রূপগঞ্জ প্রতিনিধি::

রূপগঞ্জের জনবহুল ভুলতা গাউছিয়া এলাকায় পাবলিক টয়লেট না থাকায় পথযাত্রীরা যত্রতত্র প্রসাব করে পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই এলাকার পথচারীরা নাকে মুখে রুমাল দিয়ে পথ চলাচল করতে হচ্ছে। অতিসত্ত্বর ফ্লাইওভার এলকায় পাবলিক টয়লেটের দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বার) সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ভূলতা ও গোলাকান্দাইল এলাকায় চলাচলরত পথচারীরা পাবলিক টয়লেট না থাকায় ফ্লাইওভারের পিলারের গোড়ায় প্রসাব করছে। এই প্রসাব রাস্তার উপর ছড়িয়ে পড়ায় দুর্গন্ধে পথচারীরা রুমাল মুখে দিয়ে রাস্তা পার হচ্ছে। মহাসড়কের পাশে ফুটপাতে কাঁচাবাজার বসিয়েছে ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করছে এসকল ব্যবসায়ীরা রাতের বেলা বাজারের যত ময়লা আর্বজনা এনে এই পিলারের গোড়ায় ফেলছে। এতে করে এখানে সৃষ্টি হচ্ছে ময়লায় ভাগাড়। একতো ময়লার ভাগাড় অন্যদিকে পথচারীদের প্রসাব ছড়িয়ে পড়ছে রাস্তা পর্যন্ত। আর এই ছড়িয়ে পড়া প্রসাবের গন্ধে পথযাত্রীরা নাকে মুখে রুমাল ও কাপড় চেপে ধরে রাস্তা চলাচল করছে। পথচারীরা ভুলতা ফ্লাইওভারের পাশে অতি সত্ত্বর পাবরিক টয়লেটের দাবী জানিয়েছে।

স্থানীয়রা জানান ভুলতা গোলাকান্দাইল এলাকায় তিনটি বাজার সাথে ফুটপাত থাকার কারনে এলাকাটি একটি জনবহুর এলাকায় পরিনত হয়। এখানে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের আনাগোনা। এলাকায় কোন পাবলিক টয়লেট না থাকায় যাত্রী ও পথযাত্রী দুর্ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত। নারায়ণগঞ্জের রপগঞ্জে চার লেন বিশিষ্ট ভুরতা ফ্লাইওভার দেশের একটি আলোচিত উন্নয়ন প্রকল্প। জানা যায়, এই প্রকল্পের নকশাতে ফ্লাইওভার এলাকায় ৩টি বাসবির সাথে পাবলিক টয়লেট ও যাত্রী ছাউনি তৈরী করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। তাঁতবাজার এলাকার ব্যবসায়ী জাকির হোসেন জানান, এই ফ্লাইওভার এলাকায় আরো অনেক আগেই পাবলিক টয়লেট নির্মাণ করার দরকার ছিল। কিন্তু টয়লেট নির্মাণ না করায় এই এলাকার হাজার হাজার যাত্রীরা প্রতিদিন বিড়ম্বনার স্বীকার হচ্ছে। এরা প্রতিনিয়ত পড়ছে ভোগান্তিতে।

এ ঘটনায় ফ্লাইওভারের স্পেকট্রা ইঞ্জিনিয়ারের কর্মরত সিনিয়র সুপার ভাইজার নূর মোহাম্মাদ জানান, পাবলিক টয়লেট হবে তবে একটু দেরি হবে। অনতিবিলম্বে যাত্রী ছাউনি ও পাবলিক টয়লেটের দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী।