বশির আহমেদ, বান্দরবান প্রতিনিধি::

বান্দরবানে রাজবিলা ইউনিয়নে সম্প্রতি খুন, অপহরণ ও চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য বেড়ে যাওয়ায় পুলিশের সাঁড়াশি অভিযান পরিচালিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে বান্দরবানের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদারের নেতৃত্বে এই সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়।

সাঁড়াশি অভিযানে পুলিশের সদস্যরা বান্দরবান সদরের রাজবিলা ইউনিয়নের ২ ও ৩নং রাবার বাগান, উপর বুড়ি পাড়া, নিচে বুড়ি পাড়া ও কুহালং ইউনিয়নের উজি হেডম্যান পাড়া, চড়ুই পাড়া, হেব্রণ পাড়াসহ বিভিন্ন বাড়ী ও দুগর্ম পাহাড়ের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে এবং সন্ত্রাসীদের ব্যাপারে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করে। এসময় পুলিশ সুপার এলাকার যুবক যুবতীদের সংঙ্গে মতবিনিময় করে এবং সন্ত্রাসীদের কোন তথ্য থাকলে পুলিশকে জানানোর আহবান জানান।

অভিযানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ কামরুজ্জামান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কমর্কতা (ওসি) মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, ওসি তদন্ত এনামুল হক ভুইয়াসহ পুলিশের অর্ধ শতাধিক সদস্য এই অভিযানে অংশ নেয়।

সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা শেষে পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ জাকির হোসেন মজুমদার বলেন,কোন সন্ত্রাসীর বান্দরবানে আশ্রয় হবে না এবং সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।সম্প্রতি বান্দরবানে খুন ও অপহরণ বেড়ে যাওয়ায় আজ পুলিশের পক্ষ থেকে এই সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে এবং এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরে বান্দরবানে খুন ও অপহরণ বেড়ে যায় এবং গতরাতে সদরের উজি হেডম্যান পাড়া নিজ খামার বাড়ী থেকে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অপহরণ করে নিয়ে যায় সাবেক পৌর কাউন্সিলর চথোয়াই মং মার্মাকে, আর এর পরপরই অবৈধ অস্ত্র ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে সাঁড়াশী অভিযানে নামে পুলিশ।