জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না, লালমনিরহাট প্রতিনিধি ॥ মাদক ব্যবসায় সহযোগীতা না করে প্রশাসনকে অবগত করার অপরাধে আসাদুল হক (১৫) নামক এক স্কুল পড়ুয়া ছাত্রকে কুপিয়ে আহত করলো মাদক ব্যবসায়ীরা। আহতকে স্কুল ছাত্রকে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ গোবধা গ্রামে। এঘটনায় বুধবার আদিতমারী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগে জানা গেছে, ভেলাবাড়ী ইউনিয়নের ঝাড়িরঝাড় গ্রামের ফজল মিয়ার ছেলে একাধিক মাদক মামলার আসামী কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ফারুক মিয়া (৪২), তার অন্যতম সহযোগী আবেদ মিয়া (৩২) ও জরিপ মিয়া (৩৫) এলাকার আলোচিত মাদক ব্যবসায়ী। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। তারা এলাকায় কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিতি। এদের মাদক ব্যবসার বিরুদ্ধে এলাকার কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায় না। প্রতিবাদ করলে তার জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। হারাতে হয় হাত-পাসহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ এমনকি জীবনও চলে যেতে পারে।

দুর্গাপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ গোবধা এলাকার দিনমজুর করিম মিয়ার স্কুল পড়ুয়া ছেলে আসাদুলের সহযোগীতায় ওইসব মাদক ব্যবসায়ী পুলিশের হাতে ধরা পড়েন। মাদক ব্যবসায়ীদের ধারনা আসাদুল তাদের মাদক ব্যবসার খবর প্রশাসনকে জানান, এরই জের ধরে গত ৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় আসাদুল হককে অন্যের মাধ্যমে কৌশলে ডেকে নির্জন এলাকায় নিয়ে যান। সেখানে আগে থেকেই লুকিয়ে থাকা মাদক ব্যবসায়ী ফারুক মিয়া, তার সহযোগী আবেদ মিয়া, জরিপ মিয়ার কাছাকাছি পৌঁছা মাত্র হত্যার উদ্দেশে আসাদুলকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলাপাথারী কোপ মারতে থাকেন। এতে আসাদুলের হাত, পা, ডান ঘারের উপরে মারাত্মক জখম সৃষ্টি হয়। তার আত্মচিৎকারের এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়। পরে তাকে মারাত্বক আহত অবস্থা লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। যার রেজি নং-৮৯৮৯/২৫, বেড নং-৪৫, ৩য় তলা, তাং ০৮.০৯.১৭।

এ ব্যাপারে আসাদুলের দিনমজুর বাবা করিম মিয়া বাদী হয়ে বুধবার সন্ধ্যায় তিন জনের নাম উল্লেখ করে আদিতমারী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।