রবিবার, ২৩ Jul ২০১৭ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৪ English Version

সারাদেশ - রংপুর বিভাগ - দিনাজপুর

বীরগঞ্জে ৩ বছরের শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টা, ধর্ষক আটক

এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:: দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ৩ বছরের শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টাকালে ধর্ষককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। উপজেলার সাতোর ইউনিয়নের শালবন এলাকার শ্রী অমিতাভ রায়ের ৩ বছরের কন্যা সংগিতাকে একই এলাকার মোহাম্মদ হোসেনের পুত্র মোজাফ্ফর হোসেন ২ অক্টেবর দুপুরে বাড়ীর পাশে বাথরুমে নিয়ে গিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। এ সময় শিশু সংগিতার চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এলে ধর্ষক মোজাফ্ফর পালিয়ে যায়। সন্ধ্যায় এলাকাবাসী তাকে আটক করে থানায় সংবাদ দিলে অফিসার ইনচার্জ আবু আককাস এর নির্দেশে এসআই আনোয়ারুল ইসলাম ও এসআই উত্তম কুমার ধর্ষক মোজাফ্ফরকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। রাত ১১টায় সংগিতার বাবা ও মা ধনমনি রায়ের কোলে চড়ে থানায় এলে সে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। এসময় তার মা ধনমনি জানায়, তারা স্বামী-স্ত্রী কাজের জন্য বাড়ীতে ছিলনা, তারই সুযোগে লম্পট মোজাফ্ফর ঘটনাটি ঘটিয়েছে। প্রতিবেশীরা তাদের সংবাদ দিলে তারা বাড়ীতে এসে মেয়েটির নিম্নাঙ্গে রক্ত দেখে এলাকাবাসীকে ঘটনাটি জানায়। ওসি তদন্ত ফকরুল ইসলাম রাত ১২টায় তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের জানায়, উল্লেখিত ঘটনায় মামলা গ্রহনের প্রস্তুতি চলছে।

ফুলবাড়ীতে শেষ মুহুর্তে মহাব্যস্ত প্রতিমা কারিগররা, ৫২টি মন্ডপে চলছে দুর্গা পূজার আয়োজন

প্লাবন গুপ্ত শুভ, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:: দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার পৌর এলাকাসহ ৭টি ইউনিয়নে ৫২টি মন্ডপে চলছে দূর্গাপূজা আয়োজনের ব্যাপক প্রস্তুতি। শেষ মুহুর্তে প্রতিমা তৈরিতে মহাব্যস্ত সময় পার করছেন কারিগররা ইতোমধ্যে দূর্গা প্রতিমার কাঠামোর মাটির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে শুরু হয়েছে রং ও সাজসজ্জার কাজ। সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন পূজামন্ডপ ঘুরে দেখা যায়, দূর্গাপূজাকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরির কাজে বাঁশ, খড়, কুমার মাটি, ধানের গুড়া, পাঠ, কাপড় ও নানা বাহারী রং ব্যবহার করে খুব আনন্দের সাথে কর্মযজ্ঞে ব্যস্ত সময় পার করছেন কারিগররা। দম ফেলারও ফুসরত নেই তাদের। নাওয়া-খাওয়া ভুলে দিনরাত কাজ চলছে। মূর্তি গড়া শেষে দু’একদিনের মধ্যে রং তুলির আঁচড়ে ফুটিয়ে তোলা হবে প্রতিমা। এরপর প্রতিমায় পোশাকসহ অলংকার পরিয়ে করা হবে দৃষ্টিনন্দন। প্রবীণ কারিগর কাত্তিক রায় বলেন, ৫টি প্রতিমা তৈরির কাজ হাতে নেয়ায় শেষ সময়ে এখন নির্ঘুম রাত কাটছে তাদের। দিন দুয়েকের মধ্যেই প্রতিমাতে রং-তুলির আঁচড় দেয়া হবে। বাবলু রায়, তারা পদ রায়, জিবন কুমার ও ভূষণ সিং বলেন, তাদের হাতে মোট ৫টি প্রতিমা তৈরির কাজ রয়েছে। এতে তারা পারিশ্রমিক পাবেন ১লাখ ২০হাজার টাকা। তাই দিনরাত জেগে কাজ করে যাচ্ছেন। বছরে একবারই এতবড় কাজ পাওয়া যায়। পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া বাপ-দাদার এ কাজ অত্যন্ত মানবেতর জীবন যাপনের মধ্যেও ধরে রেখেছেন কোন মতে। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ফুলবাড়ী শাখার সভাপতি ডা. নিরঞ্জন কুমার রায় ও সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক অমর চাঁদ গুপ্ত অপু বলেন, “শান্তিপূর্ণভাবে পূজা অনুষ্ঠানের জন্য প্রশাসনসহ প্রতিটি মন্ডপ কমিটির পক্ষ থেকে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। অতিতের মতোই এবারও অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ ও শুষ্ঠুভাবে এই বৃহৎ শারদীয় উৎসব পালন করা হবে। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোকছেদ আলী বলেন, পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপজেলার প্রতিটি দুর্গা মন্ডপের সার্বিক নিরাপত্তার নিশ্চিতসহ পুলিশ ও আনসার সদস্য মোতায়েন করা হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. এতেশাম রেজা বলেন, উপজেলার ৫২টি মন্ডপের দুর্গাপূজা শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এজন্য গত বুধবার (২৮অক্টোবর) পূজা উদযাপন পরিষদসহ ৫২টি পূজা মন্ডপের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নিয়ে বিশেষ আইনশৃংখলা বিষয়ক সভা করা হয়েছে।

দিনাজপুরের রাধা রানী ফ্রান্সে আন্তর্জাতিক গার্লডে’র অনুষ্ঠানে যোগদান

দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:: ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে অনুষ্ঠিতব্য আন্তর্জাতিক গার্লডে’র বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে ২ অক্টোবর রোববার ঢাকা ত্যাগ করবেন দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার হোসেনপুর ডিগ্রী কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্র্ষের ছাত্রী রাধা রানী সরকার। ৩ অক্টোবর থেকে ১২ অক্টোবর পর্যন্ত বিভিন্ন কর্মসূচিতে তিনি ফ্রান্সের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, প্যারিসের মেয়র, পার্লামেন্ট মেম্বার ও সুশীল সমাজের আয়োজনে র‌্যালি, আলোচনা সভা, টেলিভিশন সাক্ষাৎকার বিতর্কসহ নানা কর্মসূচীতে অংশ নেবেন। এসব অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পক্ষে রাধা রানী সরকার নিজ এলাকার শিশু অধিকার পরিস্থিতি, জন্মনিবন্ধন ও শিশু বিবাহ বন্ধে তার ও শিশুদলের ভূমিকা তুলে ধরবেন। প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের ফ্রান্স অফিসের আমন্ত্রণে রাধা রানী সরকার এসব কর্মসূচিতে অংশ নিতে যাচ্ছে। ফ্রান্সে যাবার অনুভূতি ব্যক্ত করে রাধা রানী সরকার বলেন”, শিশু অধিকার প্রতিষ্ঠায় আমাদের অভিজ্ঞতা আমি সেখানে তুলে ধরতে চাই” বর্তমানে তিনি সরকারী বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা পল্লীশ্রীর কমিউনিটি ডেভলপমেন্ট প্রকল্পে সুপারভাইসার হিসেবে কাজ করছেন। ২০০৫ সাল থেকে রাধা প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের সহায়তায় পরিচালিত বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, সার্বিক স্যানিটেশন, গুণগত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন সচেতনতামূলক কর্মসূচিতে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করে আসছেন। রাধা রানী সরকার খানসামা উপজেলার আঙ্গারপারা ইউনিয়নের আরজি জুগির ঘোপা গ্রামের গোপাল চন্দ্র সরকার ও শান্তি রানী সরকারের মেয়ে।

পাল্টাপুর ইউপির উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা

এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:: দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার পাল্টাপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করেছেন নির্বাচন কমিশন। বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও পাল্টাপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো: সামসুল আযম আজ বৃহস্পতিবার তার কার্যালয়ে জানায়, স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) নির্বাচন বিধিমালা ২০১০ এর বিধি ৫ এর (১) উপবিধির ক্ষমতা বলে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের ঘোষনা মোতাবেক স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠান করার লক্ষে তফসিল ঘোষনা করেছে। তফসিল অনুযায়ী আগামী ৬ অক্টোবর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ, ৭ অক্টোবর মনোনয়নপত্র বাছাই, ১৪ অক্টোবর প্রার্থীতা প্রত্যাহার শেষ তারিখ এবং ৩১ অক্টোবর ভোট গ্রহন। উল্লেখ্য, ৪নং পাল্টাপুর ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা তোবারক আলী তাবার ১৮ আগস্ট বৃহস্পতিবার সন্ধায় ৬টা দিনাজপুর মেডিকেল হাসপাতালে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেছেন।

বীরগঞ্জে ২’টি স্কুলের বেহাল দশা, বৃষ্টির পানিতে ছাত্র-ছাত্রীর ভোগান্তি

এন.আই.মিলন, দিনাজপুর (বীরগঞ্জ) প্রতিনিধি: বীরগঞ্জে ২’টি স্কুলে বৃষ্টির পানির নিস্কাশনের সমস্যা শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীর ভোগান্তি চরমে উঠেছে। গত রোববার সকাল থেকে আকাশের ভারী বৃষ্টি হলে উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের ঝাড়বাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বৃষ্টির পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকার কারনে পানি হাটু অতিক্রম করে স্কুলের ক্লাসরুমে জমে থাকা অবস্থায় কোমলমতি শিশু ছাত্র/ছাত্রী ও শিক্ষক-কর্মচারীরা কাদার মাঠ অতিক্রম করে কাদা-মাটি নিয়ে স্কুলের ক্লাসে যায় এবং ভাবেই চলে পাঠদান। বছরের পর বছর ধরে আবেদন নিবেদন করেও সুফল হচ্ছে না। আকাশের সামান্য বৃষ্টি হলেই একই ক্যাম্পাসের হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী, বৃষ্টি-বাদলে পুকুরের মত জমে থাকা অবস্থায় পাঠদান করতে গিয়ে অনেক ছাত্রছত্রী অসুস্থ্য হয়ে পড়েছে আবার অসুস্থ্য হওয়ার ভয়ে অভিভাবকেরা স্কুলে পাঠাছে না। ৩ বছর ধরে এঅবস্থা চলতে থাকলেও প্রশাসন কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ সংশ্লিষ্টদের। বাড়ছে শিক্ষক-শিকক্ষার্থীদর দুর্ভোগ। শিক্ষাথীদের সংখ্যাও কমছে ও পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। শতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসছে না। তৃতীয় শেণীর কোমলমতি শিশু ছাত্রী মনিরা জানায় বৃষ্টির কারনে স্কুলে আসতে পারি না, স্কুল ড্রেস ড্রেস-বইপত্র ভিজে যায়। পচা ও দুগন্ধযুক্ত কাদা-পানিতে ভিজে হাত-পা চুলকায় পরে ঘা হয়। উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী আমিনা জানায়, পানিতে ভেসে আসা ময়লা দুগন্ধ আর পোকা-মাকরের ভয়ে স্কুলে পগা-শুনায় মন বসে না। তদুপরি মাঠে হাটু পানি জমে থাকার কারনে খেলাধুলা কোন কিছু হয় না। ঝাড়বাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক গোলাম মোস্তফা বলেন, বর্ষা-বাদল ছাড়াও সামান্য বৃষ্টিতে স্কুল ক্যাম্পাস পানিতে তলিয়ে যায়। পানি নিস্কাশনে কোন ব্যবস্থ না থাকায় বৃষ্টির পানি ক্লাসরুমে ঢুকে পড়ে। এত পাঠদান কর্মসুচী মারত্বক ভাবে বিঘ্নিত হয়। বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মাটি ভরাট করে পানি নিস্কাশনে ড্রেন নিমান করা হলে সৃষ্ট সমস্যা সমাধান হতে পারে। সমস্যাটি সমাধানের জন্য জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপালের মাধ্যমে আবেদন দেওয়া হয়েছে। সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহনাজ পারভীন ঝর্না বলেন, আকাশের বৃষ্টির সময় স্কুল ক্যাম্পাস সহ ক্লাসরুম পানিতে তলিয়ে যায়। বৃষ্টির সময় ক্লাস নিলে কোমলমতি শিশু ছাত্রছাত্রীর বই-খাতা পানিতে নষ্ট হয়। এ ছাড়াও ছাত্রছাত্রীদের সর্দ্দি জ্বর, হাচি-কাশিসহ নানা রোগ দেখা দেয়। ক্যাম্পাসের পানি শুকিয়ে গেয়ে বিদঘুটে দুগন্ধে বমি পর্যন্ত হয়। এ অবস্থায় স্কুল বন্ধও রাখা যায় না, আবার দুগন্ধের কারনে শিক্ষাথীদের সংখ্যাও কমে যায়।

চিরিরবন্দরের হাটগুলোতে ভারতীয় গরু না থাকায় ভাল দাম পাচ্ছেন গোখামারিরা

দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:: দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে হাটগুলোতে ভারতীয় গরু না থাকায় ভাল দাম পাচ্ছেন গো-খামারিরা। আসন্ন কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে চিরিরবন্দরে জমে উঠেছে গরুর হাট। এ বছর হাটগুলোতে ভারতীয় গরু না থাকায় দেশি গরুর চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় দাম বেড়েছে দেশি গরুর। ফলে এ বছর লাভের মুখ দেখছেন খামারিরা। এবার গরু বিক্রি করে এ অঞ্চলের খামারি ও চাষিরা গত দুই বছরের লোকসান কাটিয়ে উঠতে পারবেন বলে আশা করছেন। কোরবানির ঈদে দেশে গরুর চাহিদার অনেকটাই পূরণ করে থাকে দিনাজপুর অঞ্চলসহ চিরিরবন্দরের গোখামারিরা। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে দেশের বিভিন্ন জেলার গরুর ব্যাপারিরা এ অঞ্চলের গরু খামারি ও বাড়ি থেকে গরু কিনে নিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া দিনাজপুরসহ চিরিরবন্দর হাট-বাজার গুলোতে যোগাযোগের সুন্দর ব্যবস্থা থাকায় দিনাজপুর জেলাসহ বিভিন্ন জেলার ব্যবসায়ীদের কাছে এই হাটগুলোর গুরুত্ব অনেক বেশি। প্রতি সপ্তাহের সোমবার-বৃহস্পতিবার রাণীরবন্দর হাট, রোববার-বুধবার কারেন্ট হাট বসে। গত বুধবার ও আজ শনিবার দুপুরে চিরিরবন্দর কারেন্ট হাট সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, হাটে তিল ধারনের ঠাঁই নেই। দূর-দূরান্ত থেকে গরু ব্যবসায়ী ও খামারিরা শত শত ট্রাক ও নসিমনে করে হাজার হাজার গরু নিয়ে আসছেন। ছোট, বড় ও মাঝারি সব ধরনের গরু আমদানি হয়েছে। হাটে ভারতীয় গরু রয়েছে মাত্র ২ থেকে ৪ টি। ফলে দেশি গরুর চাহিদা বেড়েছে। দাম বেশি হওয়ায় ছোট ও মাঝারি দেশি গরুর প্রচুর চাহিদা রয়েছে। পরপর দুই বছর লোকসানের পর এ বছর গরুর ভাল দাম পাওয়ায় বেশ খুশি দিনাজপুরসহ চিরিরবন্দর উপজেলার গোখামারিরা। উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ তারেক হোসেন জানান, উপজেলা প্রানিসম্পদ দপ্তরের সহযোগিতায় এই উপজেলায় প্রায় ২২ হাজার গরু মোটাতাজাকরন করা হয়েছে। এগুলো চিরিরবন্দর হাট-বাজারে বিক্রির জন্য নিয়ে যাচ্ছে খামারীরা। তিনি আরো জানান, এই উপজেলায় কোরবানির পশুর চাহিদা পূরন করেও রাজধানীসহ বিভিন্ন এলাকায় কোরবানীর পশু সরবরাহ করছে। শুধুমাত্র সুষম গো খাবার সরবরাহ করে এই অঞ্চলের গরু মোটাতাজাকরন করার কারনে চিরিরবন্দরে কোরবানির পশুর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

চিরিরবন্দরে অদৃশ্য মানুষের গুজবে এলাকায় আতঙ্ক

প্লাবন গুপ্ত শুভ, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:: দিনাজপুরের চিরিরবন্দরের নশরতপুর ও তেতুঁলিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে অদৃশ্য মানুষ ঘোরাঘোরি করছে এমন গুজবে ছড়িয়ে পড়ায় এলাকাবাসীর মাঝে চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। উপজেলার ভূষিরবন্দর গ্রামের গৃহবধূ উম্মে কুলছুম ও মোমেনা বেগমসহ বেশ কয়েকজন বলেন, লোকমুখে তারা শুণেছেন কোন অদৃশ্য মানুষ রাতের বেলায় গ্রামে গ্রামে ঘোরাঘোরি করছে এবং নারীদের শরীরে ভর করে ঐসব নারীদেরকে নির্যাতন করছে। তবে বাড়ির লোকজন কিছুই বুঝতে পারছে না। একই এলাকার বেশ কয়েক ব্যাক্তি বলেন, বিষয়টি পুরোপুরি গুজব এবং হাস্যকর। তবে গ্রামের বেশ কিছু নারী একই কথা বলায় বিষয়টি নিয়ে বিভ্রান্তিতে পড়তে হচ্ছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন নারী স্বামীর বাড়ি ছেড়ে পিত্রালয়ে চলে যাওয়ার ঘটনাটি এলাকাবাসীর মাঝে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে। তেতুঁলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুনিল কুমার সাহা বলেন, এটি একটি গুজব মাত্র। কিছু নারী ও পুরুষের প্রচারণায় এতি আতঙ্ক হিসেবে ছড়িয়ে পড়েছে। এসব গুজবে কান না দিতে সকলের প্রতি আহবান জানিয়েছেন ঐ চেয়ারম্যান।

ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে ব্যস্ত চিরিরবন্দরের কামার শিল্পীরা

দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি:: আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আজহাকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার কামার শিল্পীরা। কোরবানীর পশু জবাই মাংস কাঁটাকাটি আর চামড়া ছড়ানোর কাজে চাপাতি, দা, ছুঁরি, বটিসহ কিছু ধারালো জিনিস প্রয়োজন হয়। আর এসব পন্য তৈরীতে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন কামার শিল্পীরা। গত কয়েক বছরের তুলনায় এবছর বিক্রি কম হওয়ায় অনেকটাই বিপাকে তারা। তবে ঈদ যতই ঘনিয়ে আসবে বিক্রি ততো বেশী হবে বলেও জানান তারা। ঈদুল আজহার অন্যতম ওয়াজিব পশু জবাই করা। আর জবাই করার অন্যতম উপাদান এসব পন্য। সারা বছর তৈরীকৃত এসব পন্য যত বিক্রি হয়না তার চেয়ে বেশি বিক্রি হয় এই ঈদে। কারণ হিসাবে জানা যায়, পশু জবাই করার জন্য ধারালো অস্ত্রের প্রয়োজন। আর পুরাতন এসব অস্ত্র সবাই সংরক্ষনে রাখেন না বলেই প্রতি বছর নতুন নতুন অস্ত্রের প্রয়োজন পড়ে। চিরিরবন্দরের হাট-বাজারে এসব তৈরীকৃত পন্য বিক্রি করা কয়েকজন কামার শিল্পীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, কামার শিল্পের অতি প্রয়োজনীয় জ্বালানি কয়লার অপ্রতুলতায় দাম বেড়ে গেছে। বেড়েছে লোহার দামও। লোহা ও কয়লার দাম বাড়লেও সে তুলনায় কামার শিল্পের উৎপাদিত পণ্যের দাম বাড়েনি। বছরের অন্যান্য সময়ের চেয়ে কোরবানির সময়টাতে কামার শিল্পীদের কাজের চাপ অনেক বেড়ে যায়। উপজেলার নশরতপুর, সাতনালা, আলোকডিহি, তেঁতুলিয়া, সাইতাড়া, ইসবপুর, ইউনিয়নসহ ১২টি ইউনিয়নে প্রায় ২ শতাধিক কামার পরিবারের বসবাস। রাণীরবন্দর খানসামা রোডের কামার শিল্পী গৌতম, রতন, পরেশ জানায়, সারা বছর তৈরীকৃত এসব পন্য যত বিক্রি হয়না তার চেয়ে বেশি বিক্রি হয় ঈদুল আযহায়। প্রতিটি নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম প্রতিনিয়ত বেড়েই চলছে। সে তুলনায় তাদের উৎপাদিত পণ্যের দাম বাড়েনি। এদের অনেকে জানান, তারা আর্থিকভাবে ক্ষতির শিকার হলেও তাদের পৈত্রিক পেশাকে এখনো বুকে আঁকড়ে ধরে আছেন। কিন্তু তাদের সন্তানদের আর এ পেশায় নিয়োজিত করবেন না তাই তারা সন্তানদের লেখাপড়া শেখাচ্ছেন।

রিশা’র খুনি ওবায়দুল ডোমার থেকে গ্রেফতার, আটক বোন-দুলাভাইদের মুক্তি

এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:: ঢাকার উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার রিশার খুনি বখাটে ওবাইদুল দোর্জিকে ডোমার থেকে গ্রেফতারের পর বীরগঞ্জ থানা থেকে ২ বোন-দুলাভাইসহ ৫ জনকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। বীরগঞ্জ ও ডোমার থানা সুত্রে জানা গেছে, ডোমার থানার ওসি আহম্মেদ রাজিউর রহমানের নেতৃত্বে ঢাকা-ডিএমপি রমনা থানার এসআই মোঃ মোশাররফ হোসেনসহ ডোমার থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে গত মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার সোনা রায় বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে বীরগঞ্জ উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের মিরাটুঙ্গী গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে ঢাকার উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার রিশার খুনি বখাটে ওবায়দুল দোর্জিকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে ঢাকা ডিএমপি পুলিশ বীরগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতায় সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের মিরাটুঙ্গী গ্রামের আব্দুস সামাদ পাইকার ও বোন-দুলাভাইয়ের বাড়ীতে অভিযান চালায়। সেখানে খুনি ওবায়দুলকে না পেয়ে তার দুলাভাই খাদেমুল ইসলাম (৪৩), বড় বোন খাদিজা খাতুন (৩৭) ও বড় বোনের শাশুরী খতেজা বেগম (৬৩)কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। মঙ্গলবার সকালে মরিচা ইউনিয়নের নাগরিসাগরি পল্টনপাড়ায় ওবাইদুলের নানার বাড়ীতে, বিকেলে উপজেলার শিবরামপুর ইউনিয়নের মুরারীপুর গ্রামে ওবাইদুলের চাচাতো বোনের স্বামী ওমর আলীর ছেলে মখলেছুর রহমানের বাড়ীতে অভিযান চালায়। সেখানে খুনিকে না পেয়ে চাচাতো বোন রুবিনা অক্তার (২২) দুলাভাই মখলেছুর রহমান (৩০) কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে এবং তাদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। বীরগঞ্জ থানার ওসি আবু আক্কাস আহমদ সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তথ্য-প্রযুক্তি ও জিজ্ঞাসাবাদের সুত্র ধরে ঢাকা-ডিএমপি রমনা থানার পুলিশ ডোমার থানা পুলিশের সহযোগিতায় নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার সোনারায় বাজারে সফল অভিযান চালিয়ে ওবাইদুলকে গ্রেফতার করে ঢাকা অভিমুখে যাত্রা করেছে। খুনি ওবাইদুল গ্রেফতার হওয়ার পর নিরপরাধ শিশু রুবায়েদ (২) সহ বড় বোন খাদিজা খাতুন (৩৭), চাচাতো বোন রুবিনা অক্তার (২২), দুলাভাই খাদেমুল ইসলাম (৪৩) ও মখলেছুর রহমান (৩০) সহ ৬ জনকে নিঃশর্ত মুক্তি দেয়া হয়েছে। মোহনপুর ইউপি সদস্য মোঃ বাচ্চু মিয়া জানান, ওবাইদুলের পিতা মোঃ আব্দুস সামাদ পেশায় বিভিন্ন শস্যের পাইকার ছিলেন। প্রথম স্ত্রী বুধিরন ১ ছেলে ও ৩ মেয়ে রেখে মারা যাওয়ার পর মোছাঃ চন্দনী বেগমকে বিয়ে করেন। চন্দনী কোল জুড়ে আসে ১ ছেলে এবং ৪ মেয়ে। একমাত্র ছেলে ওবাইদুল যখন চকদফর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্র তখন তার মা চন্দনী বেগম মারা যায়। এরপর পঞ্চম শ্রেণীতে পড়া অবস্থায় পিতা আব্দুস সামাদ পাইকার তাকে ঠাকুরগাঁও ম্যাজিক কার্ট টেইলার্সে রেখে আসেন। অভাবের সংসারের কথা শুনে শিশু ওবায়দুলকে টেইলার্সের কাজের সুযোগ দেন টেইলার্সের মালিক গৌরাঙ্গ। এরপর আব্দুস সামাদ বিয়ে করেন আখেলিমা নামে স্বামী পরিতাক্ত্য এক মহিলাকে। আনুমানিক ৫ বছর পুর্বে মারা যান আব্দুস সামাদ পাইকার। পিতার মৃত্যুর পরও ওবাইদুল প্রায় এখানে আসতো। প্রতিটি ঈদ সে এখানে পালন করেতো। তাকে সর্বশেষ গত সোমবার দুপুরে লাটের হাট বাজারে দেখা গেছে। তখন পর্যন্ত বিষয়টি আমার জানা ছিল না। বিষয়টি জেনে হতবাক হয়েছি। মোহনপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মজিদুল ইসলাম মাষ্টার জানান, এই ছেলে একটি মেয়েকে শুধু হত্যা করেনি। আমাদেরকে কলংকিত করেছি। আমরা এই এলাকার মানুষ লজ্জিত এবং শোকাহত। আমরা এই হত্যাকান্ডের বিচারের দাবিতে ঐক্যবদ্ধ। তার গ্রেফতারের সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় আনন্দ দেখা যায়।

প্রধান সংবাদ


সর্বশেষ সংবাদ

সৈয়দপুরের কলেজ ছাত্রী শারমিন ৫ মাস ধরে নিখোঁজ

জয়নন্দ ডিগ্রী কলেজ জাতীয়করন পূন:বহালের দাবীতে অবরোধ

ক্রসফায়ার ও ধর্ষণ মামলার ভয় দেখানোর অভিযোগে দিনাজপুরে ওসির বিরুদ্ধে মামলা

চিরিরবন্দরে গণপিটুনিতে ডাকাত নিহত, আহত-১

দিনাজপুরে স্ত্রী-সন্তানকে গলা কেটে হত্যা, স্বামী আটক

হিলি সীমান্তে কোটি টাকার ভারতীয় নিষিদ্ধ ট্যাবলেট উদ্ধার

ছেলের লোহার শাবলের আঘাতে পিতার মৃত্যু

ঘোড়াঘাট উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি নানা সমস্যায় জরজড়িত

বোচাগঞ্জে রিয়াদ হত্যা মামলায় গ্রেফতার ৪


আজকের সব সংবাদ

সম্পাদক : মো. আলম হোসেন
প্রকাশনায় : এ. লতিফ চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়:
সরদার নিকেতন
হাসনাবাদ, দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ, ঢাকা-১৩১১।

ফোন: ০২-৭৪৫১৯৬১
মুঠোফোন: ০১৭৭১৯৬২৩৯৬, ০১৭১৭০৩৪০৯৯
ইমেইল: ekantho24@gmail.com