লাইফস্টাইল ডেস্ক:: কর্মদক্ষতা ও কাজের প্রতি মনোযোগ একজন ব্যক্তির চাকরিজীবনকে দীর্ঘায়িত করে। কর্মক্ষেত্রে হয়তো মনোযোগসহকারে কাজ করছেন আপনি। কিন্তু আপনার মনে হচ্ছে কোথায় যেন একটা সমস্যা। আবার ভয়ও পাচ্ছেন চাকরি চলে যাওয়া ।

আপনি জানেন কি এমন কিছু ‘সাধারণ’ কারণ আছে, যার ফলে কর্মদক্ষ হওয়া সত্ত্বেও চাকরি চলে যাওয়াটা অস্বাভাবিক নয়।

আসুন জেনে নেই যে ৮ কারণে চলে যেতে পারে চাকরি।

লুকিয়ে প্রেম

অফিসে কাজ করতে গিয়ে হয়তো কোনো সহকর্মীকে আপনার ভালো লেগে যেতে পারে। নিজেদের মধ্যে যদি প্রেমের সম্পর্ক গভীরও হয় তবে তা কখনোই অফিসে প্রকাশ করবেন না। যদি নিজের মধ্যে রাখতে পারেন ভালো। আর যারা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে না তাদের জন্য চাকরির ছাড়পত্র ছাড়া আর দ্বিতীয় কোনো রাস্তা নেই।

উপহার নেয়া

উপহার আদান-প্রদান একটি সুন্দর সম্পর্ক রচনা করে। বেশকিছু কোম্পানিতে এই উপহার আদান-প্রদানের কাজ খুবই গর্হিত হিসেবে দেখা হয় এবং এর ফলে আপনার চাকরি চলে যাওয়াটাও অস্বাভাবিক কিছুই নয়। আপনি যদি কোনো রাজনৈতিক সংস্থা বা সরকারি সংস্থার হয়ে কাজ করেন তাহলে এই উপহার নেয়ার কারণে আপনি চাকরি চলে যেতে পারে।

সুবিধাবাদী হওয়া

বিভিন্ন কোম্পানিতে কর্মীদের জন্য নানারকম সুবিধা দেয়া থাকে। তার মানে এই নয় যে, আপনি সব সময় সুযোগ খুঁজবেন বা সুবিধার অপব্যবহার করবেন। এর ফলে আপনার চাকরি চলে যেতেই পারে। এছাড়া অফিসিয়াল কাজে বরাদ্দকৃত অর্থ নিজের ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহারের কার্যকলাপের জন্য কোম্পানি কোনো কর্মী বা কর্মকর্তাকে ছাড় দেয় না। তাদের সরাসরি বরখাস্ত করা হয়।

পোশাক সচেতন

অফিসে পোশাকের ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে সচেতন হতে হবে। কারণ পোশাক আপনার ব্যক্তিত্বকে ফুটিয়ে তোলে। তাই অফিসে চাই অফিসিয়াল পোশাক। আপনি কোনো ফ্যাশন সংস্থায় কাজ করলে নিত্যনতুন স্টাইল গ্রহণ করতেই পারেন। কিন্তু অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানে হলে, আপনি যে অবস্থানে চাকরি করেন সে অনুযায়ী পোশাক পরিধান করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এনে দেয় সফলতা।

বয়স্ক হয়ে গেলে

অনেক কোম্পানিই আছে যেখানে পুরাতন কর্মীদের ছাঁটাই করে দেয়া হয়। কেননা পুরাতন কর্মীদের বেশি বেতন দেয়ার চেয়ে কম বেতনে নতুন কর্মী নিয়োগ করা সুবিধাজনক মনে করে কোম্পানিগুলো।

কোনো কিছু গোপন করলে

সবার জীবনেই গোপন অনেক ঘটনা থাকে। আপনি যদি আপনার অতীতকে চাপা দিয়ে ফেলেন এবং আপনার কর্মস্থল প্রধান সেটা যদি না জানেন তাহলে আপনার চাকরি নিয়ে টানাটানি লেগে যেতে পারে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম

আপনি হয়তো মনে করতে পারেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আপনার নানা কার্যকলাপ আপনার অফিসের সীমার বাইরে। কিন্তু বাস্তবিকভাবে তা নয়। আপনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কি করছেন তা আপনার অফিস প্রতিনিয়ত খোঁজ রাখে। কোনো কর্মীর ফেসবুক পোস্ট যদি তার অফিস পরিপন্থী হয় তাহলে তার চাকরি হারানোর সম্ভাবনা থাকে।