রবিবার, ২৩ Jul ২০১৭ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৪ English Version

সারাদেশ - খুলনা বিভাগ - চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গায় দুর্বৃত্তদের বোমা হামলায় আ’লীগের কর্মী নিহত

অনলাইন ডেস্ক :> চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার গঙ্গাদাসপুরে দুর্বৃত্তদের বোমা হামলা ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আওয়ামী লীগের এক কর্মী নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন। আজ সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় গ্রামের পূর্বপাড়া মসজিদের কাছে হামলার ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ আলী (৫০)। আহত হয়েছেন একই পাড়ার মো. শাহাবুদ্দীন (৭৫), তাঁর স্ত্রী মালেকা খাতুন (৫৮) ও আবদুল মোমিন (৩৮)। আহতদের যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহত শাহাবুদ্দীনের ছেলে রিপন হোসেন জানান, সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাঁর বাবা গঙ্গাদাসপুর পূর্বপাড়ার মসজিদের পাশে নিজের মুদি দোকানে বসেছিলেন। দোকানের সামনের বেঞ্চে বসে তাঁর মা ও কয়েকজন গ্রামবাসী গল্প করছিলেন। এ সময় ৩০-৩৫ জন দুর্বৃত্ত দোকান লক্ষ করে পরপর সাতটি বোমা হামলা চালায়। এরপর ধারালো হাঁসুয়া ও ফলা দিয়ে চারজনকে কুপিয়ে জখম করে চলে যায়। হামলায় ঘটনাস্থলেই আলীর মৃত্যু হয়। বোমায় শাহবুদ্দীনের ডান পা ও মোমিনের বাঁ হাত উড়ে যায়। মালেকা বেগমের পেট ও পিঠে ধারালো অস্ত্রের জখম রয়েছে। জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবীর জানান, জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাখা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গায় কয়েকটি স্থানে বোমা বিস্ফোরণ : বাড়ি ভাংচুর, আহত-৭

ই-কণ্ঠ অনলাইন ডেস্ক:: চুয়াডাঙ্গা শহরের কয়েকটি স্থানে ১০টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। ভাংচুর করা হয়েছে জেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আসাদুজ্জামান কবিরের বাড়ি। বোমা বিস্ফোরণে ছাত্রলীগ নেতা ও পথচারীসহ ৭ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে আজিম নামে ১ জনকে পুলিশ আটক করেছে। আহতদেরকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন- ছাত্রলীগ নেতা আব্দুর রহমান, অয়ন হাসান জোয়াদ্দার, টিটন, হিমেল, সাদ্দাম, আজিম ও মিরণ। বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শহরের শেকরাতলা মোড় ও জ্বিনতলা মল্লিকপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। কাউন্সিল চলাকালে একপক্ষ মাঠে প্রবেশ করতে না পেরে ৪-৫টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। ভাংচুর করে ব্যানার ফেস্টুন। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে শহরে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার জের ধরে রাতে বোমা বিস্ফোরণ ও বাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

কালবৈশাখী ঝড়ের ছোবলে লন্ডভন্ড যশোরের ২ উপজেলার প্রায় ৩০ গ্রাম

ডি এইচ দিলসান : বাজার থেকে ছুটে এসে দেখি আমার পাকা ঘর ভেঙ্গে মাটির সাখে মিশে গেছে। নিচে চাপা পড়ে আছে আমার ছোট্ট ৫ বছরের মেয়ে অনন্যা সরকার, সাথে ছিলো ছেলে আমিত আর স্ত্রী সুজাতা। কান্ন জড়ানো কন্ঠে আহত মেয়েকে বুকে চাপড়ে ধরে কালবৈশাখীতে ঘর হারানো মনিরামপুরের খেদাপাড়া ইউনিয়নের অশোক কুমার সরকার আরো বলেন মেয়ে, ছেলে আর বউকে টেনে বের করে আনি, মেয়ের মাথায় ৮টি সেলাই দেওয়া লেগেছে, স্ত্রীর মাথা, কপাল কেটে গেছে। তিনি বলেন ভগবানের ইচ্ছাই ওরা এখনো বেঁচে আছে। শুধু অশোক কুমার সরকার নয় কালবৈশাখী ঝড়ে যশোরের মনিরামপুর ও শার্শা উপজেলার খেদাপাড়া, হরিহর নগর ও ডিহি ইউনিয়নের প্রায় ৩০টি গ্রাম লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। মঙ্গলবার রাতের ওই ঝড়ে ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ২৫টি বাড়িসহ অনন্ত ৫ শতাধীক গাছপালা উপড়ে গেছে। আহত হয়েছেন প্রায় ১০ জন। এ ঘটনার পর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, যশোর-৫ আসনের সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য, মনিরামপুর থানর ওসি সহ জন প্রতিনিধিরা ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছেন। সরজমিনে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা ঘুরে দেখা গেছে যশোর-রাজগঞাজ এলাকার দুধার দিয়ে উপড়ে পড়ে আছে অসংখ্য গাছ। রাত ৮ টা থেকে সকাল ৯ টা পর্যন্ত সকল ধরনের যান চলাচল ছিলো বন্ধ। এ দিকে খেদাপাড়া ও হরিহর নগর ইউনিয়ন ঘুরে দেখা গেছ বহু ঘরবাড়ির, ক্ষেতের ফসল, গাছপালা সব ভেঙ্গে মাটিতে নুইয়ে গেছে। ঘরের টিন উড়ে বাশের গাছের মাথায় ঝুলে আছে। খেদাপাড়া পল্লী মঙ্গল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি সরদার মুজিবুর রহমান বলেন, কালবৈশাখীতে আমাদের বিদ্যালয়ের ছাদ ফেটে গেছে, উপড়ে পড়েছে ৪টি বড় গাছ, আর ভেঙ্গে গেছে আরো ১২টি রেইন্টি গাছ। তিনি বলেন সব মিলিয়ে আমাদের প্রায় ৫ লক্ষাধীক টাকার ক্ষতি হয়ে গেছে। তিনি বলেন সরকারের কাছে আবেদন তারা যেন এ বিদ্যালয়ের ক্ষতি পুরনে সহায়তা করেন। এ ব্যাপারে শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এটিএম শরিফুল আলম জানান, ঝড়ে উপজেলার তেবাড়িয়া, গোকর্ণ, চন্দ্রপুর, খলিশাখালী, রঘুনাথপুর, পণ্ডিতপুর, টেংরালী, গোবিনাথপুর, পাকশিয়া ও বাওয়ান্ডারী গ্রামে কাঁচা ও আধাপাকা ঘর এবং ছোট বড় বহু গাছ উপড়ে পড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এ ব্যাপারে যশোর-৫ আসনের সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য বলেন, আমি নিজে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছি। তিনি বলেন আমার পক্ষে যতটুকু সম্ভাব আমি তাদের সাহায্য সহযোগিতা করছি। তবে তিনি বলেন তালিকা করা হচ্ছে। তালিকা অনুযায়ি ক্ষতিগ্রস্থদের সহয়তা করা হবে।

সম্পাদক : মো. আলম হোসেন
প্রকাশনায় : এ. লতিফ চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়:
সরদার নিকেতন
হাসনাবাদ, দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ, ঢাকা-১৩১১।

ফোন: ০২-৭৪৫১৯৬১
মুঠোফোন: ০১৭৭১৯৬২৩৯৬, ০১৭১৭০৩৪০৯৯
ইমেইল: ekantho24@gmail.com