শামীম আহসান মল্লিক, মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার খাউলিয়া ইউনিয়নের সন্ন্যাসী বাজারের সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতা সহ আপন ৪ ভাই আহত হওয়ার ঘটনায় রোববার মামলা হয়েছে। তাদের পিতা গয়জদ্দিন শেখ বাদি হয়ে মোরেলগঞ্জ থানায় এ মামলা দায়ের করেন।
অভিযোগে জানা গেছে, ঘটনার দিন শনিবার প্রতিদিনের ন্যায় যুবলীগের ১ নং ওয়ার্ডের সভাপতি আলমগীর শেখ (৩০), দুই ভাই ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল শেখ(২৩),মিন্টু শেখ(২৭) ও অপর ভাই লিটন শেখ (৩৫) তাদের সন্ন্যাসী বাজারের ‘জুয়েল ইলেকট্রনিক্স’ এর দোকানে দোকনদারী করছিল। দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মোনাচ্ছের বয়াতীর পুত্র লোকমান বয়াতী, কেসি চালিতাবুনিয়া গ্রামের মোসলেম হাওলাদারের পুত্র গফফার হাওলাদারের নেতৃত্বে ২৩/২৪ জন সশস্ত্র দুর্বৃত্ত দোকানের ভিতরে প্রবেশ করে এলোপাথাড়ি মারপিট ও কুপিয়ে ৪ ভাইকে রক্তাক্ত জখম করে । দুর্বৃত্তরা দোকান তছনছ করে ক্যাশ বাক্স তালা ভেঙ্গে নগদ ১ লক্ষ ২৩ হাজার টাকা ও অন্যান্য মালামাল সহ ২ লক্ষ ১৭ হাজার টাকার মালামাল লুটে নেয়। সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত যুবলীগ নেতা আলমগীর শেখ, জুয়েল শেখ ও মিন্টু শেখ মোরেলগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
এ ঘটনায় গয়জদ্দিন শেখ বাদি হয়ে লোকমান বয়াতী, গফফার হাওলাদার, মনির শেখ সহ ১৬ জন নামীয় ও ৭/৮ জন অজ্ঞাতনামা আসামী করে মামলা দায়ের করেন। এলাকাবাসী জানায়, হামলাকারীরা বিভিন্ন অপরাধমুলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। আসামী গফফার হাওলাদারের বিরুদ্ধে জাতীয় নির্বাচনের সময় ভোট কেন্দ্রে অগ্নিসংযোগ, নাশকতার মামলা চলমান ও আসামী মনির চিহিৃত মাদক বিক্রেতা।