ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: ২০১৩ সালের পর যারা ভোটার হয়েছেন তাদের আগামী মার্চ মাস থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া হবে। তবে স্মার্ট কার্ডের পরিবর্তে লেমিনেটেড কার্ড দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। পরে পর্যায়ক্রমে স্মার্ট কার্ড দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী (অব.) বলেন, ২০১৩ সালে বা তার পরে যারা ভোটার হয়েছেন তাদের পরিচয়পত্র মার্চ অথবা এপ্রিলের মধ্যে নিজ নিজ উপজেলা বা থানায় পাঠানো হবে। তার সাথে যারা নতুন ভোটার ১৮ বছর পূর্ণ হয়েছে তাদেরকেও পরিচয়পত্র পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, প্রতিদিনের প্রোডাকশন প্রায় ১ লাখ ৪০ থেকে ৫০ হাজারের মধ্যে পৌঁছে গেছে।

স্মার্ট কার্ড প্রকল্পের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেন, ভোটাররা পেপার লিমিটেড কার্ড পাচ্ছে। পেপার লিমিটেড কার্ডে দুই বছর মেয়াদ দেওয়া থাকবে। মেয়াদ শেষে তা আর ব্যবহার করা যাবে না।

২০১৯ সালের জুনের মধ্যে সব ভোটারকে স্মার্ট কার্ড দেয়া সম্ভব হবে বলে আশা করা হচ্ছে। জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে সাধারণ ডায়েরি করার বাধ্যবাধকতা তুলে দেয়ার চিন্তাভাবনাও চলছে। নাগরিকদের হাতে কার্ড তুলে দিতে একটি কার্ড ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যারের কথাও ভাবা হচ্ছে। তাহলে ঘরে বসেই অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্রের কাজের অগ্রগতি দেখা যাবে। সূত্র: ডিবিসি নিউজ