রাজবাড়ী প্রতিনিধি::

প্রথম দফায় প্রকাশিত রাজাকারের তালিকায় নাম এসেছে রাজবাড়ী জেলার ৪৩ জন স্বাধীনতাবিরোধীর। তাদের মধ্যে ১৭ জন রাজবাড়ী সদর উপজেলার, ১৬ জন বৃহত্তর পাংশা উপজেলার (নবগঠিত কালুখালী উপজেলাসহ), ৭ জন গোয়ালন্দ উপজেলার এবং ৩ জন বালিয়াকান্দি উপজেলার।

প্রথম দফায় প্রকাশিত তালিকায় রাজবাড়ী জেলার ৪৩ জন স্বাধীনতাবিরোধীর নাম প্রকাশ পাওয়ায় রাজবাড়ীর জনসাধারনের মধ্যে একধরনের কৌতুহল সৃষ্টি হয়েছে। চলছে নানা রকম আলোচনা সমালোচনা।

যাদের মান রাজাকারের তালিকায় প্রকাশ পেয়েছে তারা হলেন- রাজবাড়ী সদর উপজেলার নাওডুবির হোসেন খানের ছেলে আকবর আলী খান, আলাদীপুরের হযরত আলীর ছেলে রবিউল মিয়া, রফিক মিয়ার ছেলে শফি মিয়া, মধুরদিয়ার এসএম সাঈদের ছেলে এসএম জাকারিয়া, দিল মোহাম্মদের ছেলে মো. হানিফ, শরীয়তুল্লাহর ছেলে আকবর মন্ডল, খানখানাপুর ইউনিয়নের আবদুল হাকিমের ছেলে আবদুর রাজ্জাক, খোয়াজ মন্ডলের ছেলে মো. ইসমাইল, চরখানখানাপুরের বাজার আলীর ছেলে আ. রহমান মোল্লা, গৌরিপুর রিফিউজি কলোনির ইদ্রিস আলীর ছেলে আবদুল জলিল, রাজবাড়ী শহরের ভাজনচালার জামান মিয়ার ছেলে মো. শুকুর, বটতলার ওয়াসিমুদ্দিনের ছেলে আ. রশিদ মিয়া, ভবাণীপুরের আবেদ আলীর ছেলে মুজিবুর রহমান, মহারাজপুরের গোপাল মোল্লার ছেলে লতিফ মোল্লা, মজলিশপুরের উমেদ শেখের ছেলে আ. সাত্তার শেখ, বাগমারার হাফিজুদ্দিনের ছেলে আবদুল হান্নান ও মহিষবাথানের আবদুর রহমানের ছেলে আজাহার আলী মরুল, পাংশা (নবগঠিত কালুখালীসহ) উপজেলার কাউখোলার ইসমাইলের ছেলে আবদুল জব্বার মরল, পাংশার আবদুর রাজ্জাকের ছেলে আবদুল মালেক খান, ইসমাইলের ছেলে আবুল কালাম আজাদ, হজপাড়ার লাট্টা শেখের ছেলে সাইফুদ্দিন শেখ, জহুর শেখের ছেলে খোরশেদ আলী শেখ, হুদারকোটার এন্তাজ মরলের ছেলে আবদুল জলিল মরল, কালিকাপুরের কেসমত আলীর ছেলে হোসেন আলী শেখ, ভাতশালার নূরুজ্জামানের ছেলে সৈয়দ শফিকুল আলম, পাকশিয়ার ইছাকের ছেলে শাহিদুল ইসলাম, মাজবাড়ীর আইনুদ্দিনের ছেলে কাজী সাইদুল ইসলাম, নূরুল হকের ছেলে কাজী সোনাউল্লাহ, তাফুলিয়ার জাকির আলী খানের ছেলে আ. আজিম খান, বাড়াইজুড়ীর আছালুদ্দিনের ছেলে কাজী আমজাদ হোসেন, খোশবাড়ীর মহসিন মিয়ার ছেলে মোজাম্মেল মিয়া, রতনদিয়ার ইউসুফ হোসেন চৌধুরীর ছেলে নাজির হোসেন চৌধুরী ও মেগচামীর সাদেক আলী খানের ছেলে আবুল বাশার খান, বালিয়াকান্দি উপজেলার বচনপুরের হামিদ মোল্লার ছেলে আবদুল হান্নান মোল্লা, রাজধরদীর আবদুর রহমানের ছেলে আকবর আলী খান ও একই এলাকার আবদুল মজিদের ছেলে মোয়াজ্জেম হোসেন এবং গোয়ালন্দ উপজেলার গোয়ালন্দ ঘাটের আ. জলিল বেপারীর ছেলে মো. সিদ্দিক, জাফর আলীর ছেলে কাজী হোসেন, কাশেম সিদ্দিকের ছেলে আলী হোসেন সিদ্দিক, চরপাঁচুরিয়ার ফৈজদ্দিনের ছেলে আফজাল সরদার, শ্যামসুন্দরপুরের মোখলেছুর রহমানের ছেলে আবদুল ওহাব খান, খানদিয়ার আবদুর রহমানের ছেলে মতিয়ার রহমান ও তোফদিয়ার শুকুর শেখের ছেলে আবদুল জলিল।