াড়িই ভারতীয়।

ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ক্রিকেট বিশ্বের প্রতিটি দেশেই কমবেশি ফিক্সিং হয়। সেগুলোর বেশিরভাগই করে থাকেন ভারতীয় জুয়াড়িরা। ভারতে এর হারও বেশি।