রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি::

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থেকে গত ৫ জানুয়ারী ৩২০ বস্তা চিনি ছিনতাই হয়। এরমধ্যে গত সোমবার রাতে ২৫৩ বস্তা চিনি ময়মনসিংহ জেলার ইশ্বরগঞ্জ থেকে উদ্ধার করে রূপগঞ্জ থানা পুলিশ। ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত থাকায় ট্রাকের ড্রাইভার সজিব মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সজিব মিয়া পাবনা জেলার গাছপাড়া ব্রাকমোড় এলাকার আব্দুল জব্বারের ছেলে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোতালিব হোসেন জানান, ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা এলাকার উজ্জল ষ্টোরের মালিক উজ্জল কর রূপগঞ্জ থানাধীন রূপসী সিটি গ্রুপ থেকে তীর মার্কা ৩২০ বস্তা চিনি ক্রয় করে। পরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার শিমরাইল এলাকার গোলাম মাহাবুব মিয়ার মালিকানাধীন নিউ আপন ট্রান্সপোর্ট এজেন্সির মাধ্যমে ঢাকা মেট্রো-ট-২২-৬৫৭৫ ট্রাকযোগে ৩২০ বস্তা চিনি বোঝাই করে ফরিদপুরের উদ্দেশ্য ছেড়ে যায়। পরদিন গত ৬ জানুয়ারী দুপুরে উজ্জল মিয়া চিনি না পেয়ে ট্রান্সপোর্টের ম্যানেজার নির্মল পোদ্দারকে তার ব্যবহৃত মোবাইলে মাধ্যমে জানায়। ট্রান্সপোর্টের ম্যানেজার বিষয়টি তার মালিককে জানায়। এসময় ট্রান্সপোর্টের মালিক গোলাম মাহাবুব মিয়া ট্রাকের মালিক মাসুদ আলী, ট্রাক ড্রাইভার সজিব মিয়া ও ট্রাকের হেলপার সোহেলের সঙ্গে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে। তাদের তিন জনের মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরে তিনি রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এস আই আরো জানায়, অভিযোগের ভিত্তিতে গত সোমবার বিকালে পাবনা জেলার গাছপাড়া ব্রাকমোড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে ট্রাক ড্রাইভার সজিব মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়। সজিব মিয়াকে ব্যপক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, ট্রাকের মালিক মাসুদ আলী ও ট্রাকের হেলপার সোহেল তারা তিনজন মিলে তাদের নিজেদের ক্রয় করা চিনি বলে ইশ্বরগঞ্জ বাজারের ৩ টি দোকানে বিক্রি করে দেয়। পরে পুলিশ সোমবার গভীর রাতে ঐ ৩ দোকান থেকে ২৫৩ বস্তা চিনি উদ্ধার করে। এ ঘটনায় ট্রান্সপোর্টের মালিক গোলাম মাহাবুব মিয়া বাদী হয়ে ট্রাকের মালিক, ট্রাক ড্রাইভার ও হেলপারকে আসামী করে রূপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুল হাসান জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। একজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। বাকী মালামাল উদ্ধার ও আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।