শনিবার, ২২ Jul ২০১৭ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৪ English Version

সারাদেশ - ঢাকা বিভাগ - নরসিংদী

নরসিংদীতে দীপা হত্যা মামলায় আল আমিনের ফাঁসি

ই-কণ্ঠ অনলাইন ডেস্ক:: নরসিংদীর বেলাবোতে বছরখানেক আগে রিনভী আক্তার দীপা হত্যা মামলার বিচারে আল আমিন নামে একজনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত আল আমিন বেলাবো উপজেলার বাজনাবো গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে। সে এলাকার আখের রস বিক্রেতা। আজ মঙ্গলবার নরসিংদীর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক বেগম ফাতেমা নজীব এই রায় দেন।

ভোটগ্রহণে অনিয়ম: নরসিংদীতে সিইসিসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ই-কণ্ঠ অনলাইন ডেস্ক:: পৌর নির্বাচনে ভোটগ্রহণে অনিয়মের অভিযোগ এনে নরসিংদীতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থী মো. ওবায়দুর রহমান। গত ১২ জানুয়ারি দ্বিতীয় পর্যায়ে মাধবদী পৌরসভা নির্বাচনে ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ভোটগ্রহণের সময় ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল ও প্রথম যুগ্ম-জেলা জজ আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়। ট্রাইব্যুনাল আগামী ১ মার্চ পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেছেন। মামলার আরজিতে বাদী ওই ওয়ার্ডে নতুন করে ভোট গণনার দাবি করেছেন। মামলাটি বিকেলে হলেও রাত ১০টার পর বিষয়টি জানাজানি হয়। মামলায় সিইসি কাজী রকিবউদ্দীন আহমদসহ আরো আসামি করা হয়েছে। নরসিংদীর জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবু হেনা মোরশেদ জামান, রিটার্নিং কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, নরসিংদী সদরের নির্বাচন কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মো. জয়নাল আবেদীন, বিজয়ী কাউন্সিলর মো. শেখ ফরিদ ও অন্য পরাজিত প্রার্থী মো. ইসমাইল হোসেনকে।

নরসিংদীতে দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত -৫

অনলাইন ডেস্ক :< নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলায় দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো অন্তত ২৫ জন। আজ বুধবার বিকেলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের গোকুলনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর মহাসড়কে প্রায় এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। নিহতদের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। তবে তাদের মধ্যে দুজন নারী রয়েছেন। ভৈরব হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরুল আলম জানান, দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় ঘটনাস্থলেই একজন নারী ও একজন পুরুষ নিহত হয়েছেন। ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার পর আরো দুজন মারা যান। এ ছাড়া বেসরকারি আলশেফা জেনারেল হাসপাতালে আরো এক নারী মারা যান। দুর্ঘটনাকবলিত বাস দুটি সরিয়ে নেওয়ার পর যান চলাচল আবার স্বাভাবিক হয় বলে জানান ওসি। আহতদের ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তারা উদ্ধারকাজ চালাচ্ছেন। স্থানীয়রা ও পুলিশ জানায়, বিকেল পৌনে ৪টার দিকে গোকুলনগর এলাকায় ভৈরব থেকে ঢাকাগামী চলনবিল পরিবহন এবং ঢাকা থেকে কিশোরগঞ্জগামী অনন্যা সুপার পরিবহনের দুটি যাত্রীবাহী বাসের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।

ছেলের দায়ের কোপে চলে গেলেন মায়ের পর বাবাও

নরসিংদী প্রতিনিধি :> নরসিংদীতে ছেলের দায়ের কোপে মায়ের পর অবশেষে বাবাও চলে গেলেন না ফেরার দেশে। নয়দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে আজ বুধবার সকাল ৮টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওই বাবার মৃত্যু হয়। নিহত মতি মিয়ার (৬০) বাড়ি নরসিংদী সদর উপজেলার শীলমান্দি ইউনিয়নের তুলশীপুর গ্রামে। তাঁর তিন ছেলে ও দুই মেয়ে। পুলিশ, এলাকাবাসী ও ঘটনা সূত্রে জানা যায়, মতি মিয়া স্থানীয় এক সমবায় সমিতিতে কোষাধ্যক্ষ পদে চাকরি করতেন। সমিতির কর্তাব্যক্তিরা মতি মিয়ার বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তোলেন। একপর্যায়ে সমিতির লোকজন সন্ত্রাসীদের নিয়ে জোর করে মতি মিয়া ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের বাড়ি থেকে বের করে বাড়ি দখল নেন। নিরুপায় হয়ে মতি মিয়া বাড়ির সামনে একটি কলাবাগানে অস্থায়ী ঘর তুলে থাকছিলেন। ছেলে শরিফ মিয়া (২৫) খুব মর্মাহত হন। তাঁর প্রবাস জীবনের কষ্টার্জিত উপার্জন দিয়ে তৈরি করা বাড়ি থেকে বাবার ভুলের কারণে বের হতে হওয়ায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন তিনি। এ নিয়ে বাবা-মায়ের সঙ্গে শরীফের বেশ কয়েক দিন ধরে বাদানুবাদ হচ্ছিল। ১০ অক্টোবর বিকেলে মা-বাবার সঙ্গে বেশ ঝগড়া হয় শরিফ মিয়ার। ঝগড়ার একপর্যায়ে শরিফ উত্তেজিত হয়ে ঘরে থাকা ধারালো দা দিয়ে বাবাকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। এ সময় জমিলা বেগম (৫০) এসে ছেলেকে বাধা দিতে গেলে তাঁকেও দা দিয়ে কোপাতে থাকেন শরিফ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় জমিলার। মতি মিয়ার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এসে তাঁদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। মতি মিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে জরুরি ভিত্তিতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। আজ সকাল ৮টার দিকে মতি মিয়ার মৃত্যু হয়। এদিকে হত্যার ঘটনায় শরিফ মিয়াকে আসামি করে সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন তাঁর বড় ভাই। নরসিংদী সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সালাউদ্দিন মিয়া জানান, ঘটনার পরপরই গা ডাকা দেন শরিফ। তাঁকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

নরসিংদীতে ঘুষ নেওয়ার সময় ভূমি কর্তা গ্রেপ্তার

নরসিংদী প্রতিনিধি :> নরসিংদীর শিবপুর উপজেলায় ঘুষ নেওয়ার সময় উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা নূরুজ্জামানকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে দুদকের বিশেষ দল শিবপুরের সাধারচর ইউনিয়ন ভূমি কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে নূরুজ্জামানকে গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনায় দুদকের সহকারী পরিচালক মো. ফজলুল বারী বাদী হয়ে সন্ধ্যায় শিবপুর থানায় মামলা করেছেন। দুদক সূত্রে জানা যায়, সাধারচর ইউনিয়ন ভূমি কার্যালয়ের উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা নূরুজ্জামান বিভিন্ন কাজের জন্য স্থানীয়দের কাছ থেকে ঘুষ আদায় করতেন। ঘুষ না দিলে তিনি কোনো কাজ করতেন না। সাধারচরের কামাল হোসেন নামের এক ব্যক্তি তাঁর বাড়ির নামজারির জন্য ভূমি কার্যালয়ে গেলে নূরুজ্জামান তাঁর কাছে মোটা অঙ্কের ঘুষ দাবি করেন। টাকা না দেওয়ায় কামাল হোসেনের নামজারির (এসএ/আরএস বিবিধ মোকদ্দমার প্রতিবেদন দাখিলের) ফাইল চাপা দিয়ে রাখেন। কামাল হোসেন বিরক্ত হয়ে উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা নূরুজ্জামানের বিরুদ্ধে দুদকের পরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। এরই মধ্যে ভুক্তভোগী কামাল হোসেন নামজারির কাজ সম্পন্ন করার জন্য ভূমি কর্মকর্তার সঙ্গে ১২ হাজার টাকায় রফাদফা করেন। এরই ধারাবাহিকতায় কামাল হোসেন ভূমি কর্মকর্তা নূরুজ্জামানকে টাকা দেওয়ার সময় দুদক কর্মকর্তারা তাঁকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন। পরে তাঁকে আটক করে শিবপুর থানায় হস্তান্তর করেন। ভুক্তভোগী কামাল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘সাধারচর ভূমি অফিসের উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা নূরুজ্জামান একজন ঘুষখোর। কোনো কাজের জন্য অফিসে গেলেই তাঁকে টাকা দিতে হবে। টাকা ছাড়া কোনো কাজ হয় না। টাকা না দিলে তিনি ফাইল চাপা দিয়ে রাখেন। আমি একা নই। আমার মতো অনেকের কাছ থেকে ফাইল আটকে রেখে তিনি টাকা নিয়েছেন।’ দুদকের ঢাকা বিভাগীয় পরিচালক নাসিম আনোয়ার বলেন, ভুক্তভোগী কামাল হোসেনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে শিবপুরের সাধারচর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে অভিযান চালিয়ে ঘুষ আদান-প্রদানের সময় নূরুজ্জামানকে হাতেনাতে আটক করা হয়। এ ঘটনায় দুদকের সহকারী পরিচালক মো. ফজলুল বারী বাদী হয়ে শিবপুর থানায় মামলা করেন।

ইতিহাস ও ঐতিহ্যের মাঝে মিশে আছে শীতলক্ষ্যা নদী : শরীফুল হক

আল আমিন মুন্সি, নরসিংদী প্রতিনিধি:: ঘোড়াশাল পৌরসভা মেয়র মোঃ শরীফুল হক বলেন, মানুষের অস্থিত্বের সাথে নদীর রয়েছে নিবিড় সম্পর্ক। আমাদের সাংস্কৃতি ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সাথে জড়িয়ে আছে শীতলক্ষ্যা নদী। কিন্তু সেই শীতলক্ষ্যা আজ অস্থিত্বহীনতার মুখে। দখলবাজদের থাবায় দখল, দূষণ আর ভরাটের কবলে পড়ে নদীটি চরম হুমকির মুখে। তা হতে দেয়া যাবে না। তাই যেকোন মূল্যে শীতলক্ষ্যাকে বাঁচাতে হবে। এজন্য প্রথমেই মানুষকে সচেতন হতে হবে। জনগণের সমন্বয়ে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমে শীতলক্ষ্যা নদী রক্ষা করতে হবে। শীতলক্ষ্যা বাঁচাও দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও শ্লোগানকে সামনে নিয়ে শীতলক্ষ্যা নদী আন্দোলন নামে একটি সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে ঘোড়াশাল পলাশ সড়কে এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পলাশ উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এস এম শফি, সাধারন সম্পাদক আশাদুল্লাহ মনা, কাউন্সিলর বিল্লাল হোসেন, সুরাইয়া মফিজ, ভাটপাড়া এনসি গুপ্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বরুন দাস, এড: খাইরুন নাহার, ঘোড়াশাল পৌর ছাএলীগের সভাপতি সমশের খান রুবেল এবং বাঁচাও শীতলক্ষ্যা নদী আন্দোলনের সম্নয়ক মাহবুব সৈয়দ প্রমূখ। মানবন্ধনে সাংবাদিক, শিক্ষক, ছাএ, আইনজীবি সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নরসিংদীর পাঁচদোনা সড়ক যেন মরণ ফাঁদ

নরসিংদী প্রতিনিধি :> নরসিংদীর পাঁচদোনা-ডাঙ্গা সড়কটি যেন এখন মরণ ফাঁদ। খানাখন্দে ভরা ছোট-বড় গর্তে প্রতিনিয়তই ঘটছে দুর্ঘটনা। দীর্ঘদিন ধরে সড়ক সংস্কার না হওয়ায় ক্ষোভে ফুঁসছেন এলাকাবাসী। যদিও সড়ক ও জনপথ বিভাগ বলছে, শিগগিরই সড়কটি চার লেনে উন্নীত করা হবে। এ চিত্র নরসিংদীর পাঁচদোনা-ডাঙ্গা সড়কের। রাস্তা তো নয় যেন মরণফাঁদ। খানা-খন্দ আর ছোট-বড় গর্তে এ রাস্তা চলাচলের উপযোগী নয় বললেই চলে। এই রাস্তা দিয়েই যাতায়াত আশপাশের এলাকার লাখো মানুষের। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে এটি সংস্কার না হওয়ায় প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। সম্প্রতি এলাকাটিকে অর্থনৈতিক অঞ্চল হিসেবে ঘোষনা করা হলেও রাস্তা-ঘাট সংস্কারে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় ক্ষুব্ধ এখানকার বাসিন্দারা। তবে দ্রুতই সড়কটিকে চার লেনে উন্নিত করা হবে বলে জানালেন, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা। ২১ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সড়কটি নরসিংদী সদরের পাঁচদোনা থেকে শুরু হয়ে যা শেষ হয়েছে পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা ইউনিয়নের ইসলামনগরের শীতলক্ষ্যা ঘাটে।

পলাশে উন্নয়নের মাইল ফলক কামরুল চেয়ারম্যান

আল-আমিন মুন্সি, নরসিংদী প্রতিনিধি:: নরসিংদীর পলাশ উপজেলার জিনারদী ইউনিয়ন উন্নয়নের মাইল ফলক হিসেবে রুপ নিয়েছে চেয়ারম্যান প্রফেসার কামরুল ইসলাম গাজীর চেষ্টায়। তিনি বিগত দিনে প্রায় ১শত ছোট-বড় মিলিয়ে রাস্তা ঘাট করেছেন, গরীব দুঃখিদের মাঝে প্রায় ১শত টিউবয়েল দিয়েছেন এবং মসজিদ, মন্দির, স্কুল, ব্রীজ, কালর্ভাটসহ আধুনিক মালট্রিপারপাস ভবন করেন, এক আধুনিক ইউনিয়নে রুপান্তরিত করেন জিনারদী ইউনিয়নকে। পলাশ উপজেলা সংবাদ সংস্থার দৈনিক দিনকালের সিঃ সাংবাদিক আলহাজ্ব জাহিদ হোসেন গাজী ও সাপ্তাহিক একুশের কণ্ঠের প্রতিনিধি মোঃ আল-আমিন মিয়া, জিনারদী ইউনিয়ন ঘুরে সাধারণ জনগণের সাথে কথা বলে জানা যায়, ব্যাপক উন্নয়নের ফলে জনসাধারণ চেয়ারম্যানের প্রতি সন্তুষ্ট হয়েছে। ইউনিয়নের দ্বিতীয় মেয়াদের প্রথম অধিবেশনে তিনি বলেন, আমার পরিষদের নির্বাচিত মেম্বার, সংরক্ষিত সদস্যদের সাথে নিয়ে ও স্থানীয় সংসদ সদস্য কামরুল আশরাফ খান (পোটন) সাহেবের সহযোগিতায় জিনারদী ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে রুপান্তরিত করব এবং বিগত বছরগুলিতে যে উন্নয়ন করেছি তার ধারাবাহিকাতা বজায় রাখতে পরিকলপনা নিয়েছি অসম্পূর্ণ যে রাস্তাগুলো রয়েছে সেগুলো সম্পূর্ণ করা। এখনো অনেক গরীব লোক রয়েছে তাদেরকে শত ভাগ টিউবয়েল নিশ্চিত করা। শত ভাগ সেনিটেশন করা, গৃহহীনদের পূর্নবাসন করা, চিকিৎসা সেবা নিরশ্চিত করা। মাদক মুক্ত সমাজ গড়া, সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ মসজিদ মন্দিরের উন্নয়ন করা। বয়স্ক ভাতা শত ভাগ পুরণ করা। প্রতিবন্ধী ও বিধবাদের পুর্ণবাসন করা। জঙ্গীবাদ, বহিরাগত সন্ত্রাস ভুমি দস্যু বাল্যবিবাহ নির্মুল করা। উন্নয়নের পাশাপাশি ন্যয় বিচার প্রতিষ্ঠা করা, চুরী ডাকাতি ও নারী নির্যাতন বন্ধ করা। সকল ধর্মের সমান অধীকার করা। ইউনিয়নের বেকার যুবকদের কর্মসংস্থার ব্যবস্থা করা।

পলাশে বিদ্যুৎ বিতরণ ও ডিজিটাল ল্যাব উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

আল-আমিন মুন্সী,নরসিংদী :> নরসিংদীর পলাশ উপজেলার প্রতিটি বাড়ি বিদ্যুতের আওতায় এনেছে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড। শনিবার সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গনভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পলাশ উপজেলার মল্টিপারপাস অডিটরিয়ামে এর আনুষ্ঠানিক ঘোষনা দেন। এছাড়া একই সাথে ঘোড়াশাল নূর মহসীন গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ সহ নরসিংদী জেলার ২৫টি বিদ্যালয়ের শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপনার শুভ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। নরসিংদী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ঘোড়াশাল কার্যালয়ের ডিজিএম অনিতা বর্মন জানান সরকারের ২০১১ সালের মধ্যে সবার জন্য বিদ্যুৎ পরিকল্পনার বাস্তবায়ন এটি। পলাশ উপজেলায় ১১৮টি গ্রামের মোট ৪৭ হাজার গ্রাহক বিদ্যুৎ সংযোগ পেয়েছেন। এই গ্রাহকদের জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহে মোট চারটি উপকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। পলাশ উপজেলায় মোট ৮৩৩ কিলোমিটার বিদ্যুৎ লাইনের জন্য জাতীয় গ্রীড থেকে ৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। বিদ্যুৎ জ্বালানী খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয়ের দিক নির্দেশনায় আমরা উপজেলায় সব বাড়িতে বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে সক্ষম হয়েছি। পলাশ উপজেলার মাল্টিপারপাস অডিটোরিয়ামে ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন পলাশ আসনের সংসদ সদস্য কামরুল আশরাফ খান পোটন, নরসিংদী সদরের এমপি ও পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম হিরু, জেলার অন্যান্য আসনের এমপি, নরসিংদী জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার সহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

প্রধান সংবাদ


সর্বশেষ সংবাদ

নরসিংদীতে ১ হাজার ২শ’ পিস ইয়াবাসহ আটক ১

পলাশে গাঁজা ও ইয়াবাসহ আটক ৩

নরসিংদীতে ৩০ লাখ টাকার মূল্যের হেরোইনসহ দুইজন গ্রেফতার

কালিয়াকৈরে পৃথক স্থান থেকে দুই নারীর লাশ উদ্ধার

নরসিংদীতে চাঁদা না দেওয়ায় দুজনকে গুলি করে হত্যা

বাবুরহাটে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে নিহত -১, আহত -১০

বখাটের চাপাতির আঘাতে মেধাবী ছাত্রীর দীপা নিহত

রায়পুরায় আ’লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০


আজকের সব সংবাদ

সম্পাদক : মো. আলম হোসেন
প্রকাশনায় : এ. লতিফ চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়:
সরদার নিকেতন
হাসনাবাদ, দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ, ঢাকা-১৩১১।

ফোন: ০২-৭৪৫১৯৬১
মুঠোফোন: ০১৭৭১৯৬২৩৯৬, ০১৭১৭০৩৪০৯৯
ইমেইল: ekantho24@gmail.com