বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক:: ‘ফোল্ডেবল স্মার্টফোন’ নিয়ে আলোচনা চলছে বহুদিন থেকেই। বিশেষ করে কোরিয়ান টেক জায়ান্ট স্যামসাং এর এলজি এ প্রযুক্তিতে অনেক দূর এগিয়েছে। তারা যেকোনো সময় ভাঁজ করতে সক্ষম মোবাইল এনে ফেলবে বাজারে। এর সঙ্গে যদি অ্যাপল যোগ হয় তাহলে বিষয়টা কোথায় দাঁড়াবে? বলা হচ্ছে, ২০২০ সালে এমন আইফোন বাজারে আসবে যা ভাঁজ করা যাবে।

বলা হচ্ছে, কুপার্তিনোর এই কম্পানি নতুন ডিজাইন নিয়ে কাজ করছে। তাদের ভাঁজ করতে সক্ষম আইফোনটি নিঃসন্দেহে অনন্য হবে। ভাঁজ খুললেই হবে ট্যাবলেট। আর ভাঁজ করলেই আইফোন।

সিএনবিসি এক প্রতিবেদনে ব্যাংক অব আমেরিকার মেরিল লিনচ এর বরাত দিয়ে জানায়, ২০২০ সালে ফোল্ডেবল আইফোন চলে আসবে বাজারে। এ কাজে অ্যাপল তার এক এশিয়ার পার্টনারের সঙ্গে কাজ করছে। বিশ্লেষক ওয়ামজি মোহান জানিয়েছেন, নয়া আইফোনের ভাঁজ খুললেই তা ট্যাবে রূপান্তরিত হবে।

তবে ফোল্ডেবল আইফোন নিয়ে এই প্রথমবারের মতো অ্যাপল খবরের শিরোনাম হয়নি। এর আগে ২০১৭ সালে অ্যাপল জানিয়েছিল যে তারা ভাঁজ করা যায় এমন স্ক্রিন নিয়ে এলজি’র সঙ্গে কাজ করছে। তখনই খবর ছড়ায় যে, ২০২০ সালে ফোল্ডেবল আইফোনের ওলেড ডিসপ্লে প্যানেল নিয়ে কাজ চলছে। তবে এলজি বা স্যামসাংও কিন্তু থেমে নেই। কাজেই ভবিষ্যতে এই ফোল্ডেবল মোবাইল বাজার মাত করবে বলেই মনে হচ্ছে।

সেই সঙ্গে অ্যাপলকে আইফোন এক্স এর ডিজাইনকেও এগিয়ে নিতে হবে। নতুনভাবে আরো তিনটি আইফোনের ডিজাইন নিয়ে কাজ করছে তারা। দুটো হবে ওলেড ডিসপ্লে। অন্যটি এলসিডি প্যানেল নিয়েই আসবে। তবে নতুন তিনটি মডেলই টাচ আইডি বর্জন করবে এবং ‘ট্রুডেপথ’ ক্যামেরা সিস্টেমের মাধ্যমে ফেসিয়াল রিকগনাইজিং প্রযুক্তির ব্যবহারে ‘ফেস আইডি’ ফিচার ব্যবহার করবে। আগামী সেপ্টেম্বরে হয়তো নতুন তিনটি আইফোন বাজারে আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সূত্র : গেজেটস