অনলাইন ডেস্ক::

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে আগুনে দগ্ধ একই পরিবারের আটজনের মধ্যে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তার নাম নূরজাহান বেগম (৬০)।

সোমবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়।

নিহত নূরজাহান বেগমের শরীরের প্রায় শতভাগ দগ্ধ হয়েছিল। এ ছাড়া এ ঘটনায় আরও দুজনকে আইসিইউ বা ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র) রাখা হয়েছে।

অন্য সাতজন ঢামেকে চিকিৎসাধীন। তারা হলেন- মো. কিরণ মিয়া (৪৫), মো. আবুল হোসেন (২৫) হিরণ মিয়া (২৫), মো. কাওসার (১৬), মুক্তা (২০), লিমা (৩) ও আপন (১০)।

এর আগে ভোর ৫টার দিকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ উপজেলায় সাইনবোর্ড এলাকায় সাহেবপাড়া ফারুকের বাড়ির চারতলা ভবনের নিচতলায় গ্যাসলাইন বিস্ফোরণে একই পরিবারের আটজন দগ্ধ হন।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, ভোরে দগ্ধ আটজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের মধ্যে বেলা সোয়া ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন থেকে একজনের মৃত্যু হয়।

জানা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় সাহেবপাড়া ফারুকের বাড়ির চারতলা ভবনের নিচতলায় হঠাৎ গ্যাসলাইনের লিকেজ থেকে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ সময় আগুনে একই পরিবারের শিশুসহ আটজন দগ্ধ হন।

তাৎক্ষণিকভাবে দগ্ধদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) পাঠানো হয়।

তবে ধারণা করা হচ্ছে, গ্যাসলাইনের লিকেজ ছিল। এতে কেউ সিগারেট ধরালে তা বিস্ফোরণ ঘটে এ ঘটনা ঘটে।