রাজবাড়ী প্রতিনিধি: রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার মাছপাড়া ইউনিয়নের মেঘনা খামারপাড়া গ্রাম থেকে পার্শ্ববতি জেলা কুষ্টিয়ার খোকশা উপজেলার ইউপি মেম্বার মাজেদ মন্ডল (৫৫) লাশ উদ্ধার করছে পাংশা থানা পুলিশ।

নিহত মেম্বার মাজেদ মন্ডল কুষ্টিয়া জেলার খোকশা উপজেলার জয়েনতী হাজড়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য ও মৃত সোরাব মন্ডলের ছেলে।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, মাজেদ মন্ডল গত ৯জুন শনিবার রাত ৯টার দিকে তিনি খোঁজ হয়। পরে ১০জুন রোববার সকাল ৯টার দিকে মন্ডলের বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পাংশা থানার ওসি আওসান উল্লাহ ওসি জানান, সকালে স্থানীয়রা লাশ দেখে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে।তিনি বলেন দ্রুত সময়ের মধ্যে এ হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে।

নিহতের মেয়ে বেলী খাতুন জানান, শনিবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে তার পিতা বাড়ি থেকে মুঠোফোনে ফোন কারোর সাথে কথা বলে সে বাড়ি থেকে ফুলবাড়ী বাজারে ওই ব্যাক্তির সাথে কথা বলার জন্য বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। পরে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় রাজবাড়ী পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি, সহকারী পুলিশ সুপার পাংশা সার্কেল মো. ফজলুল করিম, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নিহতের বাড়ী থেকে প্রায় ২কিলোমিটার দূরে অপর জেলায় তাকে স্বাশ রোধ করে হত্যা করে ফেলে যাওযায় এলাকা বাসি উৎকন্ঠার মধ্যে রয়েছে।

এদিকে নিহত ইউপি সদস্যের ব্যবহারকৃত মোটর সাইকেলটি পাংশা শহরের দরগাতলা এলাকা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় সকাল ১১ টার দিকে উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের পরিবারের দাবি কেউ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তাকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে।

তিন বরের নির্বাচিত ইউপি সদস্য নির্মম হত্যা হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।