আশুগঞ্জ প্রতিনিধি::

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনের আশুগঞ্জে স্থগিত হওয়া তিনটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলছে।

বুধবার সকাল ৮টা থেকে এ ভোটগ্রহণ শুরু হয়, একটানা চলছে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এই তিন কেন্দ্রে ২০টি বুথে ভোটগ্রহণ চলছে।

এদিকে তিনটি কেন্দ্রে উপনির্বাচনে ভোটাররা সকাল ৮টার আগে থেকেই ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে লাইন ধরতে দেখা গেছে।

তিন কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ কেন্দ্র যে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে রিটার্নিং কর্মকর্তার পক্ষ থেকে ব্যাপক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

তিন কেন্দ্রের মোট ভোটার ১০ হাজার ৫৭২ জন। এর মধ্যে যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে তিন হাজার ৮৪০, সোহাগপুর দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে তিন হাজার ১৫ জন ও বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে তিন হাজার ৭১৭ জন।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রিটার্নিং কর্মকর্তা হেদায়েত-উদৌলা খান বলেন, উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ শান্তিপূর্ণ করতে ৩৩৯ পুলিশ, ২ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। কেউ কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করলে তা কঠোর হাতে দমনের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দেয়া আছে।

তা ছাড়া তিনটি কেন্দ্রে সার্বক্ষণিক তদারকির জন্য তিন নির্বাহী ম্যাজিট্রেট মোতায়েন করা হয়েছে।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, আশুগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সোহাগপুর দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৩০ ডিসেম্বর ভোটের দিন মারামারি ও কেন্দ্র বন্ধ থাকার কারণে ১ জানুয়ারি নির্বাচন কমিশন থেকে কেন্দ্রগুলোতে পুনঃভোটের জন্য ৯ জানুয়ারি সময় বেঁধে দেয়া হয়।

সেই অনুযায়ী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়। ভোটগ্রহণে কেন্দ্রগুলোতে উপজেলার বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তিন প্রিসাইডিং কর্মকর্তা, ২০ সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ও ৪০ পোলিং কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করছেন।

উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর গোলযোগের কারণে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের আশুগঞ্জ উপজেলার তিনটি কেন্দ্র বন্ধ করে দেয় নির্বাচন কমিশন। এখানে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী উকিল আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা মঈন উদ্দিনের চেয়ে ১০ হাজার ১৫৯ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন।

ধানের শীষ প্রতীকে পড়েছে ৮২ হাজার ৭২৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র হিসেবে দাঁড়ানো আওয়ামী লীগ প্রার্থী কলার ছড়ি প্রতীকে ৭২ হাজার ৫৬৪ ভোট পান।