তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক:: বৈশ্বিক ই-কমার্স খাতে একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করেছে অ্যামাজন। ব্যবসা সম্প্রসারণে বহুমুখী পদক্ষেপ নিয়ে এগোচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। সম্প্রতি বাজারমূল্যের দিক থেকে প্রযুক্তি কোম্পানি অ্যাপল ও গুগলের প্যারেন্ট কোম্পানি অ্যালফাবেটের পরের অবস্থানে রয়েছে অ্যামাজন। বাজারমূল্যের দিক থেকে মাইক্রোসফটকে প্রথমবারের মতো পেছনে ফেলেছে অ্যামাজন। চতুর্থ অবস্থানে থাকা মাইক্রোসফটের পরে রয়েছে চীনভিত্তিক ইন্টারনেট কোম্পানি টেনসেন্ট। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক রয়েছে ষষ্ঠ অবস্থানে। বাজারমূল্যে শীর্ষ ছয় প্রতিষ্ঠানের সবগুলোই প্রযুক্তি খাত সংশ্লিষ্ট।

গত বছরজুড়ে অ্যামাজনের শেয়ারদর বেড়েছে ৭৩ শতাংশ। এর ফলে বিল গেটসকে পেছনে ফেলে বিশ্বের শীর্ষ ধনী ব্যক্তির তকমাটি দখলে নিতে সমর্থ হন অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেফ বেজোস।

মাইক্রোসফট ও অ্যামাজন দু’টি দুই খাতের প্রতিষ্ঠান। বৈশ্বিক ই-কমার্স খাতে আধিপত্য বিস্তার করে চলেছে অ্যামাজন। অন্য দিকে মাইক্রোসফট ডেস্কটপ পিসি সফটওয়্যার খাতে একক আধিপত্য ধরে রেখেছে। কিন্তু উভয় প্রতিষ্ঠান এখন ক্রমবর্ধমান ক্লাউড কম্পিউটিং সেবা খাতে ব্যবসা সম্প্রসারণে জোর দিচ্ছে। ক্লাউড কম্পিউটিং সেবা খাতে এরই মধ্যে আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করতে সমর্থ হয়েছে অ্যামাজন। বাজারমূল্যের দিক থেকে অ্যামাজন শুধু বিশ্বের তৃতীয় শীর্ষ কোম্পানিই নয়; ট্রিলিয়ন ডলার বাজারমূল্যের কোম্পানি হওয়ার দৌড়েও এগিয়ে রয়েছে। এক ট্রিলিয়ন ডলার বাজারমূল্য খুব একটা সহজ কথা নয়। একটি প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এ মাইলফলক অর্জন করাও সহজ কথা নয়। বহুজাতিক প্রযুক্তি জায়ান্টদের মধ্যে এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিষ্ঠানই এ লক্ষ্যে পৌঁছতে পারেনি। বিশ্লেষকদের তথ্য মতে, বর্তমানে বাজারমূল্যে শীর্ষে থাকা অ্যাপলের আগেই ট্রিলিয়ন ডলারের কোম্পানি হতে পারে অ্যামাজন। ট্রিলিয়ন ডলার বাজারমূল্যের কোম্পানি হওয়ার দৌড়ে অ্যাপল ও অ্যালফাবেটের তুলনায় এগিয়ে আছে অ্যামাজন। প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কেবল অ্যামাজনের দীর্ঘমেয়াদি ব্যবসা পরিকল্পনার কারণেই এক ট্রিলিয়ন ডলারের প্রতিষ্ঠান হওয়াটা বেশ সহজ হয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ডাটা করপোরেশনের (আইডিসি) হিসাবমতে, ইনফ্রাসট্রাকচার অ্যাজ আ সার্ভিস (আইএএএস) বাজারে বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের খরচ বেড়ে চলেছে। এখানে অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস ১০ বিলিয়ন ডলারের ব্যবসা করছে প্রতি বছর। তাই এ দুই সম্ভাবনাময় বাজারকে একসাথে টার্গেট করে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে অ্যামাজন।