বিনোদন ডেস্ক::

দেশের কিংবদন্তি প্রযোজক ইফতেখারুল আলম আর নেই। শনিবার (৫ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নানিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর।

তিনি এফবিসিসিআই, মেট্রোপলিটন চেম্বার. এমপ্লয়ার্স এসোসিয়েশন, ফিল্ম প্রযোজক সমিতি, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়াম্যান ছিলেন।

১৯৬৪ সালে জহির রায়হানের পরিচালনায় তৎকালীন পাকিস্তানের প্রথম রঙিন ছবি ‘সঙ্গম’ নির্মিত তার প্রযোজনায়। ষাটের দশক থেকেই নামি দামি পরিচালক ও তারকা শিল্পীরা তার প্রযোজনায় কাজ করেছেন।

রোটারী গর্ভনর এএফএম আলমগীর, গভর্নর (নির্বাচিত) খায়রুল আলম, গর্ভনর নমিনি মো. রুবাইয়াত হোসেন মরহুমের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

কিংবদন্তি প্রযোজক ইফতেখারুল আলম অভিনেতা আহমেদ শরীফের ফুফা।

চলচ্চিত্র জগতের মানুষদের কাছে তিনি ইফতেখারুল আলম কিসলু নামে পরিচিত। মৃত্যুর বেশ কয়েক বছর আগে স্ত্রীকে হারিয়েছিলেন এই প্রযোজক।

আহমেদ শরীফ জানান, আজ রোববার (৬ জানুয়ারি) বাদ জোহর গুলশান ২- এ অবস্থিত আজাদ মসজিদে মরহুমের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বনানী কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হবে।

প্রসঙ্গত, ১৯৬৬ সালে রাজ্জাক-সুচন্দা জুটির প্রথম ছবি ‘বেহুলা’ও নির্মিত হয় তার প্রযোজনায়। স্বাধীনতার পর প্রথম মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ছবি ‘ওরা ১১ জন’ও নির্মিত হয় তার প্রযোজনায়। এছাড়া তিনি ‘আনোয়ারা’, ‘আলিবাবা’ ও ‘দুই পয়সার আলতা’, ‘সংসার’র মতো অসংখ্য ছবি প্রযোজনা করেছেন।