বিনোদন ডেস্ক:: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৬ এর আসরে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে আজীবন সম্মাননা গ্রহণ করেছেন ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় অভিনেতা ফারুক।

রোববার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চিত্রনায়িকা ববিতার সঙ্গে যৌথভাবে তাকে এ সম্মাননা দেয়া হয়।

এ সময়ে তিনি অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, ‘এই জীবনে আমি ১৯বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার থেকে বঞ্চিত হয়েছি! কারণ আমি সবসময় বঙ্গবন্ধুর কথা বলে আসছি। এখনো বলছি। এই মঞ্চে আমি স্পষ্টভাষায় বলছি, যদি পুরস্কার না পাওয়ার পেছনে এটাই মূল কারণ হয়- তো আমি তার কথা বারবার বলবো, পুরস্কার চাই না।’

পুরস্কার প্রদান শেষে প্রধানমন্ত্রী বললেন, ‘আমাদের দেশে এখনো অনেক ভালো সিনেমা হয়। সবসময় তো দেখতে পারি না, তবে বিমানে যাতায়াতের সময় সিনেমা দেখি। ওই একটাই সুযোগ, নিরিবিলি দেখি। এর বাইরে তো সময় পাই না। সারাদিন মিটিং আর ফাইল নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হয়।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘চলচ্চিত্র মানুষের জীবনের প্রতিচ্ছবি। এর মাধ্যমে সমাজে অনেক বক্তব্য পৌঁছানো যায়। দেশ ও সমাজের ভালোর জন্য অনেক ভূমিকা রাখতে পারে চলচ্চিত্র। একটা সময় সিনেমা দেখা বন্ধই হয়ে গিয়েছিল। এখন মানুষ আবারও সিনেমা দেখছে। এটা আনন্দের খবর।’

সন্ধ্যা ৬টা ২২ মিনিটে অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর ২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া ছবিগুলোর মধ্য থেকে সেরা কাজের জন্য ২৫টি বিভাগে মোট ৩১জন বিজয়ীর হাতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের ক্রেস্ট, মেডেল ও চেক তুলে দেন তিনি।

এ সময় তার দুই পাশে ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।