নিজস্ব প্রতিবেদক::

একাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের বাতিল হওয়া মনোনয়নের ওপর শুনানি শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। বৃহস্পতিবার শুনানিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ (সিইসি) অন্যান্য কমিশনার, ইসির সচিব ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটরা উপস্থিত রয়েছেন।

শুনানি শেষে যারা প্রার্থীতা ফিরে পেয়েছেন তারা হলেন– বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনে বিএনপি প্রার্থী মোরশেদ মিল্টন, ঝিনাইদাহ-১ বিএনপির প্রার্থী আব্দুল ওয়াহাব, ঢাকা-২০ আসনে তমিজউদ্দিন, কিশোরঞ্জ-২ আসনে মেজর (অব) মো আখতারুজ্জামান, পটুয়াখালী-৩ আসনে বিএনপি প্রার্থী গোলাম মওলা রনি, ঢাকা-১ (দোহার ও নবাবগঞ্জ) : বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান ও নবাবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার আবু আশরাফ, খাগড়াছড়ির বিএনপি প্রার্থী আব্দুল ওয়াদুদ ভুঁইয়ার সিদ্ধান্ত অপেক্ষমান, মাদারীপুর-৩ আসনের মো. আবদুল খালেক, পটুয়াখালী-৩ বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মো. শাহজাহান খান, সিলেট-৩ বিএনপির যুবদলের সাবেক সহসভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, সাতক্ষীরা-২ আসনে জেএসডি মনোনীত প্রার্থী আফসার আলী, ঝিনাইদহ-২ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আব্দুল মজিদ,গাজীপুর-২ আসনে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী জয়নাল আবেদীন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ আসনে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী জেসমিন নূর বেবী, রংপুর-৪ আসনে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী মোস্তফা সেলিম বেঙ্গল।

দিনাজপুর-১ পারভেজ হোসেন, মাদরীপুর-১ জহিরুল ইসলাম মিন্টু, ঠাকুরগাঁও-৩ এস এম খলিলুর রহমান, জয়পুরহাট-১ ফজলুর রহমান, গাজীপুর-২ মো. জয়নাল আবেদীন, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া-৬ জেসমিন নুর বেবী, রংপুর-৪ মোস্তফা সেলিম বৈধতা পেয়েছেন।

এর আগে গত ২রা ডিসেম্বর সারাদেশের রিটার্নিং কর্মকর্তারা যাচাই-বাছাই করে ৭৮৬ মনোয়নয়নপ্রত্যাশীর মনোনয়নপত্র বাতিল করে। ওই সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে গত তিনদিন নির্বাচন কমিশনের আপিল আবেদন করেন ৫৪৩ প্রার্থী। আজ থেকে এই আবেদনের ওপর শুনানী। এই শুনানী চলবে আগামী ৮ই ডিসেম্বর পর্যন্ত।