ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: নাটোরের দিঘাপতিয়ার একটি বাড়ি থেকে জঙ্গি সন্দেহে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় সেখান থেকে পাঁচটি ককটেল, ল্যাপটপ, তিনটি ছোরা এবং জেহাদি বই উদ্ধার করা হয়।

আজ মঙ্গলবার ভোরে দিঘাপতিয়ায় উত্তরা গণভবনের পেছনের একটি বাড়ি থেকে তাদেরকে আটক ও মালামাল উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- নাটোরের বাগাতিপাড়ার জামনগর পশ্চিমপাড়া মহল্লার মৃত শুকুর আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম, চাপাপুকুর উত্তরপাড়া মহল্লার ভিকু মণ্ডলের ছেলে ফজলুর রহমান, সিংড়ার আড়কান্দি পশ্চিমপাড়া মহল্লার ইউসুফ আলী মিয়ার ছেলে আনিসুর রহমান আনিস এবং নলডাঙ্গা খোলাবাড়িয়া গ্রামের ফজলার রহমানের ছেলে জাকির হোসেন জাকির।

নাটোরের পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার সাংবাদিকদের জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিঘাপতিয়া উত্তরা গণভবনের পেছনের এলাকায় প্রাচীরঘেরা ইকবাল হাজির দুইটি বাড়িতে সন্দেহভাজন কয়েকজন অপরিচিত লোকের আনাগোনা লক্ষ্য করা যায়। তারা গোপন বৈঠক করছেন এমন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল সোমবার মধ্যরাত থেকে বিপুল সংখ্যক পুলিশ বাড়ি দুটি ঘিরে রাখে।

রাতের অন্ধকারে বাড়িতে অভিযান না চালিয়ে দিনের আলো ফুটে ওঠার অপেক্ষায় থাকে পুলিশ। পরে আজ মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৬টার দিকে পুলিশ তাদের আস্তানায় অভিযান শুরু করে। প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আস্তানা থেকে চার সন্দেহভাজন জঙ্গিকে আটক করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

পরে আটকদের পুলিশের কার্যালয়ে নেওয়া হয়। তাদেরকে নিয়ে যাওয়ার পর ওই বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে পাঁচটি ককটেল, ল্যাপটপ, তিনটি ছোড়া, বেশ কিছু জেহাদি বই উদ্ধার করা হয়। অপর বাড়িটিতে কেউ ছিল না। বর্তমানে আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। জিজ্ঞাসাবাদের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে পুলিশ সুপার জানান।