স্পোর্টস ডেস্ক::

ছয় পরিবর্তন নিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। যেখানে নেই সবশেষ পাকিস্তান সফরের দল থেকে বাদ দেয়া চার ক্রিকেটার। প্রথমবারের মতো স্কোয়াডে নেয়া হয়েছে দুই অনভিষিক্ত ক্রিকেটারকে।

এমন দল ঘোষণায় বাংলাদেশি ক্রিকেট সমর্থকরা অবাক হতেই পারেন। দলের নিয়মিত ক্রিকেটার পঞ্চপাণ্ডবের অন্যতম মাহমুদউল্লাহর বাদ পড়াতে বিস্মিত হয়েছেন কেউ কেউ। তার ওপর নতুন দুই ক্রিকেটারের বিষয়েও প্রশ্ন উঠতে পারে।

নতুন মুখ ইয়াসির আলী চৌধুরী ও পেসার হাসান মাহমুদকে দলভুক্তির কারণ ব্যাখ্যা দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

তিনি বলেন-‘এই দুজনেই বেশ সম্ভাবনাময়। তারা আমাদের ভবিষ্যতের পরিকল্পনায় আছে।’

জানা গেছে, পাক টেস্টে ফর্মহীনতার কারণেই বাদ পড়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৪৮ বলে ২৫ রান করতে পারলেও দ্বিতীয় ইনিংসে মাঠে নেমেই নাসিম শাহের বলে ক্যাচ তুলে দেন মাহমুদউল্লাহ। ১ বলে শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। মূলত টেস্টে মাহমুদউল্লাহর ফর্ম ধারাবাহিকভাবেই খারাপ যাচ্ছে। যে কারণে জিম্বাবুয়ে টেস্টে তিনি বাদ পড়তে পারেন বলে খবর চাউর হয়। আজ সে খবরই সত্যতে পরিণত হলো।

পাক সফরে থাকা দল থেকে বাদ পড়েছেন সৌম্য সরকার। তবে তার কারণ ভিন্ন। দেশে ফিরেই বিয়ের জন্য ছুটি নেন বাঁহাতি ড্যাশিং অলরাউন্ডার সৌম্য সরকার। তাই ব্যাটিং শক্তি পূরণে দলে সুযোগ পেয়েছেন মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলি রাব্বি। আর ব্যাটিং শক্তিকে আরও বাড়াতে অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজকে নেয়া হয়েছে।

এদিকে পিঠের ব্যথার কারণে ফিটনেসহীনতায় ভুগছেন পেসার আল আমিন হোসেন। যে কারণে জিম্বাবুয়ের টেস্টে তিনিও বাদ পড়েছেন। তার জায়গায় প্রথমবারের মতো টেস্ট দলে ডাক পেয়েছেন ডানহাতি পেসার হাসান মাহমুদ।

এদিকে ফর্মহীনতার জন্য বাদ পড়েছেন শফিউল ইসলাম। সেখানে দলে ফের জায়গা পেয়েছেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ।

মাহমুউদল্লাহর মতোই ফর্মহীনতার কারণে বাদ পড়েছেন ডানহাতি পেসার রুবেল হোসেন। বাবর আজমদের বিপক্ষে তার ক্ষুরধার বোলিং সেভাবে কাজ করেনি।

প্রথম টেস্টে ২৫.৫ ওভার বল করে ১১৩ রান দিয়েছেন। বিনিময়ে ৩ উইকেট পেলেও সফরে সবচেয়ে খরচে বোলার ছিলেন তিনি। তা ছাড়া ব্যাট হাতে দুই ইনিংসে তিনি মাত্র ৬ রান করেছেন। তার জায়গায় দলে নেয়া হয়েছে জাতীয় দল থেকে অনেক দিন দূরে থাকা পেসার তাসকিনকে।

সর্বোপরি দুই পেসার ও দুই ব্যাটসম্যানকে বাদ দিয়ে দলে নেয়া হয়েছে দুই পেসার, এক ব্যাটসম্যান ও এক স্পিনিং অলরাউন্ডার।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে বাংলাদেশ স্কোয়াড:

মুমিনুল হক (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহীম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস, তাইজুল ইসলাম, নাইম হাসান, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহি, এবাদত হোসেন, তাসকিন আহমেদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোস্তাফিজুর রহমান, হাসান মাহমুদ ও ইয়াসির আলি রাব্বি।