বশির আহমেদ, বান্দরবান প্রতিনিধি::

বান্দরবানে আওয়ামীলীগ নেতা হত্যা’সহ তিনটি মামলায় জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ১১ জন নেতাকর্মীকে রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দিয়েছে আদালত।

আজ বুধবার দুপুরে বান্দরবান চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট (আমলী) কামরুন নাহারের আদালতে কারাগার থেকে আসামীদের হাজির করে পুলিশ রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত এ আদেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, গতমাসের ২২মে বান্দরবানের উজীপাড়া খামার বাড়ি থেকে পৌর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি চথোয়াই মারমা’কে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে হত্যার ঘটনায় স্ত্রী মেসাচিং মারমার দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠিনক সম্পাদক কেএসমং মারমা, জেলা সাধারণ সম্পাদক ক্যবামং মারমা, জনংহতি সমিতির নেতা বাসিং মং মারমা, মেরুং মারমা, চাইহ্লা মারমা উভয়কে ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

অপরদিকে, গতমাসের ১৮মে রাজবিলা ইউনিয়নের ক্যচিং থোয়াই মারমা হত্যা মামলায় গ্রেফতার জনসংহতি সমিতির নেতাকর্মী জয় তংচঙ্গ্যা, দিপন তংচঙ্গ্যা, মিন থোয়াই অং মারমা উভয়’কে ৫ দিন করে এবং গতমাসের ৯ মে জয়মনি তঞ্চঙ্গ্যা হত্যা মামলায় দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার হওয়া জনসংহতি সমিতির নেতাকর্মী উচিং মং মারমা, মংতু মারমা, উসাইনু মারমা উভয়’কে ৪ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। রিমান্ড মঞ্জুরের পর আসামীদের আদালত থেকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, আওয়ামীলীগ নেতা হত্যা মামলা’সহ তিনটি মামলায় পৃথকভাবে ১১ জন আসামীর রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। সুবিধাজনক সময়ে আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক আসামীদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।