জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:: মাদক নির্মূলে বিশেষ অবদানের জন্য টানা দ্বিতীয় বারের মত ‘গ গ্রুপে’ দেশ সেরা এবং চোরাচালানে ‘ গ গ্রুপে ‘ দ্বিতীয় দেশ সেরা নির্বাচিত হয়েছে লালমনিরহাট জেলা পুলিশ ।
বুধবার (১০ জানুয়ারি) পুলিশ সপ্তাহের সমাপনী অনুষ্ঠানে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক এ উপলক্ষে লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হকের হাতে পৃথক দুইটি ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন।
ভারতীয় সীমান্তবর্তি এ জেলার মাদক নিয়ন্ত্রণের চ্যালেঞ্জ নিয়ে ২০১৬ সালের ১৯ জুলাই পুলিশ সুপার হিসেবে যোগ দেন এসএম রশিদুল হক। তার অভিযানে ও জেলায় কর্মরত পুলিশ সদস্যদের তৎপরতায় প্রতিনিয়ত মাদকসহ ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করা হয়। একপর্যায়ে পুলিশি তৎপরতায় দেড় সহ¯্রাধিক মাদক ব্যবসায়ী আনুষ্ঠানিকভাবে মাদক ছেড়ে দিয়ে নতুন জীবনযাপনের শপথ নেন। পাল্টে যেতে থাকে জেলার মাদকের চিত্র।
শুধু অভিযানেই সীমাবদ্ধ ছিলো না। মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদসহ সামাজিক বিভিন্ন অপরাধ নির্মূলে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষার্থী ও পাড়া-মহল্লায় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সভা সেমিনারও করেছেন লালমনিরহাট পুলিশ সুপার। মাদক উদ্ধারে ব্যাপক সাফল্য অর্জনের জন্য গত বছর পুলিশ সপ্তাহ উদযাপন অনুষ্ঠানে ‘গ গ্রুপে’ সেরা মাদক উদ্ধারকারী হিসেবে মনোনীত হন লালমনিরহাট পুলিশ সুপার। এ বছরেও সাফল্যের ধারা অব্যহত রেখে টানা দ্বিতীয় বারের মত মদক নির্মূলে ‘ গ গ্রুপে’ দেশ সেরা ক্রেস্ট গ্রহন করেন লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক।
এ বছর মাদকের সাথে চোরাচালান রোধে ‘গ গ্রুপে’ দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে লালমনিরহাট জেলা পুলিশ। শুধু তাই নয় গত দেড় বছরে রংপুর রেঞ্জের সেরা পুলিশ সুপার হিসেবে ৬টি ক্রেস্ট অর্জন করেন লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক।
লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক জানান, এ অর্জন লালমনিরহাটবাসীর, এ অর্জন লালমনিরহাট পুলিশের প্রতিটির সদস্যের। এসময় জেলাকে অপরাধ মুক্ত করতে সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।