রবিবার, ২৩ Jul ২০১৭ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৪ English Version

সারাদেশ - রাজশাহী বিভাগ

নাটোরে পরিবহন ধর্মঘট : দুর্ভোগে যাত্রীরা

এসএম মনজুর-উল-হাসান, নাটোর থেকে॥ দুই চালকের সাজার প্রতিবাদে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে সারাদেশের সাথে নাটোরেও অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট চলছে। ধর্মঘটের কারনে নাটোর থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস-ট্রাক ছেড়ে যায়নি। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন বিভিন্ন পথের যাত্রীসহ ব্যবসায়ীরা। ধর্মঘটের বিষয়টি অনেকেই অবগত না থাকায় সকাল থেকে যাত্রীরা বাসস্ট্যান্ডে বাসের অপেক্ষায় ভিড় করতে থাকে। কিন্তু যানবাহন চলাচল না করায় ফের তাদের রিকশা, সিএনজি বা বিকল্প যানবাহনে করে ফিরতে হচ্ছে বাড়িতে। কেউ কেউ ট্রেনে যাওয়ারও চেষ্টা করছেন। এতে করে ট্রেনের ওপর চাপ বাড়ছে। আকস্মিক ধর্মঘটের কারণে আটকে পড়েছে মাছ, সবজিসহ পণ্যবাহী ট্রাক। বিশেষ করে পচনশীল পণ্য নিয়ে বিপাকে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা। গুরুদাসপুরের পিয়াজ ব্যবসায়ী আব্দুস সালাম জানান, গতকাল সোমবার নাটোরের পাটুল হাটে এক ট্রাক পিয়াজ কিনেছেন। কিন্তু ধর্মঘটের কারনে সেই পিয়াজ ঢাকায় নিয়ে যেতে না পারায় দুঃশ্চিন্তায় আছেন তিনি। নলডাঙ্গার শেখপাড়া গ্রামের মাছ চাষী আখতারুজ্জামান জানান, ঢাকার কাওরান বাজারে মাছ বিক্রির উদ্দ্যেশে তিনি পুকুর থেকে এক ট্রাক মাছ উত্তোলন করেছেন। পরিবহন ধর্মঘটের কারনে মাছ ঢাকায় নিতে পারলেন না। অবশেষে স্থানীয় বাজারে কম দামে মাছগুলো বিক্রি করেছেন। ধর্মঘটের বিষয়টি তার জানা ছিল না। বড়হরিশপুর বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে, দূরপাল্লার কোন বাস টার্মিনাল থেকে ছেড়ে যায়নি। কাউন্টারের সামনে যাত্রীরা বসে রয়েছেন। যে সব বাস অগ্রিম টিকিট বিক্রি করেছিল সেগুলো ফেরত নেওয়া হচ্ছে। টার্মিনালের অধিকাংশ বাস কাউন্টার খোলা থাকলেও সেগুলো থেকে কোন টিকিট বিক্রি হচ্ছে না। যারা টার্মিনালে এসেছেন তাদের কেউই জানতেন না যে পরিবহন ধর্মঘট চলছে। বাস টার্মিনালে ও আশেপাশে রাস্তার ওপর শত শত মাল বোঝাই ট্রাক দাঁড়িয়ে আছে। ধর্মঘটের কারনে তারা কাঁচামাল নিয়ে গন্তব্যস্থলে পৌছাতে পারছেন না। বড়হরিশপুর বাস টার্মিনালে ন্যাশনাল ট্রাভেলসের মাষ্টার ফিরোজ হোসেন জানান, সকাল থেকেই ঢাকাগামি অনেক যাত্রী তাদের কাউন্টারে এসেছেন। গাড়ি চলাচল না করায় তাদের ফিরে যেতে হচ্ছে। যারা গতকাল অগ্রিম টিকেট কিনেছিলেন তাদের টিকিটের টাকা ফেরত দেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, বাস স্ট্যান্ডের সকল কাউন্টারে একই অবস্থা বিরাজ করছে। কতদিন এ ধর্মঘট চলবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট চলছে। তবে তিন দিনের আগে শেষ হবে বলে মনে হয় না। নাটোর জেলা ট্রাক, ট্যাংকলরি ও কার্ভাডভ্যান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শেখ ইয়াকুব আলী জানান, ধর্মঘটের কারণে ঢাকা, চট্রগ্রাম, সিলেটসহ আন্তঃজেলা বাস, ট্রাকসহ সকল যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এছাড়া এক উপজেলা থেকে আরেক উপজেলাতেও কোন বাসসহ সকল যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ধর্মঘটের কারণে জেলার সঙ্গে জেলার ও উপজেলার সঙ্গে উপজেলার যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। তিনি বলেন, কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত এই ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে। নাটোরের অতিরিক্তি পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম জানান, ধর্মঘটের কারনে কোথাও কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সে বিষয়ে পুলিশ সজাগ রয়েছে। ধর্মঘটের কারনে এই রুটের সকল যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে সকালের দিকে কিছু বাস ও ট্রাক চলাচল করতে দেখা গেছে।

বগুড়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ ডাকাত নিহত

ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: বগুড়ার কাহালু উপজেলার পাঁচপীর এলাকায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই ডাকাত নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাত সোয়া ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- দুলাল (৪৫) ও ইব্রাহীম (৪৪)। এসময় কাহালু থানার এএসআই ফিরোজ আলম ও কনস্টেবল বারিক আহত হয়। পুলিশের দাবি এরা ডাকাত দলের সদস্য। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ৫ রাউন্ড গুলি, একটি ম্যাগজিন ও কিছু দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। কাহালু থানার ওসি নুরে আলম সিদ্দিকী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মঙ্গলবার রাত সোয়া ১টায় পাঁচপীর এলাকায় একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। টহল পুলিশ টের পেয়ে সেখানে গেলে ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এসময় পুলিশ আত্মরক্ষায় পাল্টা গুলি ছোড়ে। গোলাগুলি থামার পর এলাকার লোকজনের সহযোগিতায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুলাল ও ইব্রাহীমকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাদেরকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে ভোরে তাদের মৃত্যু হয়।

নাটোরে কিডনি চুরির অভিযোগে চিকিৎসক তিন দিনের হেফাজতে

নাটোর প্রতিনিধি॥ নাটোরে রোগীর শরীর থেকে কিডনি চুরির অভিযোগে আটক চিকিৎসককে তিন দিনের হেফাজতে নিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে সিভিল সার্জনের পক্ষে নাটোর সদর থানা থেকে অভিযুক্ত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ এম এ হান্নানকে হেফাজতে নেন নাটোর সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ আবুল কালাম আজাদ। এছাড়া আগামী তিন দিনের মধ্যে মেডিকেল বোর্ড গঠন করে ভুক্তভোগী রোগী আসমা বেগমের কিডনি অনুসন্ধানে সকল দায়িত্বও নিয়েছেন তিনি। অপরদিকে, তিন দিনের মধ্যে কিডনি অনুসন্ধান করতে না পারলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে মর্মে থানায় লিখিত ডায়েরি করেছেন রোগী আসমা বেগমের স্বামী ফজলু বিশ্বাস। নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মশিউর রহমান জানান, চিকিৎসক এম এ হান্নানের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ না থাকায় সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ আবুল কালাম আজাদের জিম্মায় ওই চিকিৎসককে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। যদি তিন দিনের মধ্যে রোগীর পরীক্ষা-নিরীক্ষায় কিডনি না থাকার বিষয়টি ধরা পড়ে তাহলে ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এ বিষয়ে নাটোর সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিসক ডাঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন , আসমা বেগমের পরিবার ও পুলিশ কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে নাটোর সদর হাসপাতালে আলোচনা শেষে সিদ্ধান্ত হয় অন্য কোন ক্লিনিকে অথবা হাসপতালে আইভিইউ ও রেনাল এনজিওগ্রামসহ বিভিন্ন পরীক্ষা করা হবে। এক্ষেত্রে জনসেবা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সেই ব্যয়ভার বহন করবে। অথবা রোগীর অভিভাবকরা অন্য কোথাও পুনরায় পরিক্ষা-নিরিক্ষা করাতে পারবেন। পরিক্ষায় কিডনি নেই প্রমাণিত হলে ফৌজদারী বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। একারণে সিভিল সার্জনের পক্ষ থেকে শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে চিকিৎসক ডাঃ এম এ হান্নানকে ছাড়িয়ে নেয়া হয়েছে। এসময় বিএমএ ও সাচিব নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এদিকে, ভুক্তভোগি বর্তমানে তার নিজ বাড়ি সিংড়া উপজেলার ছোট চৌগ্রামে অবস্থান করছেন। রবিবার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর জন্য রোগী আসমা বেগমকে রাজশাহীতে নেওয়া হবে। এ বিষয়ে রোগীর স্বামী ফজলু বিশ্বাস বলেন, রোগীর পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফলের পরই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে তিনি অভিযোগ করে বলেন, আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের সাথে পক্ষপাত মুলক আচরণ করছেন। এছাড়া পরীক্ষা-নিরীক্ষা তাদের পক্ষে আসবে না বলে তিনি আশংকা করছেন। উল্লেখ্য, কিডনিতে পাথর অপারেশনের নামে কিডনি চুরির অভিযোগে শুক্রবার নাটোরের বেসরকারী জনসেবা হাসপাতাল থেকে ডাঃ এম এ হান্নানকে আটক করে পুলিশ। গত এক বছর আট মাস আগে নাটোরের সিংড়া উপজেলার ছোট চৌগ্রামের ফজলু বিশ্বাসের স্ত্রী আসমা বেগমকে নাটোরের বেসরকারী জনসেবা হাসপাতালে কিডনিতে পাথর অপারেশন করেন রামেক হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা এমএ হান্নান। অপারেশনের পর থেকেই রোগী অসুস্থ হলেও সম্প্রতি আবারো ওই হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ডান পাশের একটি কিডনি না থাকার বিষয়টি ধরা পড়ে। এরপর আরো কয়েকটি স্থানে পরিক্ষা-নিরিক্ষা করে একই রিপোর্ট পাওয়া যায়।

নাটোরে ট্রাকচাপায় দুই আ.লীগ নেতা নিহত

ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: নাটোরের সিংড়া উপজেলার চৌগ্রাম ইউনিয়নের জোড়ব্রিজ এলাকায় ট্রাকচাপায় দুই আওয়ামী লীগ নেতা নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন- চামারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাখাওয়াত আলম বকুল (৪০) ও বিলদহর ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহবুব আলম মধু (৩৮)। আজ শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বিলদহর গোরস্থানে জানাজা শেষে তাদের দাফন করা হয়েছে। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, উপজেলা চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম ও সিংড়া মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ স্থানীয় শত শত মানুষ জানাজায় অংশগ্রহণ করেন। এর আগে, শুক্রবার রাতে সিংড়া বাজার থেকে ইটালি গ্রামে যাওয়ার জন্য মোটরসাইকেলে করে বিলদহর গ্রামের চামারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি সাখাওয়াত আলম বকুল (৪০) ও বিলদহর ৮নং ওর্য়াড আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহবুব আলম মধু (৩৮) রওনা হন। পথে রাত সাড়ে ৯টার দিকে তারা নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের জোড়ব্রিজ এলাকায় পৌঁছালে বগুড়াগামি একটি দ্রুতগামী ট্রাক তাদের পেছন দিক থেকে চাপা দিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের খাদে পড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই দুই আওয়ামী লীগ নেতা নিহত হন। সিংড়া থানার ওসি নাছির উদ্দিন মন্ডল জানান, এ ঘটনায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার পর থেকেই ট্রাকের ড্রাইভার ও হেলপার পলাতক রয়েছে। তবে ট্রাকটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সাঁথিয়ায় ১৪ মাস পর কবর থেকে শিশুর লাশ উত্তোলন

ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: পাবনার সাঁথিয়া উপজেলায় ১৪ মাস পর ময়না তদন্তের জন্য সাফিউল্লাহ (৪) নামে এক শিশুর লাশ কবর খুঁড়ে তোলা হয়েছে। সোমবার বিকালে উপজেলার আলোকচর গ্রামের কেন্দ্রীয় কবর স্থান থেকে ওই শিশুর লাশ তোলা হয়। থানা সূত্রে জানা যায়, বিকালে পাবনা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কায়ছারুল ইসলাম, ডাক্তার শারমীন শবনম, পাবনা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও আতাইকুলা থানা পুলিশের উপস্থিতিতে ওই শিশুর লাশ তোলা হয়। মৃত শিশু সাফিউল্লাহ আলোকচর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ মাস আগে প্রতিবেশী খোরশেদ আলম মাস্টারের বাড়ির পিছনের পুকুর থেকে ওই লাশ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পায় এলাকাবাসী। ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ দাফন করা হয়। কিছুদিন পরেই খোরশেদ আলম মাস্টারের পুকুর পাড়ে বাঁশ ঝাড়ে মাটিতে পুঁতে রাখা শিশু সাফিউল্লাহ ব্যবহার করা স্যান্ডেল পাওয়া যায়। এতে সফিউল্লাহকে হত্যা করা হয়েছিল বলে সন্দেহ করা হয়। এ ব্যাপারে চাচা মিজানুর রহমান বাদী হয়ে প্রতিবেশী মোখলেছুর রহমানকে প্রধান আসামি করে আতাইকুলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর-০৩ তারিখ- ০৯/১০/২০১৬ইং। ধারা ৩৬৪/৩০২/৩৪ দণ্ডবিধি। পাবনা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক ইসলাম বলেন, তকে হত্যা করা হয়েছিল, নাকি পানিতে ডুবে মারা গেছে তা নিশ্চিত হতেই শিশুটির লাশ কবর থেকে তোলা হয়। ডিএনএ টেস্টের জন্য লাশটি ঢাকা পাঠানো হবে জানান তিনি।

আত্রাইয়ে ভুটভুটি-ট্রলি মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি॥ নওগাঁর আত্রাই উপজেলার রসুলপুর নামক স্থানে ভুটভুটির সঙ্গে ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই ব্যক্তির মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় আরও একজন গুরুত্বর আহত হয়েছে। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে। জানা যায়, সকালে আত্রাই মাছ বাজার হতে যাত্রীবাহী একটি ভুটভুটি ওই স্থানে পৌঁছিলে বিপরীত দিকে হতে আসা ট্রলির সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধে। এসময় ভুটভুটি চালক ও এক যাত্রী গাড়ি থেকে ছিটকে পড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। এবং একজন গুরুত্বর আহত হন। নিহতরা হলেন, উপজেলার রসুলপুর গ্রামের মোঃ আমজাদ হোসেনের পূত্র মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন (৩৫), শ্রীঃ অনাথ হালদারের পূত্র শ্রীঃ বিশ্বনাথ হালদার (২৬)। গুরুত্বও আহত হন একই গ্রামের শ্রীঃ মংলা হালদারের পূত্র শ্রীঃ লক্ষণ হালদার (৩৮)। আহত শ্রীঃ লক্ষণকে তাৎক্ষনিক আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে গুরুত্বর অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে বলে জানা যায়। এ ব্যাপারে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বদরদ্দোজা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ দুর্ঘটনায় দুই জনের মৃত্যু হয়েছে এবং একজন গুরুত্বর আহত হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নাটোরে যাত্রীবাহী বাস উল্টে খাদে, নিহত ৫

ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: নাটোরের সিংড়া উপজেলার জোলারবাতা এলাকায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে খাদে পড়ে ৫ জন নিহত হয়েছেন। এঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত আরও ২০ জন। আজ রোববার সকাল সোয়া ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তিদের নামপরিচয় জানা যায়নি। আহত ব্যক্তিদের সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছে। নাটোরের বনপাড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল-মামুন জানান, আজ সকালে বগুড়া থেকে নাটোর যাচ্ছিল একটি বাস। পথে জোলারবাতা এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হন।

আত্রাইয়ে সরিষা ফুলের মৌ মৌ গন্ধে মুখরিত ফসলের মাঠ

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ)প্রতিনিধি:: নওগাঁর আত্রাইয়ের প্রতিটি মাঠ জুড়ে সরিষা ফুলের মৌ মৌ গন্ধে মুখরিত ফসলের মাঠ। উপজেলার প্রতিটি মাঠে এখন শুধু সরিষা ফুলের হলুদ রঙের চোখ ধাঁ-ধাঁলো বর্ণীল সমরাহ। মৌমাছির গুনগুন শব্দে ফুলের রেণু থেকে মধু সংগ্রহ আর প্রজাপতির এক ফুল থেকে আরেক ফুলে পদার্পন এ অপরুপ প্রাকৃতিক দৃশ্য সত্যিই যেন মনো মুগ্ধকর এক মূহুর্ত। ভোরের বিন্দু বিন্দু শিশির আর সকালের মিষ্টি রোদ ছুঁয়ে যায় সেই ফুলগুলোকে। এখন শুধু ভালো ফলনের আশায় উপজেলার কৃষকেরা রাতদিন পরিশ্রম করে যাচ্ছে। কৃষকের পাশাপাশি বসে নেই কৃষি কর্মকর্তারাও। এদিকে, চলতি রবিশস্য মৌসুমে কোন প্রকার প্রাকৃতিক দূর্যোগ হানা না দেওয়ায় এবং সরিষা চাষের পরিবেশ অনুকূলে থাকায় সরিষার পাশাপাশি আলু, গম ও ভোট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভবনা রয়েছে। গ্রামীণ জনপদের কৃষকরা এই সরিষা যথা সময়ে ঘরে তুলতে পাড়লে এবং বিক্রয় মূল্য ভাল পেলে বন্যার কারণে রোপা-আমন ধানের ক্ষতি পুষিয়ে ইরি-বোরো ধান চাষে কৃষকদের আগ্রহ বৃদ্ধি পাবে বলে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা মনে করছেন। জানা গেছে, চলতি মৌসুমে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ২ হাজার ৫শত হেক্টর জমিতে সরিষা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। শুরুতেই সরিষা ক্ষেতে পোকা-মাকড়ের আনাগোনা দেখা দিলেও মাঠ পর্যায়ে সরিষা চাষিদেরকে কৃষি অফিসের পক্ষ থেকে যথাযথ পরামর্শ ও প্রত্যক্ষ কারিগরী সহযোগিতার কারণে সরিষা ক্ষেত অনেকটা রোগ-বালাই মুক্ত হওয়ায় বাম্পার ফলনের আশা করছেন কৃষকরা। যথা সময়ে সরকারী পর্যায় থেকে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে মান সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে কৃষকের মাঝে সরিষার বীজ সহ অন্যান্য কৃষি উপকরণ বিতরণ করা হলেও মাঠ পর্যায়ে বেশ কিছু জমি চাষের উপযুগী না হওয়ায় কিছু কৃষকরা ঠিক সময়ে সরিষা বপণ করতে পাড়েনি। ফলে তারা অন্যান্য রবিশস্য চাষের দিকে ঝুকছেন। আগামী ইরি-বোরো ধান উৎপাদনের প্রস্তুতি হিসেবে প্রান্তিক চাষিরা কিছুটা বাধ্য হয়েই অন্যের জমি বর্গা নিয়ে সরিষা, আলু, গম ও ভোট্টা চাষে অতি আগ্রহী হয়ে উঠেছে। উপজেলার শাহাগোলা, ভোঁপাড়া, মনিয়ারী ও আহসানগঞ্জ ইউনিয়নে সবচেয়ে বেশি সরিষা চাষ হয়েছে বলে কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে। উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের কৃষক আজাদ প্রাং জানান, আমি এবছর ২ বিঘা জমিতে সরিষার চাষ করেছি। কৃষি অফিস থেকে কিছু বীজ পেলেও আমি নিজে বাঁকিটা কিনে জমিতে বপণ করেছি। সরিষা গাছে প্রচুর পরিমান ফুল ধরায় মনে হচ্ছে এবার সরিষার আশানুরুপ ফলন পাব। দাম ভাল হলে পুরোদমে ইরি-বোরো চাষ করতে পারবো। ভোঁপাড়া গ্রামের সরিষা চাষি মনিরুল ইসলাম জানান, আমি চলতি মৌসুমে প্রায় ২বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করেছি। কোন প্রকার দূর্যোগ ও রোগবালাই না থাকায় এবছর সরিষার বাম্পার ফলন পাব বলে আমি আশা করছি। উপজেলা কৃষি অফিসার কে এম কাউছার জানান, এবারে আত্রাই উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে বিগত বছরের তুলনায় কিছুটা কম সরিষার আবাদ হয়েছে তবে কৃষকেরা অন্যান্য আবাদে ঝুকেছে। যথা সময়ে জমি চাষ যোগ্য হওয়ায় এলাকার কৃষকরা সুযোগ বুঝে সরিষা চাষ করেছে। কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে তাদেরকে যথাযথ পরামর্শ ও পরিচর্যার বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। প্রাকৃতিক দূর্যোগে কোন প্রকার ক্ষতি না হলে আত্রাই উপজেলায় সরিষা আবাদের বাম্পার ফলনের সম্ভবনা রয়েছে। শুধু তাই নয় সরিষা চাষের জমিগুলো উর্ব্বরতা বেশি থাকায় কৃষকরা ইরি-বোরো চাষেও এর সুফল পাবে।

রাণীনগরে অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত মেহেদির পাশে জেলা প্রসাশক

নাজমুল হক নাহিদ, নওগাঁ প্রতিনিধি:: নওগাঁর রাণীনগরে অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত মেহেদি হাসান (৮) এর বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর নওগাঁর জেলা প্রশাসক ড: মো: আমিনুর রহমান তার সহযোগীতার হাত নিয়ে ছুটে গেলেন রাণীনগর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামে মেহেদির বাড়ীতে। গত ৮ বছর ধরে অজানা এই রোগে আক্রান্ত মেহেদির দুর্বিষহ জীবন-যাপনের খবর বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশের পর নওগাঁর জেলা প্রশাসক জানতে পেরে গত মঙ্গলবার বিকেলে মেহেদির চিকিৎসার খোঁজ খবর নিতে তার বাড়িতে যান। তিনি ওই পরিবারকে আশ্বাস দিয়ে বলেন, মেহেদির চিকিৎসার জন্য এসপ্তাহের মধ্যেই নওগাঁর সিভিল সার্জনকে দেখিয়ে তার পরামর্শক্রমে দেশের সরকারী পর্যায়ে সর্বোচ্চ হাসপাতালে সু-চিকিৎসার জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তাৎক্ষনিকভাবে তার মাধ্যমে স্থানীয় সংসদ সদস্য মো: ইসরাফিল আলম এমপি’র পক্ষ থেকে ৫ হাজার টাকার চেক ও জেলা প্রশাসক নিজে নওগাঁ যাতায়াত খরচ বাবদ কিছু নগদ অর্থ মেহেদিকে প্রদান করেন এবং সরকারি পর্যায়ের সহযোগিতার জন্য মেহেদির বাবা আজাদকে তার বরাবর একটি আবেদন দেওয়ার জন্য বলেন। জানা গেছে, ভবানীপুর গ্রামের আবুল কালামের ছেলে মেহেদি হাসান জন্মের মাত্র ১৩ দিন পর থেকেই শরীরের বিভিন্ন অংশে চামরা ফেটে রক্ত ঝরতে থাকে। বয়স বাড়ার সাথে সাথে পাল্লা দিয়ে গোটা শরীরে বিস্তার লাভ করে। এতে করে তার চলাফেরা, খাওয়া দাওয়াসহ শারীরিক নানান যন্ত্রনায় দীর্ঘ ৮ বছর ধরে জীবন যাপন করছে সে। কিন্তু ভ্যানচালক গরীব পিতা প্রাথমিকভাবে ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা করাতে গেলে ডাক্তার রোগ সনাক্ত করতে না পারায় বিরল যন্ত্রনায় জীবন-যাপন করতে থাকে। এমন খবর বিভিন্ন জাতীয় ও স্থাণীয় পত্রিকায় প্রকাশ হলে নওগাঁর জেলা প্রসাশক ড: মো: আমিনুর রহমানের দৃষ্টিগোচর হলে তিনি ছুটে আসেন মেহেদির বাড়িতে। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোনিয়া বিনতে তাবিব, সহকারি কমিশনার (ভূমি) নিলুফা ইয়াসমিন, এক্সিকিউটিভ ম্যাজেস্ট্রেট জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হারুনুর রশিদ, গোনা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসানাত খান হাসান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক রেজাউল ইসলাম প্রমূখ।

প্রধান সংবাদ


সর্বশেষ সংবাদ

বসতবাড়ি উচ্ছেদের পর খোলা আকাশের নিচে রাত কাটাচ্ছে ৬ সদস্যের পরিবার!

নিজ বাড়িতে গুলিতে বিএনপি নেতা নিহত

আত্রাইয়ে আমন ধান কাটা-মাড়াই শুরু : কৃষকের মুখে হাসির ঝিলিক

একই ঘরে দুই স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ছাত্রদলে অচলাবস্থা

রাবি শিক্ষকের আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলায় সহকর্মী গ্রেপ্তার

জেলা স্বাধীন প্রেসক্লাবের সভাপতি ফারুক, সম্পাদক মরসালিন

রাণীনগরের ৩টি স্থগিত কেন্দ্রে চলছে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ

বাঘায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু! আহত দুই মেয়ে


আজকের সব সংবাদ

সম্পাদক : মো. আলম হোসেন
প্রকাশনায় : এ. লতিফ চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়:
সরদার নিকেতন
হাসনাবাদ, দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ, ঢাকা-১৩১১।

ফোন: ০২-৭৪৫১৯৬১
মুঠোফোন: ০১৭৭১৯৬২৩৯৬, ০১৭১৭০৩৪০৯৯
ইমেইল: ekantho24@gmail.com