ই- কণ্ঠ অনলাইন:: সুন্দরবন দিয়ে দেশের উপকূলে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে এগিয়ে চলেছে। এটি বৃহত্তর ঢাকা ও কুমিল্লার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়ের বদলে ‘বুলবুল’ এখন গভীর স্থলনিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সমুদ্র বন্দর গুলোর বিপদ সংকেত নামিয়ে ৩ এবং নদীবন্দরগুলোর বিপদ সংকেত ২-এ আনা হয়েছে। তবে মাছ ধরার ট্রলারগুলোকে আরও ২৪ ঘণ্টা নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আরো দুই দিন বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সর্বশেষ খবর অনুযায়ী বুলবুল ক্রমে ঢাকা ও কুমিল্লার দিকে এগিয়ে আসছে। তবে বাংলাদেশেই এটি দুর্বল হয়ে নিঃশেষ হয়ে যাবে নাকি ভারতের ত্রিপুরা থেকে আসাম এবং এর পার্শ্ববর্তী অঞ্চল দিয়ে অতিক্রম করবে, তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

আজ রবিবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরে মিডিয়া ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান আবহাওয়াবিদ ড. আব্দুল মান্নান।

তিনি বলেন, এটি ঘণ্টায় ৮-১০ কিলোমিটার গতিতে উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হচ্ছে। ঝড়টি দুপুর থেকে বিকেল নাগাদ ঢাকা ও কুমিল্লাঞ্চল হয়ে ভারতের ত্রিপুরা-আসামের দিকে অগ্রসর হতে হতে একেবারেই দুর্বল হয়ে যাবে। এর ফলে ঢাকাসহ ঝড়ের গতিপথ অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে।

ঘূর্ণিঝড়টি ক্রমান্বয়ে উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়টি উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমান্বয়ে মাদারীপুর, ফরিদপুর, ঢাকা ও কুমিল্লাঞ্চলের ওপর দিয়ে অতিক্রম করে ভারতের আসাম অঞ্চলের দিকে যেতে যেতে দুর্বল হয়ে যাবে। আর এজন্য দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এ সময় ঢাকাসহ ঘূর্ণিঝড়টির গতিপথ অঞ্চলে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে।

ঘূর্ণিঝড়টি দুর্বল হলেও এখনো বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৭০-৮০ কিলোমিটার রয়েছে। মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরের ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত, চট্টগ্রামের ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরের ৪ নম্বর মহাবিপদ সংকেত নামিয়ে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হচ্ছে। একইসঙ্গে নদীবন্দরগুলোতে ২ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হচ্ছে। এর ফলে নদী ও সাগরে মাছ ধরার ট্রলারগুলোকে আরও ২৪ ঘণ্টা নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হচ্ছে।

এদিকে নিম্নচাপের প্রভাবে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্তভাবে আরও দুই দিন নিম্ন থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। বলা হয়, মহাবিপদ সংকেত নামিয়ে আনার কারণে এখন উড়োজাহাজ চলাচল করতে পারবে। তবে লঞ্চগুলোকে আরও ২৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে বলা হয়েছে।