বখতিয়ার রহমান,পীরগঞ্জ(রংপুর)প্রতিনিধি॥ রংপুরের পীরগঞ্জে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় স্কুলছাত্রীকে হত্যার চেষ্ঠা করা হয়েছে। আর এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ সাফি নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলা সদরের উজিরপুর নামকস্থানে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও আহত ছাত্রীর মা’র সুত্র মতে, উপজেলার রামনাথপুর ই্উনিয়নের রামনাথপুর গ্রামের পলাশ মিয়ার কন্যা উপজেলা সদরের কছিমন নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০ শ্রেণীর ছাত্রী আরজিনা আকতার স্বর্ণাকে দীর্ঘদিন থেকে একই গ্রামের আব্দুল হাকিম মিয়ার পুত্র সাফি মিয়া প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। কিন্তু স্বর্ণা তার প্র্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় সাফি ও তার সহযোগিরা স্বর্ণাকে জীবন নাশের হুমকি দিয়ে আসতো। এ ঘটনায় গত ১৬-৫-১৭ইং তারিখে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করার পরও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেননি। এমতাবস্থায় ওই বখাটের হাত থেকে রক্ষা পেতে স্বর্ণাকে প্রায় এক বছর আগে তার খালু উজিরপুর গ্রামের ফারুক মিয়ার বাড়িতে রেখে যায়। পরবর্তীতে খালুর বাড়ি থেকে নিয়মিত উপজেলা সদরের কছিমন নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০ শ্রেণীতে পড়া-শুনা করতো স্বর্ণা। এক পর্যায়ে গত বুধবার স্বর্ণা স্কুল শেষে কোচিং সেন্টার থেকে খালুর বাড়ি ফেরার পথে সন্ধ্যার পূর্ব মুহূর্তে উজিরপুর নামক স্থানে পৌঁছলে বখাটে সাফি ও তার এক সহযোগিসহ মোটর সাইকেল যোগে পথরোধ করে স্বর্ণার মাথায় রড দিয়ে আঘাত করে। এতে সে চিৎকার দিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। স্বর্ণার বাবা পলাশ মিয়া জানায় তার মেয়ের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ডাক্তার তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার কথা বলেছেন।

এ ব্যাপারে স্বর্ণার মা সেলিনা বেগম বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছে। থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম জানান, এ ঘটনায় মূল আসামী সাফিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।