ঠাকুরগাঁও থেকে::

সারাদেশের মতো ঠাকুরগাঁওয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব বিদ্যার দেবী শ্রী-শ্রী সরস্বতী পূজা।

এই উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে জেলার কেন্দ্রীয় গোবিন্দজিউ মন্দির,শান্তিনগর মন্দির, ঠাকুরগাঁও সরকারি মহিলা কলেজ, ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজ ও ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের সিভিল সার্জন কার্যালয় সহ বিভিন্ন মন্দির, স্কুল-কলেজ, ক্লাব গুলোতে এই পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
দেবীর এই পূজাকে কেন্দ্র করে ভক্তদের ঢল নামে প্রতিটি পুজামন্ডপসহ শহরের বিভিন্ন এলাকায়। পুজাকে কেন্দ্র করে আনন্দে মেতে উঠে সনাতন ধর্মালম্বীরা। পূজা চলাকালীন সময়ে ঢাকের শব্দ ও উলু ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠে প্রতিটি পূজা-মন্ডপ।

সকালে পুরোহিতের মন্ত্র পাঠের মধ্যদিয়ে শুরু হয় এই আনুষ্ঠিকতা পরে ভক্তরা বিদ্যা এবং জ্ঞান লাভের আশায় সরস্বতী মায়ের চরণে পুষ্পাঞ্জলি প্রদান করেন। শেষে ভক্তদের মধ্য প্রসাদ বিতরণ করা হয়। এবারে ঠাকুরগাঁও জেলায় প্রায় ১২শ এর অধিক মন্ডপে একযোগে এই সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পূজায় অজ্ঞতার অন্ধকার দূর করে জ্ঞানের আলোয় আলোকিত হতে কল্যাণময়ী দেবীর চরণে ‘সরস্বতী মহাভাগে বিদ্যে কমললোচনে বিশ্বরূপে বিশালক্ষী বিদ্যংদেহী নমোহস্তুতে’ এই মন্ত্র উচ্চারণ করে বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনের জন্য প্রণতি জানান ভক্তরা। পূজাকে কেন্দ্র করে হিন্দু সম্প্রদায় বাড়ীতে বাড়ীতে পূজা অর্চনা সহ মন্ডপ গুলোতে সন্ধ্যায় রয়েছে আলোকসজ্জা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আগামীকাল ৩১ জানুয়ারি বিকেলে ঠাকুরগাঁও রিভারভিউ স্কুলের পাশে টাঙ্গন নদীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে পুজার সমাপ্তি ঘটবে।

স্বরসতী পূজা উপলক্ষে সদর থানার ওসি তানভীর ইসলাম জানান, কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না হয় এজন্য প্রতিটি মন্ডপেই পুলিশের নজরদারী রাখা হয়েছে।