বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক: বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ৩৫ হাজারের বেশি দেশি-বিদেশি জাহাজকে উপগ্রহ সেবা দেবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। যেখান থেকে বছরে বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেডের আয় হবে ৪২ কোটি টাকা।

এ বিষয়ক রোববার স্যাটেলাইট কোম্পানি এবং নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষর হবে। এটি স্যাটেলাইট কোম্পানির প্রথম আনুষ্ঠানিক কোনো চুক্তি।

এখনও বাণিজ্যিক সেবা শুরু না হলেও আগে থেকেই আয়ের রাস্তা খুলে গেল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের।

চুক্তির ফলে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সাগর ও স্থানীয় নৌ-চ্যানেলগুলোয় থাকা জাহাজগুলো বিভিন্ন সেবা পাওয়ার পাশাপাশি নিরাপদ ও সুরক্ষিত থাকবে। পুরনো ওয়্যারলেস সেবার পরিবর্তে জাহাজগুলো পাবে দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা। স্থলভাগের সঙ্গে থাকবে ২৪ ঘণ্টা যোগাযোগ। সাগরে থেকেও জাহাজের নাবিক এবং যাত্রীরা স্থলভাগের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাবেন। এমনকি লাইভ টেলিভিশনও দেখতে পারবেন।

এর আগে গত মাসে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে এক বৈঠকে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিসিএসসিএল বিষয়টি চূড়ান্ত করে।

রোববারের চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে দুই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও সচিবসহ সিনিয়র কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, এ চুক্তির ফলে বঙ্গবন্ধু-১ যখন পুরোপুরি সেবার মধ্যে আসবে তখন মহাসাগরে থাকা জাহাজগুলোর দ্রুত খবরাখবর নেয়া যাবে।

তারা বলছেন, প্রতিদিন ৩৫ হাজারের বেশি অভ্যন্তরীণ এবং ১১০টির বেশি গভীর সমুদ্রের বিদেশি জাহাজ বাংলাদেশের জলসীমায় ঘুরে বেড়ায়। এসব জাহাজই এখন এ সেবার আওতায় আসবে।

বিসিএসসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইফুল ইসলাম বলেন, বিসিএসসিএল স্থানীয় এবং বিদেশি জাহাজে কম খরচে উপগ্রহ সেবা প্রদান করবে। এর ফলে জাহাজগুলো নিরাপদ নৌযান সুবিধা পাবে এবং সেগুলোতে লাইভ টেলিভিশন সম্প্রচারের সুবিধাও পাওয়া যাবে। বর্তমানে এসব জাহাজের সঙ্গে ওয়্যারলেসে যোগাযোগ করা হয়। এতে প্রায়ই যোগাযোগে বিঘ্ন ঘটে। স্যাটেলাইট সেবার পর জাহাজগুলো ২৪ ঘণ্টা স্থলভাগের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবে।

বিসিএসসিএল জানিয়েছে, প্রতিটি জাহাজ থেকে মাসে সর্বনিু এক হাজার টাকা উপার্জন হবে তাদের। ফলে বছরে এখন থেকে ৪২ কোটি টাকা আসবে।

এদিকে আগামী সেপ্টেম্বরে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানা গেছে। গত মাসে এর ইন অরবিট টেস্ট বা আইওটি সফলভাবে শেষ হয়েছে।

বিসিএসসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জানান, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট থেকে ১৬০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডউইথ পেয়েছে দেশ। ইতিমধ্যে তারা স্যাটেলাইট থেকে সেবা নিতে ৪৫টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে চিঠি দিয়েছেন। এর মধ্যে কিছু কিছু মন্ত্রণালয় ও বিভাগ থেকে তারা কিছু প্রস্তাবও পেয়েছে।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ থেকে ডাইরেক্ট-টু-হোম (ডিটিএইচ), ই-লার্নিং, টেলিমেডিসিন, কৃষি ইত্যাদির জন্য সেবা দেয়া হবে। সূত্র : যুগান্তর