শাহজাহান হেলাল, ফরিদপুর জেলা প্রতিনিধি:: ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নের পাঁচ ময়না থেকে গত বুধবার সন্ধ্যায় পাঁচ ময়না গ্রামের জাহিদ মুন্সিকে (২৫) একটি পালসার চোরাই মোটরসাইকেল সহ আটক করে থানায় নিয়ে আসে এসআই সুকান্ত। পরের দিন বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতে প্রেরন করে সোপর্দ । উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি তবিবুর রহমান মিন্টুর সুপারিশে ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে থানা থেকে মোটরসাইকেলও ছেড়ে দেয়।

এ ব্যাপারে তবিবুর রহমান মিন্টু বলেন, মোটরসাইকেলের বিষয়টি আমি শুনেছি। আমি রাজবাড়ি এসেছি পরে কথা বলবো। জাহিদ মুন্সির আপন চাচা মো. লাল মিয়া বলেন, থানা থেকে মোটরসাইকেল আনতে এসআই সুকান্ত ৩০ হাজার টাকা নিয়েছে। আর আমার ভাতিজা জাহিদকে সাধারণ ভাবে চালান করেছে কোর্টে থেকে জামিন হয়েছে।

অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমানের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি বাহিরে ছিলাম কি করছে জানি না। তবে বিষয়টি দেখছি। উল্লেখ্য একাধিক সূত্র জানায় জাহিদ মুন্সি দীর্ঘদিন চোরাই মোটরসাইকেলের ব্যবসা করে আসছে।