লাইফস্টাইল ডেস্ক:: খেতে ভীষণ সুস্বাদু কিন্তু স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। চিকিৎসকরা বারবার এই কথাটিই বলে আসছেন কোমল পানীয় সম্পর্কে। সবকিছু জেনেও আমরা প্রতিদিন এই কোমল পানীয় পান করছি। নিয়মিত কোমল পানীয় পান করলে তা পরবর্তীতে শরীরে নানা অসুখের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। তবে এই কোমল পানীয় রয়েছে কিছু উপকারী দিক। জেনে নিন দৈনন্দিন কাজে এর ব্যতিক্রমী কয়েকটি ব্যবহার-

হাঁড়ি পরিষ্কার করতে : রান্না করতে গিয়ে শখের হাঁড়ি পুড়ে গেছে? নানা রকম চেষ্টা করেও পোড়া দাগ তুলতে পারছেন না। তাই নিয়ে যদি মন খারাপ হয় তবে দ্বারস্থ হতে পারেন কোমল পানীয়র। পাত্রে কালো রঙের যেকোনো কোমল পানীয় ঢেলে কিছুক্ষণের জন্য রেখে দিন। পোড়া দাগ দূর হবে নিমিষেই!

বারবিকিউ সস তৈরিতে : শীত চলে এসেছে। এসময় বাড়ির ছাদে বারবিকিউ পার্টি করেন অনেকেই। এই বারবিকিউ এর সস তৈরিতে অনায়াসে ব্যবহার করতে পারেন কোমল পানীয়। এই বিষয়টি নিশ্চয়ই আগে জানা ছিল না?

মার্কার পেনের দাগ দূর করতে : শখের জামা কিংবা বিছানার চাদরে অসাবধানতাবশত মার্কারের দাগ লেগে যেতেই পারে। আর এই দাগ এমনই নাছোড়বান্দা যে কিছুতেই উঠতে চায় না। এক্ষেত্রেও আপনাকে সাহায্য করবে কোমল পানীয়। দাগযুক্ত কাপড়টি কোমল পানীয়র মধ্যে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রেখে তারপর ধুয়ে দিন। মার্কারের দাগ উধাও হয়ে যাবে।

চুলের যত্নে : শুনে নিশ্চয়ই অবাক লাগছে? অবাক করা ব্যাপার হলেও সত্যি যে কোমল পানীয় আপনার চুলের যত্নে সহায়ক হতে পারে। এতে উপস্থিত ফসফরিক এসিড চুলের যত্নে বেশ উপকারি। চুলের প্রাণহীনতা, অনুজ্জ্বলভাব দূর করতে আজই ট্রাই করতে পারেন কোমল পানীয়।

উর্বরতা : মাটির উর্বরতা বাড়াতেও কোমল পানীয় বেশ সহায়ক। গাছের দ্রুত বৃদ্ধির জন্য মাঝে মাঝে গাছের গোড়ায় কোমল পানীয় ঢালতে পারেন। খরচটা যদিও একটু বেশিই হয়ে যাবে!