ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: ছাত্রলীগের সহিংসতা আড়াল করতে শিক্ষার্থীদের ওপর দমন-পীড়ন চালিয়েছে সরকার বলে দাবি করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

তিনি বলেন, দলীয় পাষণ্ডদের দিয়ে শিশু-কিশোরদের ওপর হামলা করেই ক্ষান্ত হয়নি, সরকার এখন র‌্যাব-পুলিশ দিয়ে ধরপাকড় চালাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, নিরপরাধ শিক্ষার্থীদের আটক করার পর কোমরে দড়ি বেঁধে রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতন করা হচ্ছে। বুধবারও দেশজুড়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার অভিযানে নিন্দার ঝড় উঠেছে। এ অভিযান সরাসরি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ওপর এক নির্মম আগ্রাসন।

তিনি বলেন, খ্যাতিমান আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে উচ্চ আদালত চিকিৎসার নির্দেশ দিলেও পিজি হাসপাতাল সরকারের নির্দেশে তাকে ভর্তি নেয়নি।

এ ঘটনায় আবারও কি প্রমাণ করার দরকার আছে যে খালেদা জিয়া এ হাসপাতালে সঠিক চিকিৎসা পাবেন? হাসপাতালটিতে সরকারি নির্দেশের বাইরে কোনো চিকিৎসা নেয়া হয় না, বলে জানান রিজভী আহমেদ।

তিনি বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা শিক্ষার্থীদের মুক্তি দাবি করলেও শিক্ষামন্ত্রী তা নাকচ করে দিয়েছেন।

রিজভীর প্রশ্ন- ক্ষমতাপিপাসা কত তীব্র হলে শিক্ষামন্ত্রী মাসুম শিশু-কিশোরদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে পারেন? এ অবৈধ ক্ষমতার জন্য তারা ন্যায়নীতি, মানবিক মূল্যবোধ, মনুষত্য এবং শিশু-কিশোরদের দাবিকেও পদদলিত করছে।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিশু-কিশোরদের আন্দোলনকে তিনি ভিন্ন ধারার প্রতিবাদের স্বতন্ত্র রূপ বলে আখ্যায়িত করেন।