নিজস্ব প্রতিবেদক::

প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান ও ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহ্ফুজ আনাম এবারও সেরা করদাতা হয়েছেন। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) প্রতিবছর বিভিন্ন শ্রেণিতে সেরা করদাতাদের সম্মাননা হিসেবে কর কার্ড দেয়।

গতকাল বুধবার এনবিআর প্রকাশিত সেরা করদাতার তালিকায় সাংবাদিক শ্রেণিতে মতিউর রহমান ও মাহ্ফুজ আনাম আছেন। এবার নিয়ে চতুর্থবারের মতো তাঁরা এ সম্মাননা পেতে যাচ্ছেন।

এ বছর সম্মাননা পাওয়া সাংবাদিক শ্রেণির তালিকায় পাঁচজন বিশিষ্ট সাংবাদিক আছেন। তাঁদের মধ্যে শীর্ষ করদাতা মাহ্ফুজ আনাম। দ্বিতীয় স্থানে আছেন চট্টগ্রাম থেকে প্রকাশিত দৈনিক আজাদী সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুল মালেক। তৃতীয় সর্বোচ্চ করদাতা প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান। চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে আছেন যথাক্রমে বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল আইয়ের পরিচালক (বার্তা) শাইখ সিরাজ ও একুশে টেলিভিশনের প্রধান সম্পাদক মনজুরুল আহসান বুলবুল।

১৪ নভেম্বর রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাঁদের হাতে কর কার্ড তুলে দেওয়া হবে। সাংবাদিক শ্রেণিতে সম্মাননা দেওয়া শুরুর পর থেকে প্রতিবারই প্রথম আলো ও দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক তা পেয়েছেন। তাঁরা দুজনেই নিজ নিজ পত্রিকার প্রকাশকও।

ব্যক্তি করদাতাদের পাশাপাশি প্রতিবছর সেরা করদাতা প্রতিষ্ঠানকেও কর কার্ড দেওয়া হয়। এবার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া শ্রেণিতে চারটি প্রতিষ্ঠানকে কর কার্ড দেওয়া হচ্ছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে তিনটিই ট্রান্সকম গ্রুপের সঙ্গে সম্পৃক্ত। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো মিডিয়াস্টার লিমিটেড, ট্রান্সক্রাফট লিমিটেড ও মিডিয়াওয়ার্ল্ড লিমিটেড। এই শ্রেণিতে সর্বোচ্চ করদাতা প্রতিষ্ঠান মিডিয়াস্টার লিমিটেড। গতবারও এ তিন প্রতিষ্ঠান এ সম্মাননা পেয়েছে।

মিডিয়াস্টার লিমিটেড থেকে প্রথম আলো এবং মিডিয়াওয়ার্ল্ড থেকে দ্য ডেইলি স্টার প্রকাশিত হয়। এই দুটি দৈনিক ছাপা হয় ট্রান্সক্রাফট লিমিটেড থেকে। প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া শ্রেণিতে সম্মাননা পাওয়া চারটি প্রতিষ্ঠানের আরেকটি হলো ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড। এ প্রতিষ্ঠান থেকে তিনটি দৈনিক পত্রিকা বাংলাদেশ প্রতিদিন, কালের কণ্ঠ ও দ্য ডেইলি সান প্রকাশিত হয়। এ ছাড়া এ প্রতিষ্ঠানের অধীনে একটি বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন, রেডিও ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল আছে।

এবার সব মিলিয়ে বিভিন্ন পেশাজীবী শ্রেণিতে ৭৬ জন করদাতাকে কর কার্ড দিচ্ছে এনবিআর। এর পাশাপাশি ৬৭টি প্রতিষ্ঠানও এ সম্মাননা পাচ্ছে। গত অর্থবছরে আয়কর বিবরণী জমার ওপর ভিত্তি করে মূল্যায়ন করেছে এনবিআর।