বিনোদন ডেস্ক:: কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের পর্দা উঠল। ভারতের কিংবদন্তি অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন শুক্রবার সাত দিনের এ উৎসবের উদ্বোধন করেন। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এছাড়া বিশেষ অতিথি ছিলেন বলিউডের কিং খান খ্যাত শাহরুখ খান, পরিচালক মহেশ ভাট, অভিনেতা কমল হাসান, নির্মাতা মাইকেল উইন্টারকম, অভিনেত্রী কাজল এবং সঙ্গীতশিল্পী কুমার শানু।

এবারের ২৩তম এ আয়োজনের উদ্বোধনী ছবি হিসেবে স্থান করে নিয়েছে ইরানের পরিচালক মোস্তফা তাঘিজাদের ‘ইয়েলো’ চলচ্চিত্র। স্থানীয় ছয়জন তরুণ বিজ্ঞানীর দেশত্যাগের কাহিনী নিয়ে নির্মিত হয়েছে এ চলচ্চিত্র। উৎসবে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন পরিচালক আবু সাঈদ। ‘এক কবির মৃত্যু’ উৎসবের একমাত্র বাংলাদেশি চলচ্চিত্র হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে।

বাংলার ‘ঘরের জামাই’ অমিতাভ এবং পশ্চিমবঙ্গের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর বাদশা শাহরুখকে একঝলক দেখতে নেতাজি ইনডোরের ভেতরে এবং বাইরে ছিল তীব্র আকুতি। সাত দিন ধরে চলবে উৎসব। গোটা পৃথিবীর অগুনিত সিনেমাপ্রেমী মানুষ এখন কলকাতায় হাজির। ৬৫টি দেশের ১৪২টি সিনেমা দেখানো হবে। নন্দন, রবীন্দ্রসদন, শিশির মঞ্চ, নজরুল তীর্থসহ কলকাতার ১২ জায়গায় প্রদর্শিত হবে সিনেমাগুলো।

এবারের উৎসবে মহিলা পরিচালকদের ছবির প্রতিযোগিতার বদলে চালু করা হয়েছে দুটি প্রতিযোগিতামূলক বিভাগ। আঞ্চলিক ভাষার ছবিকে গুরুত্ব দিয়ে প্রতিযোগিতা বিভাগে সেরা ছবি এবং সেরা পরিচালককে দেয়া হবে যথাক্রমে ৭ লাখ ও ৫ লাখ রুপি। ‘ইনোভেটিভ ইমেজেস ইন সিনেমা’ নামে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা বিভাগের সেরা ছবির জন্য দেয়া হবে ৫১ লাখ রুপি। এ বিভাগে ভারত ও বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের ১৩টি দেশের ১৪টি ছবি দেখানো হবে। মোট ১০টি বাংলা ছবি দেখানো হবে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ইন্দ্রাশিস আচার্যের ‘পিউপা’, জা লুক গোদারের ‘দ্য রাইজ এন্ড ফর অব স্মল ফির কোম্পানি’।