বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক রিপোর্ট:: বিশ্ব আগামী জুলাই মাসেই বিরল মহাজাগতিক দৃশ্যের সাক্ষী হতে চলেছে। এই শতাব্দীর দীর্ঘতম পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ হবে ২৭ ও ২৮ জুলাই। ওই দুই দিন দেখা যাবে ‘ব্লাড মুন’ বা রক্তাভ চাঁদও।

গোটা চন্দ্রগ্রহণ প্রক্রিয়াটি হবে টানা ৪ ঘণ্টা ধরে। তার মধ্যে ১ ঘণ্টা ৪৩ মিনিট ধরে চলবে পূর্ণগ্রাস। এ বছর শেষ বার রক্তাভ চাঁদ বা ব্লাড মুন দেখা গিয়েছিল জানুয়ারি মাসে ৪৫ মিনিট ধরে।

জানা গিয়েছে আন্তর্জাতিক সময় অনুযায়ী, গ্রহণ হবে রাত ৮টা ২২ মিনিটে। চাঁদ একেবারে অদৃশ্য হবে না। রক্তাভ চাঁদ দেখবে বিশ্ব। ঠিক সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের সময় যেমন লাল দেখায় সূর্যকে। ঠিক সেরকম। হলুদ ও লালের সংমিশ্রণ।

পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ কী?

সূর্য, চাঁদ ও পৃথিবী একই পথে চলে এলে গ্রহণ হয়। পৃথিবীর ছায়ায় চাঁদ পুরোপুরি ঢেকে গেলে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ হয়। পুরো গ্রহণ হওয়া চাঁদকে ব্লাড মুন বলা হয়।

ব্লাড মুন কী?

বাতাসে কত ধুলো রয়েছে তার ভিত্তিতে চাঁদের রঙ জায়গা বিশেষে পাল্টে যায়। কোথাও বেশি লাল হয় তো কোথাও ধূসর। পৃথিবীকে আমরা কতটা দূষিত করেছি তার প্রমাণ এতে পাওয়া যায়। যে অঞ্চল যতটা দূষিত সেখানে চাঁদের রঙ বায়ুমন্ডল ভেদ করে দেখতে গেলে ততটা লালচে দেখায়।