বিনোদন ডেস্ক:: আনুষ্ঠানিক বিবাহ বিচ্ছেদ সম্পন্ন হয়েছে আলোচিত দম্পতি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের কর অঞ্চল-৩ এর নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হেমায়েত হোসেন খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা তাদের দুজনকে তিনবার নোটিশ দিয়েছি, কিন্তু কোনো সমঝোতা হয়নি। ফলে আজ থেকে আইন আনুযায়ী আমরা বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর বলতে পারি।’ ‘তারা দুজন চাইলে বিচ্ছেদের সার্টিফাইট কপির জন্য আবেদন করতে পারবে বলেন হেমায়েত হোসেন।

তিনি আরো বলেন, ‘তবে অপু চাইলে সন্তানের ভরন-পোষণের জন্য আদালতে যেতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে আমাদের থেকে কিছু করার নেই।’ ডিএনসিসি শাকিব-অপুকে সমঝোতার জন্য প্রথমবার ডাকে ১৫ জানুয়ারি। সেখানে অপু উপস্থিত হলেও শাকিব ছিলেন না। এরপর ১২ ফেব্রুয়ারি ও সর্বশেষ আজ তাদের দুজনকে ডাকা হয়।

গত ২৮ নভেম্বর আইনজীবীর মাধ্যমে ডিভোর্সের নোটিশ পাঠান শাকিব খান। সেখানে নায়ক ডিভোর্সের দুটি কারণ দেখিয়েছেন। এর একটি হলো- অপু বিশ্বাস কথিত বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে ভারতে বেড়াতে গেছেন। এই সময়ে ছেলে জয়কে বাসার কাজের লোকের কাছে রেখে গেছেন। বছরখানেক অন্তরালে থাকার পর ১০ এপ্রিল একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে উপস্থিত হয়ে বিয়ে ও সন্তানের খবর জানান অপু বিশ্বাস।

তিনি জানান, ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিবের সঙ্গে বিয়ে হয়। কলকাতার একটি ক্লিনিকে ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় ছেলে আব্রাহাম খান জয়ের। এ খবর প্রকাশের পর থেকেই শাকিবের সঙ্গে অপুর মান-অভিমান চলছিল। তাদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়। বর্তমানে ছেলেকে নিয়ে রাজধানীর নিকেতনে একাই থাকছেন অপু।

অপু ২০০৪ সালে আমজাদ হোসেনের ‘কাল সকালে’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। এরপর ২০০৬ সালে পরিচালক এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে নায়িকা হিসেবে শাকিবের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি।

২০০৬ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত এই জুটি ৭০টির মতো জনপ্রিয় ছবিতে অভিনয় করেন।