বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি::

রাজশাহীর বাঘায় জামায়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে পুলিশের দায়েরকৃত মামলায় বিপ্লব হোসেন নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে উপজেলার আমোদপুর গ্রামের মোজাহার হোসেনের ছেলে।

শনিবার (৯ নভেম্বর) আমোদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার আমোদপুর গ্রামের বাসিন্দা, উপজেলা ছাত্র শিবিরের সাবেক সভাপতি ও রাজশাহী জেলার নেতা আইয়ুব আলীর বাড়ীতে সরকার বিরোধী আন্দোলনের বৈঠক করছিল। গোপন সংবাদ সুত্রে তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ঘর তল্লাশি করে ইসলামী ছাত্র শিবিরের কর্মপরিকল্পনা লিফলেট, চাঁদা আদায় রশিদ বই, ছাত্র শিবিরের প্রকাশন বিভাগ অনুকুলের ক্যাশ খরচ ভাউচার,মাসিক পরিকল্পনা ডায়রি ও জামায়াত শিবিরে যোগাযোগে ব্যবহৃত এন্ড্রেয়েড মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন প্রকার শতাধিক বই জব্দ করা হয়। পুলিশের দাবি তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে তাৎক্ষণিক সটকে পড়ে জামায়াত শিবির নেতা-কর্মীরা। পরে এ ঘটনায় এস আই সইবুর রহমান বাদি হয়ে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে এগারোজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

শিবির নেতা আইয়ুব আলী জানান, তার বাড়িতে দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে কোন বৈঠক করা হয়নি। তবে পুলিশ অভিযানের আগে তার বাড়িতে বইগুলো রাখা ছিল। গ্রেফতার হওয়া বিপ্লব এর চাচাতো ভাই আতাহার আলী জানান, সে জামায়াত শিবিরের রাজনীতির সাথে জড়িত নয়। তবে এক সময় জাতীয় পার্টির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিল বলে দাবি তার।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আতিকুর রেজা জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালানো হয়। পরে জড়িতদের নাম ঠিকানা সংগ্রহ করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।