স্পোর্টস রিপোর্টার:: শুরুটা হয়েছিল মোহাম্মদ রফিকে দিয়ে। বাংলাদেশের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে নিয়েছিলেন পঞ্চাশ উইকেট। সেটাও মাত্র ১৩ ম্যাচে।

বৃহস্পতিবার সেই রেকর্ডে ভাগ বসালেন মেহেদী হাসান মিরাজ। দ্রুততম পঞ্চাশ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়লেন ডানহাতি এ স্পিনার।

নিজের ১৩তম ম্যাচে মেহেদী হাসান মিরাজ পঞ্চাশ উইকেটের মাইলফলক ছুঁলেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দারুণভাবে শুরু করেছিলেন মিরাজ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ৭ এবং পরের ম্যাচে ১২ উইকেট নিয়ে সিরিজ সেরার পুরস্কার পান মিরাজ। অভিষেকেই গড়েছিলেন বিশাল এক কীর্তি। ১৮৮৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার বাঁহাতি পেসার জন জেমস ফেরিস অভিষেকে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে সর্বোচ্চ ১৮ উইকেট নিয়েছিলেন। ১২৯ বছর পর ১৯ উইকেট নিয়ে মিরাজ ভাঙেন সেই রেকর্ড।

বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট দলে মেহেদী হাসানকে নতুন তারকা হিসেবে বর্ণনা হলেও ক্রিকেটে তাঁর অলরাউন্ডার কীর্তি আগেই দেখেছে বিশ্ব। যুব বিশ্বকাপে মিরাজ হয়েছিলেন টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়।

সেই আত্মবিশ্বাস কাজে লাগিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শুরুতেই মিরাজ পান সাফল্য। এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। তার মায়াবী ঘূর্ণিতে পরাস্ত হচ্ছে বিশ্বের নামী-দামী ক্রিকেটাররা। এ তালিকায় আছেন জো রুট, অ্যালিস্টার কুক, চতেশ্বর ‍পূজারা, স্টিভেন স্মিথ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের মতো তারকা ক্রিকেটাররা। তার প্রথম উইকেট ছিল বেন ডাকেট। পঞ্চাশতম উইকেট জেসন হোল্ডার।

সাকিব আল হাসানের অভিষেক ভারতের বিপক্ষে। ২০১০ সালে ভারতের বিপক্ষে পঞ্চাশ উইকেট নেন চট্টগ্রামে। ২২ ইনিংসে পঞ্চাশ উইকেট পেয়েছেন বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকার করা সাকিব।

মোহাম্মদ রফিক ১৩ ম্যাচে ২১ ইনিংসে পঞ্চাশ উইকেটের স্বাদ পান। নিজজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ৬ উইকেট নেওয়ার পথে এ কীর্তি গড়েছিলেন সর্বপ্রথম। মিরাজের আগে পঞ্চাশ উইকেট নেন তাইজুল ইসলঅম। ১৪ম ম্যাচে ২৬ ইনিংসে এ কীর্তি গড়েন তাইজুল। বাঁহাতি স্পিনার গত বছর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩ উইকেট নেওয়ার পথে পঞ্চাশ উইকেটের স্বাদ পান।

পেসারদের মধ্যে সবার আগে এ কীর্তি গড়েন মাশরাফি বিন মুর্তজা। ১৯ ম্যাচে ২৭ ইনিংসে উইকেটের হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মাশরাফি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ফতুল্লায় প্রায় জিতে যাওয়া ম্যাচে এ মাইলফলক স্পর্শ করেন নড়াইল এক্সপ্রেস। শাহাদাত হোসেন ২১ ম্যাচে ৩১ ইনিংসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২ উইকেট নিয়ে পূর্ণ করেন পঞ্চাশ উইকেট।

ছোট্ট ক্যারিয়ারে মিরাজ পাঁচ বা তার বেশি উইকেট পেয়েছেন তিনবার। প্রথম চার ইনিংসেই পেয়েছিলেন এ স্বাদ। এরপর ৪ উইকেট পেয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গলে। পাঁচ ইনিংসে পেয়েছেন ৩টি করে উইকেট। ছয় ইনিংসে পেয়েছেন ২টি করে উইকেট। দুই ইনিংসে পেয়েছেন ১টি করে উইকেট। উইকেট পাননি ছয় ইনিংসে।