নাটোর প্রতিনিধি::

নাটোরে এক সপ্তাহের ব্যবধানে ২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। এর আগে যা ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজিতে এই পাইকারী করে বাজারে বিক্রি হয়। হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম কমায় সাধারণ মানুষ স্বস্তি পেলেও কৃষকদের মাথায় হাত।

শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) নলডাঙ্গা হাটে এমন চিত্র ধরা পড়েছে।

এ বিষয়ে কৃষকরা জানান, ভারত থেকে পেঁয়াজ আসার খবরে হাটে কেজি প্রতি পেঁয়াজের পাইকারী দাম ৩০-৩৫ টাকা কমে গেছে। এখন পাইকারীতে প্রতিকেজি পেঁয়াজ ২০-২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত মঙ্গলবার এই হাটে প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয় ৭০-৮০ টাকায়।

হাটের বিক্রেতা আক্কাস আলী বলেন, ‘আজকে এতো দাম কমে যাবে জানলে পেঁয়াজ উঠাতাম না। আমাদের ধারণা ছিলো পেঁয়াজের দাম সর্বোচ্চ ১৫ থেকে ২০ টাকা কমতে পারে। কিন্তু আজকের এতো দাম কমবে আমরা কল্পনাও করতে পারিনি। গতবছর ভরা মৌসুমে ৫ টাকা কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করতে বাধ্য হয়েছিলাম। এবার ভেবেছিলাম সেই ক্ষতিটা পুষিয়ে নেয়া যাবে।’

স্থানীয় কৃষক জামাল জানান, সরকার এই মুহূর্তে বাজার নিয়ন্ত্রণ না করলে সাধারণ চাষীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এখনই সিদ্ধান্ত না নিলে বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে যাবে।

অন্য কৃষক বশির উদ্দিন জানান, এবার কন্দ পেঁয়াজ উৎপাদন করতে অনেক খরচ হয়েছে। পেঁয়াজের বীজ কিনতেই খরচ হয়েছে ৭ থেকে ১০ হাজার টাকা। সেই তুলনায় দাম কেজিতে ৪০ থেকে ৫০ টাকার মধ্যে থাকলে কৃষক কিছুটা লাভ করতে পারতো।