ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: বাংলাদেশের সীমান্ত ঘেঁষা ত্রিপুরার কৈলাসহর বিমানবন্দর চালু হতে যাচ্ছে। দীর্ঘ প্রায় ২৪ বছর পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকা এই বিমানবন্দরটি চালু হলে সুবিধা পাবেন বাংলাদেশের নাগরিকরাও। মৌলভীবাজার ও সিলেটের মানুষরা এই বিমানবন্দর দিয়ে ভারতের বিভিন্ন শহরে সহজে যাতায়াত করতে পারবে।

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গলের সীমান্ত ঘেঁষা ত্রিপুরার ঊনকোটি জেলার কৈলাসহর বিমানবন্দর। এবার সেখানেই বিমান পরিষেবা পুনরায় চালুর সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের পর এমনটাই জানিয়েছেন ঊনকোটি জেলার অতিরিক্ত জেলা শাসক এস. মগ।

এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়ার ডেপুটি জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশন আর পি রাজগুরু ও উত্তর পূর্বাঞ্চল এয়ারপোর্ট অথরিটির জেনারেল ম্যানেজার লামার উপস্থিতিতে ঊনকোটি জেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তদের নিয়ে কৈলাসহর বিমানবন্দরের পরিত্যক্ত অফিসে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়। পরে কর্মকর্তারা কৈলাসহর বিমানবন্দরের সীমানাসহ পরিকাঠামো পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শন শেষে ঊনকোটি জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এস মগ জানান, জমি অধিগ্রহণ না করে বর্তমান বিমানবন্দরের পরিকাঠামো কিছুটা উন্নত করার চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি, খুব শিগগিরই ১৮ আসনের ছোট প্লেন চালানোর বিষয়ে উদ্যোগ নিয়েছে এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়া। সব ঠিকঠাক থাকলে ২০১৮ সালের শেষ দিকে ছোট প্লেন পরিষেবা চালু হবে।