সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন

খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল স্কুলের অস্থায়ী শিক্ষক-কর্মচারিদের এমপিওভূক্তির দাবি

খুলনা ব্যুরো::

খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো বন্ধ ঘোষণার পর বিদ্যালয়গুলোর স্থায়ী শিক্ষকদের এমপিওভূক্তির প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। কিন্তু অস্থায়ী শিক্ষকদের বিষয়ে কিছুই বলা হয়নি। এতে অনিশ্চয়তায় দিন কাটাচ্ছেন ৪০ জন শিক্ষক-কর্মচারী।

এ অবস্থায় বন্ধ ঘোষিত পাটকল বিদ্যালয়গুলোতে কর্মরত অস্থায়ী শিক্ষকদের এমপিওভূক্তির দাবি জানিয়েছেন তারা। শনিবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত খালিশপুর পিপলস জুটমিল গেটস্থ বিআইডিসি রোডে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়। খুলনা উন্নয়ন ফোরাম এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম ও স্টার জুটমিল বিদ্যালয়ে কর্মরত রয়েছেন ৪০ জন অস্থায়ী শিক্ষক-কর্মচারি। তারা দীর্ঘ ১০/১৫ বছর ধরে বিদ্যালয়গুলোতে পাঠদান করছেন। এছাড়া পিইসি, জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষায় দায়িত্ব পালনসহ সরকারের সব ধরণের নির্দেশনা সঠিকভাবে পালন করেছেন। এ অবস্থায় চাকরি চলে গেলে পরিবার-পরিজন নিয়ে বিপাকে পড়তে হবে। এজন্য তাদের চাকরিও এমপিওভূক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন খুলনা উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি শরিফ শফিকুল হামিদ চন্দন। সঞ্চালনা করেন প্লাটিনাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অস্থায়ী শিক্ষক মোহাম্মদ দুলাল উদ্দিন খান। বক্তৃতা করেন খুলনা উন্নয়ন ফোরামের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ডাক্তার মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, প্লাটিনাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা মোছাম্মদ তাহমিনা, মোছাম্মদ শিলা মমতাজ, শ্রাবণী শারমিন মুক্তি, মোঃ শফিকুল ইসলাম, ইলিয়াস হোসেন, লিপিয়া খাতুন, বাবলুর রহমান, আজরান হোসেন, লাবনী আক্তার, মোসাম্মৎ সাথী, কবিতা রানী দাস প্রমূখ।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১৫ জুলাই অস্থায়ী শিক্ষকের পক্ষ থেকে খুলনা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপিতে দেওয়া হয়। স্মারকলিপিতে স্থায়ী শিক্ষকদের সঙ্গে তাদেরও স্থায়ী করার দাবি জানানো হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Nazmul Hasan