বিনোদন ডেস্ক::মেগান মার্কেলের ফ্যাশন নিয়ে আগে এত মাথা ঘামাতেন না কেউ। তিনি নিজেও সাজপোশাক নিয়ে অতশত ভাবতেন না। কিন্তু এখন ভাবতে হচ্ছে। মেগানের পোশাক, অনুষঙ্গ—সবই এখন আলোচনার বিষয়বস্তু। তিনি এখন যে পোশাক পরেন, সেটিই ‘হট কেক’-এর মতো বিকোয়। আর সেটি তো হতেই হবে। হবু রাজবধূ বলে কথা। ১৯ মে মেগান মার্কেল ও প্রিন্স হ্যারির বিয়ে।

মেগান মার্কেল বিয়ের অনুষ্ঠানে কী পোশাক পরতে পারেন, সেই আলোচনায় যাওয়ার আগে কয়েক মাস আগের একটি ঘটনা বলা যাক। ঘটনাটি গত বছরের ডিসেম্বরের প্রথম দিনে। বাগদানের পর প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেল সেদিন প্রথম জনগণের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে বের হন। সে সময় মেগানের পরনে ছিল একটি মিলিটারি ম্যাক্সি কোট। নকশার দিক থেকে তেমন আহামরি কিছুই নয়। কিন্তু হবু রাজবধূ এটি গায়ে চাপিয়েছেন—এটিই হয়ে ওঠে সেই কোটের বিশেষত্ব। এরপর কানাডীয় ফ্যাশন হাউস ম্যাকেজের তৈরি সেই কোট পাওয়ার জন্য লম্বা লাইন লেগে যায়। ৭৫০ পাউন্ড দামের সেই ম্যাক্সি কোটের সংগ্রহ ফুরোতে সময় লাগে স্রেফ পাঁচ ঘণ্টা।

কেবল মেগানের গায়ের কোটটিই নয়, ফ্যাশনপ্রেমীদের হৃদয় জয় করে নেয় তাঁর হাতে থাকা ভ্যানিটি ব্যাগটিও। স্ট্র্যাথবেরি ব্র্যান্ডের সেই চকলেট রঙের ব্যাগ কিনতে ওয়েবসাইটে সবাই হুমড়ি খেয়ে পড়েন। মাত্র ১১ মিনিটে সে নকশার ব্যাগের স্টক শেষ হয়। ক্রেতা ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র, চীন থেকে শুরু করে বিশ্বের অনেক দেশের বাসিন্দা।

বাগদানের ঘোষণা করার দিন মেগান সেই সাদা কোট পরেছিলেন, সেটিও ছিল একটি কানাডার ব্র্যান্ড। নাম লাইন দ্য লেবেল। মাত্র এক মিনিটে তাঁদের সংগ্রহে থাকা এই কোটের সব কটি বিক্রি হয়ে যায়। এ ছাড়া বাজারে এখন এই নায়িকার যেকোনো পোশাকের নকল দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। স্বাভাবিকভাবেই মেগানের বিয়ের পোশাকটিও অনেকে নকল করতে চাইবেন।

গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, রানি এলিজাবেথের হবু নাত বউ মেগান দাদি শাশুড়ির বাছাই করে দেওয়া ডিজাইনারের নকশা করা পোশাকেই বিয়ে করবেন। আবার অনেকে মনে করছেন, মেগানের বেলায় যেহেতু রাজপরিবারের অনেক প্রথাই ভেঙেছে, সেখানে আরও কিছু আধুনিকায়নও চলতে পারে। মেগানের বিয়ের পোশাকের সম্ভাব্য ডিজাইনারদের মধ্যে যাঁদের নাম এসেছে, তাঁদের মধ্যে সবচেয়ে এগিয়ে আছেন তামারা রালফ ও মাইকেল রুশো। তাঁদের বিখ্যাত ব্র্যান্ড ‘রালফ অ্যান্ড রুশো’ মেগানের বিশেষ পছন্দ। বাগদানের আনুষ্ঠানিক ফটোশুটেও তিনি এই ব্র্যান্ডের পোশাক পরেছিলেন। কালো রঙের সেই গাউনের দাম ছিল ৭৫ হাজার মার্কিন ডলার। এ ছাড়া তুরস্কের ব্র্যান্ড এরদিমের ফুলেল নকশা করা পোশাকেও এই তারকাকে দেখা গেছে একাধিকবার। রাজপরিবারের আরেক সদস্য কেট মিডলটনও তাদের পোশাকের ভক্ত।

আগের সব রাজবধূরা বিয়েতে শরীর বেশ ঢেকেঢুকে রাখলেও মেগান বড় পিঠ ও গলার পোশাক পরতে পারেন বলে ফ্যাশন বিশ্লেষকদের ধারণা। ফরাসি ডিজাইনার রোলেন্ড মুগের নকশা করা পোশাকেও বউ সাজতে পারেন তিনি। স্টেলা, বারবেরিসহ বেশ কয়েকটি ব্র্যান্ডও আছে মেগানের পছন্দের তালিকায়। হতে পারে তালিকার বাইরে থাকা কোনো ফ্যাশন ডিজাইনারের কাঁধেই চেপেছে মেগানের বিয়ের পোশাক নকশার গুরুদায়িত্ব। নিশ্চিত হয়ে কিছুই বলা যাচ্ছে না। কারণ রাজপরিবার এ বিষয়ে খুব সজাগ। কোনোভাবেই তারা অনুষ্ঠানের আগে মেগান ও হ্যারির পোশাকের নকশা ও নকশাকারীর নাম ফাঁস হতে দেবে না।

খ্রিষ্টান বিয়েতে সাদা গাউন সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হলেও মেগান এ ক্ষেত্রেও হাঁটতে পারেন ভিন্ন পথে। হালকা গোলাপি, আইভরি, ওয়েস্টার কিংবা ক্রিম রঙের কোনো গাউন পরতে পারেন মেগান। তবে প্রিন্স উইলিয়ামের স্ত্রী কেট যে টিয়ারাটি পরেছিলেন, সেটি হয়তো শোভা পাবে না মেগানের মাথায়। কারণ সেটি এখন একটি প্রদর্শনীর জন্য জমা রয়েছে। অনেকে বলছেন, রানি এলিজাবেথের মায়ের একটি গোলাপ নকশার টিয়ারা হয়তো মেগান তাঁর বিয়ের দিন পরতে পারেন।